প্রাণের বইমেলা

কিশোরদের বই পড়ানোর পরামর্শ জাফর ইকবালের

প্রকাশ : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক
ama ami

বয়ঃসন্ধিকালে কিশোর বয়সিদের বইমুখী করে তুলতে ‘বিশেষ টার্গেট’ নিতে অভিভাবকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন লেখক অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল। গতকাল শনিবার অমর একুশে গ্রন্থমেলার তৃতীয় শিশুপ্রহরে এসে তিনি এই অনুরোধ জানিয়েছেন।

জাফর ইকবাল বলেন, ‘একেবারে শিশু না, কিশোর... এই যারা ক্লাস সেভেন বা এইটে পড়ে..... এই বয়সটায় তার সবকিছু মনস্তাত্বিক পরিবর্তন ঘটে এবং শিক্ষণীয় সময়টা পার করে। বই পড়াতে আমাদের ওই সময়টাকে আরো একটু টার্গেট করা যেতে পারে।’

জাফর ইকবাল বলেন, ‘বাচ্চাদের ইউটিউব-ফেসবুক থেকে সরিয়ে নিয়ে আসুন। মোবাইল স্ক্রিন থেকে তাদের সরিয়ে আনুন। স্ক্রিন হচ্ছে একমুখী, সে আমাকে দেয়, আমি কিছু দিতে পারি না। কিন্তু বই তো একমুখী না।

‘বাবা-মাকে বলব, আপনারা একটু বাচ্চাদের হাতে টাকা দেন, ওরা বই কিনুক। উৎসাহ দেন বই পড়ার জন্য। আমি যখন বই পড়ি তখন কল্পনা করি, চিন্তা জাগে, আর এটা একটা প্রক্রিয়া। কিন্তু ফেসবুক দেখলে বা ইউটিউব দেখলে তো কোনো প্রক্রিয়া হয় না, শুধু ভালো লাগা জন্মে।’

‘প্রত্যেকটা স্কুল যদি দায়িত্ব নেয় যে, আমাদের স্কুলের সব শিশুদের আমরা মেলায় নিয়ে যাব, সে ব্যাপারটাও বেশ ভালো হয়। আগে থেকে মেলা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে সব বাচ্চাদের নিয়ে আসা হলো মেলায়। ওরা ঘুরল, বেড়াল, শিখল।’

এদিকে, এবারের গ্রন্থমেলায় তরুণ প্রকাশকদের মধ্যে কেউ এসেছেন লিটল ম্যাগ আঙ্গিনা থেকে, কেউ এসেছেন মফস্বল থেকে, কেউবা প্রকাশনা ব্যবসায় এসেছেন নিজের প্রথম উপার্জনের সবটুকু বিনিয়োগ করে। খ্যাতনামা লেখকদের পাশাপাশি তরুণ লেখকদের বই প্রকাশেও তারা এগিয়ে এসেছে।

প্রকাশিত বইগুলোর মধ্যে ২৫ শতাংশ ‘মানসম্পন্ন’ বই থাকলে তবেই গ্রন্থমেলায় অংশগ্রহণের সুযোগ পায় প্রকাশনীগুলো। সেই বিচারে বাংলা একাডেমি কর্তৃপক্ষ বলছে, অনেক পুরনো প্রকাশনীর চেয়ে তরুণ প্রকাশকরা বইয়ের মান বিচারে এগিয়ে আছে। লিটল ম্যাগ চত্বর থেকে এবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্টল মিলেছে ভিন্ন চোখে প্রকাশনীর। এ বছর ২৩টি নতুন বইয়ের পাশাপাশি ১১৭টি বই রয়েছে এই প্রকাশনায়।

এ বছর ৪০টি নতুন বইয়ের পাশাপাশি দুই শতাধিক বই মিলবে বাসিয়া প্রকাশনীতে।

সিলেটের এই প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানটির স্বত্বাধিকারী নওয়াব আলী জানান, গল্প-কবিতার পাশাপাশি এই প্রথম মেলায় সুযোগ পেয়ে তারা প্রাধান্য দিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক গল্প ও সিলেটের মরমি গানকে। ২০০৫ সালে প্রকাশনা ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত হলেও অমর একুশে গ্রন্থমেলায় এতদিন তাদের সুযোগ মেলেনি।

ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলার জলতরঙ্গ প্রকাশনা গত তিন বছর ধরে ছিল বাংলা একাডেমির বহেরাতলার লিটল ম্যাগ চত্বরে। এর স্বত্বাধিকারী তরুণ প্রকাশক সোলায়মান শিপন নিজের টিউশনির সব টাকা জমিয়ে এবার গ্রন্থমেলার স্টল বরাদ্দের অর্থ পরিশোধ করেছেন। এখন এই প্রকাশনাই তার মূল পেশা। গল্প, উপন্যাস ও কবিতা মিলিয়ে ৩৫টি নতুন বই তিনি এবার প্রকাশ করেছেন।

লিটল ম্যাগ চত্বর থেকে এবার প্রথমবারের মতো সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঠাঁই পেয়েছে প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান। ছয় লেখক বন্ধু তোলা প্রতিষ্ঠানটি এবারের বইমেলায় ২৫টি নতুন বই প্রকাশ করতে যাচ্ছে, যার মধ্যে রয়েছে কবিতা, গল্প ও উপন্যাস। ইতোমধ্যে এই প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান থেকে বের হয়েছে ১৫টি বই। তরুণ প্রকাশকদের বিষয়ে ইতিবাচক ধারণাই পোষণ করছে মেলার দুই আয়োজক বাংলা একাডেমি এবং জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতি।

"