মাছের রোগের পূর্বাভাস দেবে ডিজিটাল লগার

প্রকাশ : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

বাকৃবি প্রতিনিধি

মাছের সুস্থতা ও স্বাভাবিক চলাচলের অবস্থা বজায় রাখার জন্য পুকুরের তাপমাত্রা, পিএইচ (অমøীয়/ ক্ষারীয় অবস্থা) এবং অক্সিজেনের নির্দিষ্ট মাত্রা অপরিবর্তিত রাখা খুবই গুরত্বপূর্ণ। এসব নির্ণায়কের কোনো একটির স্বাভাবিক অবস্থার পরিবর্তন হলে মাছ সহজেই বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হতে পারে। পুকুরের এসব নিয়ামক ডিজিটাল লগারের মাধ্যমে খুব সহজেই নির্ণয় করা যায়। ডিজিটাল লগারের মাধ্যমে মাছের রোগের পূর্বাভাস জানা ও রোগ প্রশমন করা সম্ভব হবে।

‘মাছের রোগের পূর্বাভাস নির্ণয় ও এর প্রশমনের উপায়’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য প্রদানকালে এসব কথা বলেন গবেষণা প্রকল্পের বাংলাদেশ অংশের প্রধান গবেষক অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মাহফুজুল হক। তিনি আরো বলেন, ডিজিটাল লগার ব্যবহার করে মাছের সার্বিক পরিবেশ ও রোগ নির্ণয়ের বিষয়টা বাংলাদেশে প্রথম যা ভবিষ্যতে একোয়াকালচার সেক্টরকে আরো বেগবান করবে। এ ছাড়াও প্রকল্পের সংক্ষিপ্ত বিবরণ উপস্থাপন করেন এক্সেটার বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. চার্লস টেইলার। তিনি তার উপস্থাপনায় বাংলাদেশ থেকে সংগ্রহ করা মাছ, পুকুরের পানি ও কাদার বিভিন্ন নমুনার পরীক্ষাকৃত তথ্য ও হিস্টোলজিক্যাল ফলাফল অত্যন্ত সুন্দরভাবে তুলে ধরেন।

মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. গিয়াস উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আলী আকবর। কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. জসিমউদ্দিন খান, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় রিসার্চ সিস্টেমের (বাউরেস) পরিচালক অধ্যাপক ড. এম এ এম ইয়াহিয়া খন্দকার, ওয়ার্ল্ড ফিশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ড. ম্যালকম ডিক্সন এবং ভারতের তামিলনাড়– ড. জে জয়ললিতা ফিশারিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. কল্যানুর রিজি জন।

 

"