শিক্ষকের অশ্লীল ছবি তুলে চাঁদা দাবি দুই পুলিশ ক্লোজড

প্রকাশ : ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

জামালপুর প্রতিনিধি

জামালপুরে এক স্কুলশিক্ষককে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে যৌনকর্মীর সঙ্গে জোরপূর্বক অশ্লীল ছবি তুলে ২০ লাখ টাকা দাবির ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার পুলিশের দুই কনস্টেবলকে ক্লোজ করা হয়েছে। তারা হলেন পুলিশ কনস্টেবল মো. নকিব ও মো. আনোয়ার হোসেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, মেলান্দহ চরপলিশা জাহানারা লতিফ উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নাজির হোসেন শহরের সর্দারপাড়া থেকে পশ্চিম নয়াপাড়া নিজ বাড়িতে যাচ্ছিলেন। পথরোধ করে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে শিক্ষক নাজির হোসেনকে আটক করে হ্যান্ডকাফ পরিয়ে কনস্টেবল নকিবের সর্দারপাড়ার ভাড়া বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক এক নারী যৌনকর্মীর সঙ্গে বিবস্ত্র অবস্থায় মোবাইল ফোনে নগ্ন ছবি তুলে। এরপর তারা ছবি দেখিয়ে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। দাবিকৃত টাকা না দিলে ক্ষতি হবে বলে হুমকি দেয় ওই দুই পুলিশ সদস্য।

এক পর্যায়ে কৌশলে শিক্ষক নাজির হোসেন ২ লাখ টাকা দিতে রাজি হন এবং ওই বাড়ি থেকে বের হয়ে ফোনে আত্মীয়স্বজনদের জানান। অপহরণকারী দুই পুলিশের কথামতো শিক্ষক নাজির হোসেন টাকা নিয়ে পাঁচ রাস্তা মোড়ে যান। সেখানে লোক সমাগম দেখে টের পেয়ে দুই পুলিশ পেছন থেকে সটকে পড়েন। পরে ডিবি পুলিশের ওসি মো. সালেমুজ্জামান ও সদর থানার ওসি মো. নাছিমুল ইসলামকে বিষয়টি অবহিত করলে কনস্টেবল নকিব ও আনোয়ার হোসেনকে শনাক্ত করে তাদের ক্লোজ করা হয়।

"