নজরদারিতে প্রাইম হাসপাতাল

উত্তরাঞ্চলের প্রধান সমন্বয়কসহ রংপুরে ৪ জঙ্গি গ্রেফতার

প্রকাশ : ০৯ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

রংপুর ব্যুরো

রংপুর র‌্যাব-১৩ এর অভিযানে জেএমবির উত্তরাঞ্চলের প্রধান সমন্বয়কসহ চার জঙ্গিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত বছরেও ২৯ জঙ্গিকে গ্রেফতার করা হয়। আর চলতি বছরের চারজনসহ এই অঞ্চলে এ নিয়ে ৩৩ জঙ্গিকে গ্রেফতার করা হলো। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে রংপুর র‌্যাব-১৩ এর পানি উন্নয়ন বোর্ড কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১৩ অধিনায়ক মোজাম্মেল হক বলেন, গত সোমবার রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলায় অভিযান চালিয়ে জেএমবির উত্তরাঞ্চলের প্রধান সমন্বয়ক মো. আবদুর রহমান বিশ্বাস ওরফে ফুয়াদ ওরফে নিয়াজকে (২২) গ্রেফতার করা হয়। এ সময় আরো গ্রেফতার করা হয় শীর্ষ জঙ্গি মো. আখিনুর ইসলাম (২৩), মো. লোকমান আলী ওরফে কোরবান (৫৫) ও মো. মিজানুর রহমানকে (৩৮)। গ্রেফতারকৃত ফুয়াদ কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার ভাটিয়ারচরের মাওলানা আবুল কাশেমের ছেলে। সে একই জেলার রাজিবপুর উপজেলার চর সাজাই মন্ডল পাড়ায় বসবাস করে আসছে। এছাড়াও আখিনুর দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার ডোবাবাঘা গ্রামের মো. আকবর আলীর ছেলে। অপরদিকে, কোরবান রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলার ডাঙ্গাপাড়া চৌধুরীপাড়ার মৃত ঈমান আলীর ছেলে। অন্যদিকে মিজানুর রহমান একই গ্রামের মৃত মতিয়ার মন্ডলের ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় গ্রেফতারকৃত জঙ্গিরা রংপুর মহানগরীর পীরজাবাদ এলাকার প্রাইম-সনিক গ্রুপে অবস্থান করে জঙ্গি কার্যক্রম চালিয়ে আসছিল। এছাড়াও নাম্বারবিহীন মোটরসাইকেল ছিনতাই করে প্রাইম হাসপাতালের গ্যারেজে লুকিয়ে রাখত। আর ওই গ্যারেজের নিয়ন্ত্রণে ছিল প্রাইম-সনিক গ্রুপে কর্মরত লোকমান আলী ওরফে কোরবান। এজন্য র‌্যাবের নজরদারিতে রয়েছে প্রাইম-সনিক গ্রুপ।

জঙ্গিদের গ্রেফতারের সময় একটি বিদেশি পিস্তল, একটি বিদেশি রিভলবার, দুইটি ম্যাগাজিন, তিন রাউন্ড তাজা গুলি ও বিপুল পরিমাণ উগ্রবাদী বই, লিফলেট এবং নগদ অর্থসহ একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়।

প্রসঙ্গত, জেএমবির উত্তরাঞ্চলের প্রধান সমন্বয়ক মো. আবদুর রহমান বিশ্বাস ওরফে ফুয়াদ ওরফে নিয়াজের (২২) বাবা মাওলানা আবুল কাশেম ২০১৭ সালে রাজধানীতে গ্রেফতার হয়। তিনিও জঙ্গির শীর্ষ নেতৃত্বে ছিল। তাদের বাড়িতে নিয়মিত যাতায়ত ছিল শায়খ আবদুর রহমান ও সিদ্দিকুর রহমান ওরফে বাংলা ভাইয়ের।

"