গৌরীপুরে ইউপি সদস্যের হাত-পা ভাঙল প্রতিপক্ষ

প্রকাশ : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

ময়মনসিংহের গৌরীপুর বোকাইনগর ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য মো. মোস্তাকিম মিয়াকে রড দিয়ে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে তার প্রতিপক্ষ ইউপি সদস্য স্বপন মিয়ার বিরুদ্ধে। গত বৃহস্পতিবার ইউনিয়নের স্বল্পপশ্চিমপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। মোস্তাকিম ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। খবর পেয়ে পুলিশ ওই দিন রাতেই স্বপনের বাবা শাহেদ আলীকে আটক করেছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বোকাইনগর ইউনিয়ন পরিষদের ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য স্বপন মিয়ার বাবা শাহেদ আলীর সঙ্গে ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোস্তাকিম মিয়ার দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। তিন-চার মাস আগে স্বল্পপশ্চিমপাড়া গ্রামের নূরে মদিনা মাদ্রাসা কমিটি গঠন নিয়ে দ্বন্দ্ব হলে শাহেদ আলীর পরিবারের সঙ্গে ও মোস্তাকিমের বিরোধ আরো উত্তপ্ত হয়। গত বৃহস্পতিবার সকালে মোস্তাকিম স্বল্পপশ্চিমপাড়া গ্রামের নতু মিয়ার দোকানে বসে চা খাচ্ছিলেন। খবর পেয়ে শাহেদ আলীর ছেলে স্বপনের নেতৃত্বে একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী মোস্তাকিমের ওপর হামলা চালায়। এ সময় তারা রড দিয়ে পিটিয়ে মোস্তাকিমের দুই পা ও ডান ভেঙে ফেলে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে ফেলে রেখে যায়। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় মোস্তাকিমকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে রাতেই মোস্তাকিমকে ঢাকা পঙ্গু হাসাপাতালে নেওয়া হয়। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ইউপি সদস্য মোস্তাকিম মিয়ার স্ত্রী আসমা আক্তার বলেন, শাহেদ আলীর হুকুমেই তার ছেলে স্বপন দলবল নিয়ে হামলা করে আমার স্বামীর দুই পা ও ডান ভেঙে দিয়েছে। সে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তিনি আরো বলেন, এর আগেও শাহেদ বাহিনীর লোকজন আমাদের পক্ষের ২৫টি ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। আমরা এসব ঘটনা বিচার চাই।

অভিযোগের বিষয়ে বক্তব্য জানতে ইউপি সদস্য স্বপন মিয়ার মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করলে সেটি বন্ধ পাওয়া যায়। গৌরীপুর থানার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ইউপি সদস্য মোস্তাকিমের ওপর হামলা ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। জড়িত সন্দেহে শাহেদ আলী নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনা তদন্ত করে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

"