জয়ের পিএস পরিচয়দানকারী প্রতারক আটক

প্রকাশ : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

গাজীপুর প্রতিনিধি

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের পিএস পরিচয়দানকারী সাব্বির মন্ডল (২৭) নামে এক প্রতারককে আটক করেছে র‌্যাব-১ এর স্পেশালাইজড কোম্পানি গাজীপুরের পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের সদস্যরা। গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে বোর্ডবাজার এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক সাব্বির মন্ডল গাইবান্ধার সাঘাটা থানার উত্তর গুটিয়া সরদারপাড়া এলাকার মৃত আয়ুইব আলীর ছেলে। সে গাজীপুর সিটি করপোরেশন হারিকেন রোড এলাকায় ভাড়ায় বসবাস করত।

র‌্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১ এর পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের একটি আভিযানিক দল সজীব ওয়াজেদ জয়ের পিএস পরিচয়দানকারী প্রতারক সাব্বির মন্ডলকে বোর্ডবাজার এলাকা থেকে আটক করে।

র‌্যাব এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, আটককৃত আসামি জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে সে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন উপায়ে এই ধরনের প্রতারণা করে আসছে। সে বিভিন্ন সময় প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব, কখনো কখনো প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের পিএস সামসুল/মাসুদ/মনির নামে পরিচয় দিয়ে বগুড়া-৫ আসনের এমপি মো. হাবিবুর রহমান, গাইবান্ধা-৩ আসনের এমপি ডা. ইউনুস সরকার, রবিশাল-৫ আসনের এমপি জেবুন্নেসা আফরোজ, খুলনা-৩ আসনের এমপি মনুজান সুফিয়ান, কক্সবাজার-৪ আসনের এমপি আবদুর রহমান, সিলেট-৩ আসনের এমপি মাহমুদুর সামাদ, গাজীপুর-৫ আসনের এমপি মেহের আফরোজ চুমকি, গাজীপুর-৩ আসনের এমপি অ্যাডভোকেট মো. রহমত উল্লাহ, লালমনিরহাট-১ আসনের এমপি মো. মোতাহার হোসেন, নারায়ণগঞ্জের এমপি শামীম ওসমান এবং গোলাম দস্তগীর গাজী, ঢাকার এমপি অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনসহ ৩০ থেকে ৪০ জন এমপির কাছে মোবাইল ফোনে আবার কখনো কখনো এসএমএসের মাধ্যমে একাদশ জাতীয় নির্বাচন-২০১৮ এ মনোনয়ন দেওয়ার কথা বলে প্রত্যেকের কাছে লাখ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। এছাড়াও বিভিন্ন মন্ত্রী, এমপি, সচিব, ব্যবসায়ীদের ফোন দিয়ে চাঁদা, ঘুষ চাকরির তদবির করে আসছিল। উপরোক্ত এমপিদের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে প্রতারক সাব্বির মন্ডলকে আটক করা হয়।

র‌্যাব আরো জানায়, আটক সাব্বির স্বীকার করেছে, সে দীর্ঘদিন ধরে প্রধানমন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের পিএস পরিচয় দিয়ে সচিবালয়সহ বিভিন্ন সরকারি সংস্থায় চাকরি দেওয়ার নামে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণের অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে।

"