নাগরিক সংলাপে বক্তারা

সুবিধাভোগীরা কখনো দেশের ভালো চায় না

প্রকাশ : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক
ama ami

নিরপেক্ষতার মুখোশ পরা প্রতিক্রিয়াশীল ও সুবিধাভোগীরা কখনোই দেশের ভালো চায় না বলে মন্তব্য করেছেন বক্তারা। গতকাল বুধবার জাগো ফাউন্ডেশনের আয়োজিত ‘প্রতিক্রিয়াশীলতার রাজনীতি ও আসন্ন নির্বাচন’ শীর্ষক নাগরিক সংলাপে এ কথা বলেন তারা।

সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব পীযূষ বন্দ্যোপাধায় বলেন, নির্বাচনকে সামনে রেখে কোনো সংঘর্ষ বাধানো যাবে না। আমরা ঐক্যবদ্ধ

থেকে এসব রুখে দিতে পারব। গত ১০ বছরে শেখ হাসিনা আমাদের যেই মর্যাদায় নিয়ে গেছেন, তা আমরা অতন্দ্র প্রহরীর মতো আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে রক্ষা করব।

এবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক সুভাষ সিংহ রায় বলেন, প্রতিক্রিয়াশীলরা সব সময় ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিল। ঐক্যফ্রন্টের নেতারা যার জীবন্ত উদাহরণ। এরা কখনোই দেশের মঙ্গল চায়নি। এদের প্রতিহত করতে তরুণসমাজকে নড়েচড়ে বসতে হবে।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহা আলম মুরাদ বলেন, ‘আমি আশা করি চৌদ্দ দলের ও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা বিপুল ভোটে জয়ী হব।’

তিনি বলেন, প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠী সব সময় ষড়যন্ত্র করবে এবং আমরা বরাবরের মতোই তা প্রতিহত করে যাব। প্রতিক্রিয়াশীলতার মুখোশ পড়া ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের নির্বাচনের মাধ্যমে উপযুক্ত জবাব দেওয়া হবে।

মুরাদ আরো বলেন, বিএনপির কোনো সাংগঠনিক কাঠামো নেই। যার কারণে তারা আন্দোলনের ডেডলাইন দিয়েও মাঠে থাকে না। ফখরুল সাহেব ও রিজভী নয়াপল্টনে একাধিকবার আন্দোলনের হুশিয়ারি দিয়েও মাঠে থাকেনি। তারা ভুয়া বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

 

"