চলতি মাসের শেষের দিকে শৈত্যপ্রবাহ!

প্রকাশ : ০৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

আজ বাংলা বর্ষপঞ্জির ১৯ অগ্রহায়ণ। কাগজে-কলমে শীত শুরু হবে আরো ১১ দিন পর। কিন্তু এক প্রকৃতিতে বলতে গেলে পুরোদমেই শীতের আমেজ। গতকাল রোববার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময়ে ঢাকায় সর্বনিম্ন তামপাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৬ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

তবে চলতি মাসের শেষে স্বাভাবিকের চেয়ে কম তাপমাত্রা থাকতে পারে। একই সঙ্গে ওই সময়ে এক থেকে দুটি মৃদু বা মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাস দিতে আবহাওয়া অধিদফতরে গঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটি এ তথ্য জানিয়েছে। গতকাল রোববার আবহাওয়া অধিদফতরে কমিটির নিয়মিত বৈঠক হয়। অধিদফতরের পরিচালক ও বিশেষজ্ঞ কমিটির চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন আহমেদ এতে সভাপতিত্ব করেন।

দীর্ঘমেয়াদি প্রতিবেদন অনুযায়ী, ডিসেম্বর মাসে বাংলাদেশের স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হতে পারে জানিয়ে সামছুদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘এ মাসে বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে, যা নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে।’

তিনি আরো জানান, এ মাসের প্রথমার্ধে রাতের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি থাকতে পারে। কিন্তু মাসের শেষার্ধে রাতের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে কম থাকতে পারে। ডিসেম্বর মাসে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এক থেকে দুটি মৃদু (৮ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস) বা মাঝারি (৬ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস) শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।

এ মাসে শেষ রাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের উত্তরাঞ্চল ও নদ-নদী অববাহিকায় ঘন বা মাঝারি কুয়াশা এবং দেশের অন্যত্র মাঝারি বা হালকা ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে। চলতি মাসে দেশের প্রধান নদীগুলোর পানিপ্রবাহ স্বাভাবিক থাকবে বলেও দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

সদ্য শেষ হওয়া নভেম্বর মাসে সারা দেশে স্বাভাবিকের চেয়ে প্রায় ৯০ শতাংশ কম বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিশেষজ্ঞ কমিটি। ময়মনসিংহ বিভাগে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হয়েছে। কিন্তু অন্য বিভাগে স্বাভাবিকের চেয়ে কম বৃষ্টিপাত হয়েছ। নভেম্বর মাসে তিন-চার দিন স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হওয়ার কথা থাকলেও রংপুর ও খুলনা বিভাগে কোনো বৃষ্টিপাত হয়নি।

"