মায়ের সঙ্গে অভিমান করে দুই স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

প্রকাশ : ০৯ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

মায়ের সঙ্গে অভিমান করে বরিশালে এবং যশোরের চৌগাছায় দুই স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো রিপোর্টÑ

বরিশাল : বরিশালে মায়ের সঙ্গে অভিমান করে সোনিয়া আক্তার (১৩) নামের এক স্কুলছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় নিজ ঘর থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে স্বজনরা। পরে পুলিশ গিয়ে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠায়।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বাবা ও মায়ের বিচ্ছেদের পর সোনিয়া তার মা ফুলবানুর সঙ্গে থাকত। দিনমজুরের কাজ করে সংসার চালান ফুলবানু। সোনিয়া স্থানীয় নওগাঁ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী। সোনিয়ার মা ফুলবানু জানান, সকালে বিদ্যালয়ের বেতন দেওয়ার জন্য তার কাছে টাকা চায় সোনিয়া। কিন্তু টাকা না দিতে পাড়ায় তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। এ সময় তিনি মেয়েকে ঘরে রেখে অন্যত্র চলে যান। ঘণ্টাখানেক পর ফিরে এসে দেখেন ঘরের আড়ার সঙ্গে সোনিয়া ঝুলে আছে। কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. আসাদ জানান, এ ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে।

যশোর : যশোরের চৌগাছায় পড়ার জন্য মায়ের বকুনিতে অভিমানে শারমিন খাতুন (১৪) নামে এক জুনিয়র দাখিল পরীক্ষা (জেডিসি) পরীক্ষার্থী গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। গত বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। শারমিন চৌগাছা উপজেলার গুয়াতলী গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে ও গুয়াতলী মাকানুচ্ছুন্নাহ দাখিল মাদ্রাসার ছাত্রী। চলতি বছরের জেডিসি পরীক্ষার্থী হিসেবে চৌগাছা কামিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছিল।

গুয়াতলী মাদ্রাসার সুপার মাওলানা বাকী বিল্লাহ বলেন, বুধবার সন্ধ্যায় বাড়িতে টিভি দেখছিল শারমিন। এ সময় তার মা জামেনা খাতুনসহ পরিবারের লোকজন বকাঝকা করে। এতে অভিমান করে ঘরের ফ্যানে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। সে মেধাবী ছাত্রী ছিল।

চৌগাছা থানার ওসি রিফাত খান রাজিব জানান, পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই তাকে দাফন করার অনুমতি দেয়া হয়েছে।

"