পুরান ঢাকার ‘ইয়াবা সম্রাট’ গ্রেফতার

প্রকাশ : ১২ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা কারবার করে আসছিলেন মো. শাহেদ (৩৫)। একাধিক অভিযানে তার সহযোগীরা ধরা পড়লেও তিনি ছিলেন ধরাছোঁয়ার বাইরে। কক্সবাজার থেকে ইয়াবার চালান আনতেন পুরান ঢাকার বংশাল এলাকার এই বাসিন্দা। তবে খুচরা পর্যায়ে ইয়াবা বিক্রির সময় মাঠে থাকতেন না তিনি। কক্সবাজারেও যেতেন না। কক্সবাজার থেকে বাসচালক ও তার হেলপারের মাধ্যমে ইয়াবার চালান ঢাকায় আনতেন। ঢাকায় আনার পর নিজস্ব লোক দিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করাতেন এই ইয়াবা সম্রাট। গত বুধবার রাজধানীর শনির আখড়ার ২৪ ফুট এলাকা থেকে শাহেদকে গ্রেফতার করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) ঢাকা মেট্রোর একটি দল। পিবিআই জানায়, গত ১ মে রয়েল পরিবহনের বাস চালক মনির হোসেন (৩৮) ও তার সহকারী নবীন হোসেনকে (২৪) দিয়ে প্রায় ৩০ হাজার ইয়াবা ঢাকায় এনেছিলেন শাহেদ। ইয়াবার চালানটি হস্তান্তরের সময় মনির ও নবীন পুলিশের হাতে ধরা পড়েন। তখন চতুর শাহেদ ফসকে যান। ওই ঘটনার পর প্রায় পাঁচ মাস ধরে আত্মগোপনে ছিলেন তিনি। অবশেষে গত বুধবার পিবিআইয়ের হাতে ইয়াবা কারবারের নেপথ্যের এই নায়ক ধরা পড়েন।

পিটিআইয়ের বিশেষ পুলিশ সুপার (ঢাকা মেট্রো) আবুল কালাম আজাদ জানান, রয়েল পরিবহনের মনির ও নবীনকে দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ঢাকায় ইয়াবা আনতেন শাহেদ। টেকনাফের আবদুল্লাহর কাছ থেকে এই ইয়াবার চালান সংগ্রহ করতেন। পরে ঢাকায় তার নিয়ন্ত্রণে থাকা মাদক কারবারিদের দিয়ে বিক্রি করাতেন। ১ মে রাত ৩টায় যাত্রাবাড়ীর স্পিডবার্ড ফিলিং স্টেশনের সামনে ২৯ হাজার ৫০০ ইয়াবা হস্তান্তরের সময় গ্রেফতার করা হয় মনির ও নবীন। ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় শাহেদ। এ ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পেয়ে কাজ শুরু করে পিবিআই।

 

"