সড়ক দুর্ঘটনায় ২ দিনে নিহত ৯

প্রকাশ : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

দেশের বিভিন্ন জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় গত ২ দিনে ৯ জন নিহত হয়েছেন। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন ৪১ জন। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরÑ

গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জে ট্রাকচাপায় সিরাজুল ইসলাম (৫৫) নামে এক কলেজশিক্ষক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় তার স্ত্রী ইসমত আরা জেরিন গুরুতর আহত হন। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোপালপুর বাসস্ট্যান্ডে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত কলেজশিক্ষক গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া উপজেলার ননী গোপালপুর গ্রামের মৃত আহম্মদ মুন্সীর ছেলে এবং ঢাকা আগারগাঁও তালতলা মহিলা স্কুল অ্যান্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক।

স্থানীয়রা জানান, কলেজশিক্ষক সিরাজুল ইসলাম স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে মাইক্রোবাসযোগে গ্রামের বাড়ি টুঙ্গিপাড়া থেকে ঢাকার উদ্দেশে যাচ্ছিলেন। গোপালপুর বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছলে মহাসড়কের একপাশে মাইক্রোবাস রেখে খাবারের জন্য রাস্তা পারাপারের সময় একটি ট্রাক তাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

বাগেরহাট : খুলনা-মাওয়া মহাসড়কের বাগেরহাটের মোল্লাহাট উপজেলার কেন্দুয়া ব্রিজের কাছে গ্রিন লাইন ও দিদার পরিবহনের মুখোমুখি সংঘর্ষে একজন নিহত ও ১৫ জন আহত হয়েছে। গতকাল শনিবার খুলনা থেকে আসা গ্রিন লাইন ও চিটাগাং থেকে আসা দিদার পরিবহনের মুখোমুখি সংঘর্ষ এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে ফকিরহাট হাসপাতাল ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। আহদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে। নিহত শাহাদাৎ হোসেন (২৫) খুলনা জেলার রূপসা উপজেলার শ্রিফলতলা গ্রামের কামাল হোসেনের ছেলে। সে গ্রিনলাইন পরিবহনের চালকের সহকারী ছিল।

বাগেরহাটের কাটাখালী হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জামাল শেখ জানান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

নাটোর : সড়ক দুর্ঘটনায় নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আনোয়ার পারভেজ, তার গাড়িচালক ও দুই নিরাপত্তা প্রহরীসহ পাঁচজন গুরুতর আহত হয়েছেন। গত শুক্রবার হয়বতপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। একটি ভ্যানকে ওভারটেক করার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাড়িটি উল্টে গিয়ে পাশের খাদে পড়ে যায়। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। আহত অন্যরা হলেন ইউএনও’র গাড়িচালক নাসিরউদ্দিন, তার কার্যালয়ের নিরাপত্তা প্রহরী জাহাঙ্গীর হোসেন ও মালেক সেখ এবং ভ্যানচালক ওলিলুর রহমান। ঝলমলিয়া হাইওয়ে থানার ইনচার্জ উপপরিদর্শক মোজাম্মেল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রামের আনোয়ারায় বাস-ট্রাক সংঘর্ষে এক যুবক নিহত হয়েছেন। একই ঘটনায় কয়েকজন আহত হয়েছেন। গতকাল শনিবার বিকালে আনোয়ারা-বাঁশখালী সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আনোয়ারা থানার ওসি দুলাল মাহমুদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

সাভার ও আশুলিয়া : সাভারে রাস্তা পারাপারের সময় দ্রুতগামী বাসচাপায় শাহীন হোসেন নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় হানিফ পরিবহনের একটি বাস আটক করা হয়েছে। গতকাল শনিবার ঢাকা-আরিচা মাহসড়কের সাভারের উলাইলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শাহীন হোসেন দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর থানার সাকুয়া পাড়া গ্রামের আবদুর রাউফের ছেলে। সাভার মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবুল কাশেম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

সীতাকু- : সীতাকু-ের কদমরসুল এলাকায় রাস্তা পারাপারের সড়ক দুর্ঘটনায় প্রিয়া (৪) নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। গত শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) শীলব্রত বড়ুয়া নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

পুঠিয়া : পুঠিয়ায় থেমে থাকা বালুবাহী ট্রাকের সঙ্গে ঢাকাগামী শ্যামলী পরিবহন যাত্রীবাহী বাসের সংঘর্ষে তিনজন নিহত ও ২০ জন আহত হয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কের তারাপুর কালুশার পুকুর পাড় নামক স্থানে এক দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহতরা হলেন শ্যামলী পরিবহন বাসের সুপারভাইজার রিপু (২৫), ট্রাকের চালক জাকির হোসেন (৩৫) ও ট্রাকের হেলপার রিজু আহম্মেদ (২৩)। বাসের সুপারভাজারের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর উপজেলায় এবং ট্রাকচালক জাকিরের বাড়ি রাজশাহীর জেলার চারঘাট উপজেলার মুক্তারপুর গ্রামে ও ট্রাক হেলপারের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর উপজেলার ফকিরপাড়া গ্রামে। আহতদের সবার বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নিয়ামতপুর ও গোপস্তাপুর উপজেলায়। পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাকিল উদ্দিন আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী শ্যামলী পরিবহন যাত্রীবাহী বাস পুঠিয়া উপজেলার তারাপুর পুকুর পাড় নামক স্থানে থেমে থাকা একটি বালুবাহী ট্রাককে পেছন থেকে ধাক্কা দিলে এ ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থালে রিপু, জাকির ও রিজু নামের তিনজন মারা যায়। খবর পেয়ে পুঠিয়া ফায়ার সার্ভিস, থানা পুলিশ ও স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে পুঠিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। গুরুতর আহত ৯ জনকে রামেক হাসপাতালে পাঠানো হয়।

বেড়া (পাবনা) : পাবনার নগরবাড়ী-বগুড়া মহাসড়কে সিএনজি-লেগুনা সংঘর্ষে তারিন (৫) নামের এক শিশু নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে নিহত তারিনের বাবা আনিস মোল্লা, মা রাহিমা খাতুন ও বড় বোন আফরিন।

"