এবার বাসায় মিলল ৩২৯ কেজি খাট গ্রেফতার ২

প্রকাশ : ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

এবার রাজধানীর উত্তরার একটি ফ্ল্যাটবাসা থেকে ৩২৯ কেজি ৩০০ গ্রাম ইথিওপিয়ার গাঁজা হিসেবে পরিচিত ‘নিউ সাইকোট্রপিক সাবসটেন্সেস (এনপিএস) বা ‘খাট’ জব্দ করেছে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ। এ ঘটনায় নাজমুল ইসলাম তালুকদার (৩৯) ও মাহবুবুর রহমান পলাশ (৫১) নামের দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিএমপির উপকমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান জানান, গোপন তথ্যে বুধবার রাতে উত্তরা ১৪ নম্বর সেক্টরের ১ নম্বর সড়কের একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ৩২৯ কেজি ৩০০ গ্রাম ‘এনপিএস’ বা ‘খাট’ মাদকসহ দুজনকে গ্রেফতার করা হয়। এই মাদকটি চা পাতার মতো দেখতে। নতুন এই মাদকের চালান বিদেশে পাচার করার উদ্দেশে মজুদ করেছিলেন দুই মাদক কারবারি। তারা আফ্রিকার দেশ ইথিওপিয়া থেকে এই মাদক আমদানি করে থাকেন। পরে তা বিভিন্ন দেশে চড়া দামে পাচার করেন। বাংলাদেশকে তারা রুট হিসেবে ব্যবহার করছিলেন। তবে এই মাদকটি দেশের ভেতরেই কেনাবেচা হয় বলে তথ্য আছে।

উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ জানিয়েছে, উত্তরা একটি গোডাউনে গার্মেন্টস কাপড় ও বিভিন্ন আইটেমের মধ্যে মাদকের চালানটি মজুদ করে রাখা ছিল। একই সঙ্গে কাগজের কার্টনের ভেতরে প্যাকেট করা অবস্থায় ‘এনপিএস’ মাদকের চালানটি লুকিয়ে রাখা হয়েছিল। গ্রেফতার হওয়া দুজন জানিয়েছেন, তারা গার্মেন্টস আইটেমের ব্যবসা করেন। ওই গোডাউনে মালামাল মজুদ করে রাখতেন। তবে জব্দ হওয়া ‘এনপিএস’ মাদক সম্পর্কে তারা কিছুই জানেন না। এসব মাদকদ্রব্য অন্য একজন মজুদ করেছিলেন।

এই প্রথম কোনো থানা পুলিশ ‘এনপিএস’ তথা ‘খাট’ মাদকের চালান জব্দ করল। এর আগে ৩১ আগস্ট শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পোস্টাল গোডাউন থেকে ২৩টি কার্টনে মোড়ানো ৪৬১ কেজি এবং একই দিন শান্তিনগরের একটি অফিস থেকে ৪০০ কেজি ‘এনপিএস’ বা ‘খাট’ মাদকের চালান জব্দ করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর (ডিএনসি)। এটিই ছিল নতুন এই মাদকের প্রথম চালান জব্দের ঘটনা। ওই ঘটনায় দুবাই ফেরত মোহাম্মদ নাজিমকেও গ্রেফতার করা হয়। তিনি এখন কারাগারে। এরপর থেকে প্রায় প্রতিদিনই ‘এনপিএস’ বা ‘খাট’ মাদকের চালান জব্দ হচ্ছে।

সর্বশেষ গত ১৮ সেপ্টেম্বর জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) সহায়তায় বিমানবন্দরের ফরেন পোস্ট অফিস থেকে ১০৭ দশমিক ৭ কেজি ওজনের মাদকের চালান জব্দ করে ডিএনসি। এরপর ১৪ সেপ্টেম্বর সকালে ছয়টি কার্টনে থাকা ১২০ কেজি এনপিএস মাদক জব্দ করে ডিএনসি। এরপর ১৫ সেপ্টেম্বর বিমানবন্দরে ফরেন পোস্ট অফিস থেকে ১৯ কেজির আরো একটি চালান জব্দ করে ডিএনসি।

এদিকে, গত ১১ সেপ্টেম্বর বিমানবন্দরে ১৬০০ কেজি ওজনের ‘এনপিএস’ বা ‘খাট’ জব্দ করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। এটি এখন পর্যন্ত নতুন মাদক ‘খাট’ জব্দের সবচেয়ে বড় চোরাচালান। এর আগের দিন ১০ সেপ্টেম্বর বিমানবন্দরের কার্গো ইউনিটের ফরেন পোস্ট অফিস থেকে প্রায় ১৩৫ কেজি ‘খাট’ জব্দ করে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই)। গত ৮ সেপ্টেম্বর বিমানবন্দরে ঢাকা কাস্টম হাউস ও জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থার যৌথ অভিযানে জব্দ হয় ১৬০ কেজি ‘খাট’। দেশে নতুন এই মাদকটি আফ্রিকার দেশ ইথিওপিয়ার গাঁজা নামেও পরিচিত। এ নিয়ে আড়াই হাজার কেজিরও বেশি মাদক জব্দ হলো।

প্রসঙ্গত, ‘গ্রিন টি’র মতো দেখতে এই মাদকটি মূলত ইথিওপিয়ায় ‘খাট’ নামে পরিচিত। এটি বাংলাদেশে আসা নতুন ধরনের একটি মাদক। এই মাদকের রফতানিকারক আফ্রিকার দেশ ইথিওপিয়ার জিয়াদ মুহাম্মদ ইউসুফ নামের এক ব্যক্তি।

ডিএনসির কর্মকর্তারা জানান, ‘এনপিএস’ বা ‘খাট’ মাদকটি দেখতে অনেকটা চায়ের পাতার গুঁড়োর মতো। পানির সঙ্গে মিশিয়ে তরল করে এটি সেবন করা হয়। এর প্রতিক্রিয়া অনেকটা ইয়াবার মতো। এক ধরনের গাছ থেকে এই ‘খাট’ বা এনপিএস’ তৈরি হয়। এটি ‘খ’ ক্যাটাগরির মাদক। আফ্রিকার দেশ জিবুতি, কেনিয়া, উগান্ডা, ইথিওপিয়া, সোমালিয়া ও ইয়েমেনে এসব গাছ পাওয়া যায়। এই নেশাদ্রব্যটি আফ্রিকার দেশগুলোতে অনেক আগে থেকেই প্রচলিত। তবে ইদানীং বিভিন্ন দেশে হেরোইন বা ইয়াবার মতো মাদকের বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে এই ভেষজ নেশার পাতা। এই নেশাদ্রব্য যৌন উদ্দীপনা বাড়াতে বা দীর্ঘ সময় জেগে থাকতে সাহায্য করে বলে ধারণা করা হয়। তবে এটি সেবনে মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি হতে পারে।

"