রোহিঙ্গা সংকট উন্নয়ন

জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায়, প্যাট্রিসিয়া আসছেন আজ

প্রকাশ : ০৮ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

কূটনৈতিক প্রতিবেদক

দুই দিনের সরকারি সফরে ঢাকায় এসেছেন জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তারো কোনো। গতকাল মঙ্গলবার সকালে তিনি পৌঁছান। আর কমনওয়েলথ মহাসচিব প্যাট্রিসিয়া স্কটল্যান্ড পৌঁছাবেন আজ বুধবার।

ঢাকা আসার আগে জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মিয়ানমার সফর করেন। তার সফরে রোহিঙ্গা সঙ্কট নিরসন ও উন্নয়ন সহযোগিতা গুরুত্ব পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আর প্যাট্রিসিয়া স্কটল্যান্ড দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ায় কমনওয়েলথ সদস্য তিন দেশ সফরের অংশ হিসেবে তিনি শ্রীলঙ্কা ও ব্রুনাইয়ে যাবেন।

জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তারো কোনো সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠক করেন। ২০২৫ সালে ওয়ার্ল্ড এক্সপোর আয়োজন করতে চায় জাপান। এ ছাড়া ২০২৩-২৪ মেয়াদে জাতিসংঘ

নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হতে চায় দেশটি। এসব বিষয়ে বাংলাদেশের সহযোগিতা ও সমর্থন চেয়ে জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলোচনা করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এর আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী গত ১৩ থেকে ১৬ মে টোকিও সফর করেন। সে সময় তিনি তারো কোনোকে ঢাকা সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন।

গত বছরের ১৯ নভেম্বর তারো কোনো ঢাকায় এসেছিলেন। সে সময় জাপানের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, রোহিঙ্গা সংকটের পরিপ্রেক্ষিতে জাপান মানবিক সহায়তা দেবে। এরপর রোহিঙ্গাদের জন্য জাপান মানবিক সহায়তা হিসেবে ২৩ দশমিক ৬ মিলিয়ন ডলার দিয়েছে। এ ছাড়া রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশের পাশে রয়েছে বলেও জানিয়েছে দেশটি।

অন্যদিকে দুই দিনের সরকারি সফরে কমনওয়েলথ মহাসচিব প্যাট্রিসিয়া স্কটল্যান্ড বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেবেন। সফর সামনে রেখে কমনওয়েলথ মহাসচিব বলেন, ‘শ্রীলঙ্কা, ব্রুনাই ও বাংলাদেশ কমনওয়েলথ পরিবারের অত্যন্ত মূল্যবান সদস্য। এ অঞ্চলে সংগঠিত অনেক উৎসাহব্যঞ্জক ও ইতিবাচক উন্নয়নের সঙ্গে নিজেকে আরো ঘনিষ্ঠভাবে পরিচিত করানোর দিকে তাকিয়ে আছি আমি।’ গত এপ্রিলে কমনওয়েলথ সরকার প্রধানদের বৈঠকে নেতারা যে অগ্রাধিকার ও প্রতিশ্রুতির বিষয়ে একমত হয়েছিলেন সেসব নিয়ে তিন দেশের সরকার প্রধান, মন্ত্রী ও অন্যদের সঙ্গে আলোচনা করবেন কমনওয়েলথ মহাসচিব। ৫৩ জাতির কমনওয়েলথের প্রথম নারী মহাসচিব হিসেবে ২০১৬ সালের এপ্রিলে তিনি দায়িত্ব নেন প্যাট্রিসিয়া। দায়িত্ব নেওয়ার পর বাংলাদেশে এটিই হবে তার প্রথম সফর।

 

"