বন্ধু যখন শত্রু

প্রকাশ : ১৫ জুন ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

অবশেষে রাশিয়া বিশ্বকাপের পর্দা উঠল। খেলোয়াড়সহ ফুটবলপ্রেমীদের এই মহাযজ্ঞের জন্য অপেক্ষা করতে হয় চার বছর। তবে বিশ্বকাপ ছাড়া ফুটবলারদের গন্তব্য থাকে ক্লাব ফুটবলে। ক্লাব ফুটবলের বাইরেও জাতীয় দলের পোশাকে তাদের আরেকটা পরিচয় আছে। ক্লাবে এক জাতীয় দলের জার্সিতে আরেক। কখনো সতীর্থ তো কখনো প্রতিপক্ষ।

রাশিয়া বিশ্বকাপে এবার গ্রুপ ‘বি’ তে রয়েছে পর্তুগাল ও স্পেন। আজ রাত ১২টায় শোচিতে রোনালদোর পর্তুগাল মুখোমুখি হবে সার্জিও রামোসের স্পেন। তারকাসমৃদ্ধ স্পেনের বেশিরভাগ খেলোয়াড়রা রিয়াল মাদ্রিদের কান্ডারি। সঙ্গে স্পেনের প্রতিপক্ষ পর্তুগিজ সেনসেশন রোনালদোও রিয়ালের হয়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন। জাতীয় দলের বাইরে তারা একে অপরের বন্ধু ও সতীর্থ। রিয়ালের অনেক উদ্যাপনে এক কাতারে দাঁড়িয়েছিল রামোস, কারবাহাল ও রোনালদোরা। প্রয়োজনের সময় লড়েছেন কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে। প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে দিয়েছেন নানা কৌশলে।

২০০৯ সাল থেকে রিয়াল মাদ্রিদের অপরিহার্য নাম ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। রিয়ালের জার্সি গায়ে এখন পর্যন্ত ডজন খানেক শিরোপা জিতেছেন এই তারকা। তবে এবার প্রসঙ্গটা ভিন্ন। শত হলেও জাতীয় দল বলে কথা। এই তারকার জাতীয় দলের জার্জিতে একমাত্র ইউরো শিরোপা জয় ছাড়া তেমন কোনো সাফল্য নেই। তাই এবার জাতীয় দলের হয়ে কিছু করে দেখানো দৃঢ়প্রত্যয় নিয়েই মাঠে নামবেন সিআর সেভেন।

রোনালদো ক্লাব ফুটবলের সোনালি সময় কাটিয়েছেন রামোসদের সঙ্গে। তার সেই সতীর্থদের বিপক্ষেই আজ মাঠে নামবেন রোনালদো। এরই মধ্যে স্পেনকে হারাতে ছক কষছেন পর্তুগিজরা। কারণ রিয়ালে খেলার সুবাদে স্প্যানিশ ফুটবলের ধারাটা ভালোই জানেন এই সেরা ফরোয়ার্ড। অবশ্য স্পেনেরও পরিকল্পনায় থাকবেন রোনালদো। রামোসরাও তো রোনালদো সম্পর্কে কম জানেন না। সেটা মাথায় রেখেই ম্যাচ পরিকল্পনা করবে স্পেনের কোচ ফার্নান্দো হিয়েরো। রোনালদো-রামোস রিয়ালে ভালো বন্ধু। আজ তারাই শত্রু। একে অপরকে হারিয়ে দিতে আজ তারা বদ্ধপরিকর। কেউ কাউকে ছাড় দেবে না একবিন্দুও।

স্পেন ও পর্তুগাল এর আগে বিশ্বকাপে মোট পাঁচবার দেখায় এখন পর্যন্ত একবারও জয়ের দেখা পায়নি পর্তুগিজরা। তবে এবার এই পরিসংখ্যানে পরিবর্তন করতে চান রোনালদো। এই রিয়াল তারকা চাইবে তার শেষ বিশ্বকাপটি স্মরণীয় করে রাখতে। রোনালদো সাবেক সতীর্থ ম্যানচেস্টার কিংবদন্তি রিও ফ্রেডিনেড মনে করেন এবার পর্তুগালে বিশ্বকাপ জয়ের সুযোগ রয়েছে। ম্যানচেস্টা কোচ হোসে মরিনহোতো তার ভবিষ্যৎ বাণীতে পর্তুগালকে ফাইনালিস্ট হিসেবে তুলে রেখেছেন।

"