আ.লীগে স্বস্তি : বিদ্রোহী টেনশনে বিএনপি

প্রকাশ : ১৪ জুন ২০১৮, ০০:০০

সিলেট প্রতিনিধি

নির্বাচনে অনেকটা সুবিধাজনক অবস্থানে আছেন আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থী। অন্যদিকে বিদ্রোহী প্রার্থীর আশঙ্কা রয়েছে বিএনপিতে। আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য দুই মেয়র প্রার্থী দলীয় সমর্থন না পেলে বিদ্রোহী হবেন না বলে জানিয়েছেন। এতে অনেকটা স্বস্তিতে রয়েছে সিলেট আওয়ামী লীগ। অন্যদিকে বিএনপি নেতা ও বর্তমান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর বিরুদ্ধে মহানগর বিএনপির বড় একটি অংশ অবস্থান নেওয়ায় নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ার আশঙ্কা করছে দলটি। সেই দিক থেকে অস্বস্তিতে রয়েছে বিএনপির সম্ভব্য প্রার্থী। সারা দেশে এখন বিরাজ করছে ঈদ উৎসবের আমেজ। কিন্তু সিলেট নগরজুড়ে ঈদ উৎসবের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ভোটের উৎসব। সম্ভাব্য মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা শুরু করেছেন গণসংযোগ। এই সিটিতে আগামী ৩০ জুলাই ভোট গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।

বিশেষ করে আ.লীগ ও বিএনপি দুই দলের মেয়র প্রার্থীরা নিজ নিজ কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে প্রতিদিন বৈঠক করেছেন। কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে চষে বেড়াচ্ছেন নগরীর বিভিন্ন এলাকায়। সিলেট নগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন ও সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম নিজের প্রার্থিতা ঘোষণার পাশাপাশি কেন্দ্রে আরিফের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন। নগর বিএনপির প্রভাবশালী দুই নেতার বিদ্রোহের কারণে বিরূপ পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হচ্ছে আরিফকে। সিলেট সিটির বর্তমান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেছেন, নির্বাচন নিয়ে মানুষের মনে যে শঙ্কা রয়েছে তা দূর করার দায়িত্ব সরকারের। খুলনা সিটি নির্বাচনে যে কারচুপি হয়েছে এখানে তার পুনরাবৃত্তি দেখতে চায় না সিলেটের মানুষ। তিনি বলেন, ‘দলীয় মনোনয়ন পেলে নির্বাচন করব। আমি মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর সাধ্যমতো চেষ্টা করেছি নগরবাসীর সেবা করার। তারা যে দায়িত্ব দিয়েছে তা যথাযথভাবে পালন করার চেষ্টা করেছি। আমি মনে করি, তারা বিষয়টি বিবেচনা করবেন।’

মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী নাসিম হোসাইন বলেন, সিলেটে যদি ‘খুলনা মার্কা’ নির্বাচন সরকার করতে চায় তাহলে বিএনপি অংশ নেবে কি না, সে ব্যাপারে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। দল নির্বাচনে গেলে তিনি প্রার্থী হবেন বলে জানান। আর নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম বর্তমানে দেশের বাইরে অবস্থান করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে সিলেট নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র বদরউদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, আওয়ামী লীগের সব পর্যায়ের নেতাকর্মীরা যদি ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে তাহলে দলের প্রার্থী অবশ্যই জয়লাভ করবেন। দলের সম্ভাব্য আরেক প্রার্থী নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ বলেন, যথাসময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠান নিয়ে কোনো শঙ্কা নেই। দলের মনোনয়ন পেলে অবশ্যই নির্বাচন করব।

"