কাইয়ুম-হাসানের পদত্যাগ চান উত্তর বিএনপির ৩১ নেতা

প্রকাশ : ১২ জুন ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তর কমিটির সভাপতি কাইয়ুম ও সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ হাসানের পদত্যাগ চেয়েছেন কমিটির বিক্ষুব্ধ নেতারা। ওই কমিটির ৬৬ নেতার মধ্যে ৩১ জনই সদ্য ঘোষিত ২৫ থানা ও ৫৮ ওয়ার্ডের কমিটিকে প্রত্যাখ্যান করে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের প্রতি অনাস্থা জানিয়েছেন। পাশাপাশি তারা নগর, থানা ও ওয়ার্ড কমিটি পুনর্গঠনের দাবি জানিয়েছেন। কমিটি গঠনে বাণিজ্য, অনিয়ম, স্বেচ্ছাচারিতা ও দলীয় গঠনতন্ত্রবিরোধী নজিরবিহীন অনিয়মের অভিযোগ তুলে আলোচিত দুই নেতার পদত্যাগ না করা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন। এছাড়া দলের মহাসচিবের সঙ্গে পরামর্শক্রমে সংখ্যাগরিষ্ঠ মতামতের ভিত্তিতে পাল্টা কমিটি করার ঘোষণাও দেন তারা।

গতকাল সোমবার রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত এক সংক্ষিপ্ত বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে নগর বিএনপি উত্তরের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. শামীম পারভেজ এ দাবি জানান। শামীম পারভেজ বলেন, কাইয়ুম ও আহসান উল্লাহ হাসান টাকার বিনিময়ে কমিটি গঠন করেছেন। দলের ত্যাগী নেতাদের বাদ দিয়ে নিজেদের লোক ঢুকিয়ে পকেট কমিটি গঠন করেছেন। এছাড়া আওয়ামী লীগের নেতাদেরও এ কমিটিতে রাখা হয়েছে। সুতরাং তারা এই কমিটি বাতিলের দাবি জানান, অন্যথায় কঠোর কর্মসূচি দেওয়ার হুমকি দেন।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘নিজেদের পছন্দের লোক দিয়ে পকেট কমিটি করার জন্য প্রতিনিয়তই তারেক রহমান ও মহাসচিবের নাম ব্যবহার করেছেন। তাছাড়া বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে ভুল বোঝানো হয়েছে। মহাসচিব দেশের বাইয়ে আছেন। আগামীকাল দেশে ফেরবেন। তিনি দেশে ফেরার পর উনার সঙ্গে আমরা বসব, কথা বলব। আশা করছি, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আমাদের দাবি মানবেন।’

পরে এম এ কাইয়ুমের দুইটি ছবিতে আগুন দেওয়া হয়। অর্ধদগ্ধ ছবির ওপর বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা দাঁড়িয়ে লাফালাফি করতে থাকেন। এ সময় নগর বিএনপির উত্তরের সহসভাপতি আলহাজ মোয়াজ্জেম হোসেন, আবুল হাশেম, ফেরদৌসী আহমেদ মিষ্টি, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মঞ্জুর হোসেন, আতিকুর রহমান আতিক, মোস্তাফিজুর রহমান সেগুন, হেলোল উদ্দিন তালুকদার ও আলাউদ্দিন সরকারসহ তিন শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ৬ জুন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সদ্য ঘোষিত থানা এবং ওয়ার্ড কমিটিগুলো স্থগিত করে পুনরায় নতুন কমিটি ঘোষণার দাবিতে ৩ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন দলটির পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। গত ৩ জুন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির থানা এবং ওয়ার্ড পর্যায়ের বিভিন্ন কমিটি ঘোষণা করা হয়। নেতাকর্মীদের অভিযোগ, এম এ কাইয়ুম ও আহসান উল্লাহ হাসান অর্থের বিনিময়ে কমিটিতে পদ দিয়েছেন।

 

"