ধুনটে পুলিশকে মারধর করে ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে

প্রকাশ : ১১ জুন ২০১৮, ০০:০০

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় পুলিশকে মারধর করে মাদক কারবারি ভাইকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা হাসান মাহামুদ রাব্বীকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল রোববার তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। রাব্বী ধুনট সদর পাড়ার আবদুল বারিকের ছেলে ও ছাত্রলীগ পৌরসভা কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

ধুনট থানার এএসআই শাহানুর রহমান জানান, ধুনট সদরপাড়ার আবদুল বারিকের ছেলে যুবদল কর্মী রাজিব উদ্দিন কয়েকটি মামলার আসামি। এর মধ্যে তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের একটি মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল। অভিযান চালিয়ে গত শনিবার রাত ৮টায় রাজিবকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় গ্রেফতার রাজীবের ছোট ভাই ছাত্রলীগ নেতা রাব্বীর নেতৃত্বে পরিবারের সদস্যরা পুলিশের ওপর হামলা করে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তি ও মারধরের এক পর্যায়ে তারা রাজীবকে ছিনিয়ে নেয়। তখন এএসআই শাহানুর রহমান ও এএসআই শাহজাহান আলী আহত হন। এদিকে খবর পেয়ে থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে উদ্ধার করে। এছাড়া রাজিবের ছোট ভাই ছাত্রলীগ নেতা হাসান মাহামুদ রাব্বীকে আটক করে। এ ঘটনায় এ এস আই শাহানুর রহমান বাদী হয়ে ধুনট থানায় রাব্বীসহ পরিবারের ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। গতকাল রোববার ওই মামলায় রাব্বীকে আদালতে হাজির করা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন।

ধুনট থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ফারুকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন, গ্রেফতারি পরোয়ানার আসামি ধরতে গেলে পরিবারের সদস্যরা দুই পুলিশ কর্মকর্তার ওপর হামলা করে আসামি ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা হাসান মাহামুদ রাব্বীকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

"