ট্রাম্প-কিম সিঙ্গাপুরে

বহুল প্রতীক্ষিত বৈঠক কাল

প্রকাশ : ১১ জুন ২০১৮, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বহুল প্রতীক্ষিত উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে বৈঠক করতে সিঙ্গাপুরে পৌঁছেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্থানীয় সময় গতকাল রোববার সন্ধ্যায় ট্রাম্পকে বহনকারী উড়োজাহাজটি সিঙ্গাপুরের পায়া লেবার বিমান ঘাঁটিতে অবতরণ করে। এর কয়েক ঘণ্টা আগেই সিঙ্গাপুর পৌঁছান কিম। কিম চায়না এয়ারলাইনসের একটি বিমান করে সিঙ্গাপুরের চাঙ্গি বিমানবন্দরে আসেন। তার পরনে ট্রেডমার্ক মাও স্যুট ছিল। এটা রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে কিমের সবচেয়ে দীর্ঘ যাত্রা। এদিকে ট্রাম্প-কিমের সফর ঘিরে সিঙ্গাপুরে নেওয়া হয়েছে স্মরণকালে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। বৈঠকস্থল সেন্তোসা দ্বীপের ক্যাপেল্লা হোটেলে আশপাশের অনেক বড় এলাকাকে বিশেষ এলাকা ঘোষণা করেছে দেশটি। বৈঠকের সময় সিঙ্গাপুরের আকাশসীমায় বিমান চলাচলও নিয়ন্ত্রণ করা হবে। এ ছাড়া কয়েক স্তরের কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা বলবৎ থাকবে। ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্ট এলাকায় সাধারণের চলাচলসহ যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ শুরু হয়েছে।

বিশ্বের আলোচিত এই দুই নেতার নিরাপত্তায় ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বাহিনী ছাড়াও বিশেষ দায়িত্ব পালন করবে সিঙ্গাপুর পুলিশের সর্বাধুনিক গোর্খা বাহিনী। পরনে বর্ম, হাতে বেলজিয়ামের তৈরি বিশেষ স্কার কমব্যাট রাইফেল এবং পিস্তলসহ বৈঠকের দিন নিরাপত্তা নিয়ে সদাসতর্ক থাকবে তারা। দুই নেতার নিরাপত্তার জন্য গোর্খা বাহিনীর কাছে থাকবে খুকরি এবং পায়ের হোলস্টারে অ্যাসল্ট রাইফেলও।

সম্মেলন স্থান, দুই নেতার যাত্রাপথ, রাস্তা, হোটেলেও নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবেন সিঙ্গাপুর পুলিশের এই এলিট বাহিনী। এমনিতে নিরাপত্তার দায়িত্বে গোর্খা বাহিনীদের খুব একটা চোখে পড়ে না সিঙ্গাপুরে। তবে সম্প্রতি সাংরি-লা বৈঠকে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করেছিল তারা। এ ছাড়া কিম-ট্রাম্প বৈঠক উপলক্ষে এরই মধ্যে বেশ কয়েকবার মহড়াও দিয়েছেন তারা।

উত্তর কোরিয়ার এ নেতা চাঙ্গি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছালে সেখানে তাকেও স্বাগত জানান সিঙ্গাপুরের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। কাল মঙ্গলবার সিঙ্গাপুরের সেন্তোসা দ্বীপের ক্যাপেল্লা হোটেলে বহুল কাক্সিক্ষত বৈঠকে মিলিত হবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প ও কিম জং উন। বৈঠকে উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণের বিনিময়ে অর্থনৈতিক সহায়তার ব্যাপারে আলোচনা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিরল এ বৈঠকের সংবাদ সংগ্রহ করতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রায় আড়াই হাজার সাংবাদিক ইতোমধ্যে সিঙ্গাপুরে পৌঁছেন।

এদিকে, কানাডায় জি-৭ সম্মেলন থেকে সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে বিমানে যাত্রা শুরুর পর এক টুইট বার্তায় আশাবাদ প্রকাশ করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, উত্তর কোরিয়ার নেতার সঙ্গে বৈঠক সফল হবে।

তিনি লেখেন, ‘আমি সিঙ্গাপুরের পথে; যেখানে উত্তর কোরিয়া ও বিশ্বের জন্য সত্যিকার অর্থে চমৎকার ফলাফলের সুযোগ রয়েছে। এটা অবশ্যই একটি রোমাঞ্চকর দিন হবে। এবং আমি জানি যে, কিম জং উন কঠোর কিছু কাজ করবেন; যা নজিরবিহীন। তার দেশের জন্য শান্তি এবং সমৃদ্ধির পথ রচনা করবেন। আমি তার সঙ্গে বৈঠক করার জন্য মুখিয়ে আছি!’

"