ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূ ও শাশুড়িকে হত্যা

দুই ঘাতকের স্বীকারোক্তি

প্রকাশ : ১৮ মে ২০১৮, ০০:০০

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে গৃহবধূ ও শাশুড়িকে হত্যা করা হয়েছে বলে আদালতে দুই ঘাতক স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শম্পা জাহানের আদালতে ঘাতক জাকারিয়া আহমেদ শুভ ও তালেব হোসেন এ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। জাকারিয়া আহমেদ শুভ উপজেলার ভুবিরবাগ গ্রামের হাফিজুর রহমান ও তালেব হোসেন একই উপজেলার আমতৈল গ্রামের আমির হোসেনের ছেলে।

আদালতের বরাত দিয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নবীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক পার্থ রঞ্জন চক্রবর্তী জানান, উপজেলার সাদুল্লাহপুর গ্রামের লন্ডন প্রবাসী আখলাছ মিয়ার বসতঘর ও তার পরিবারের লোকজনের দেখাশোনা করত তালেব হোসেন নামে এক ব্যক্তি। দীর্ঘদিন দেখাশোনায় থাকার ফলে প্রবাসী আখলাছ মিয়ার স্ত্রী রুমি বেগমকে (২২) সে প্রায়ই কুপ্রস্তাব দিত। এ নিয়ে তাদের বাগবিত-া হতো। অপর ঘাতক জাকারিয়া আহমেদ শুভ রুমিকে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করত। একপর্যায়ে তারা দুজন মিলে রুমিকে ধর্ষণের পরিকল্পনা করে। তারা গত ১৩ মে রাত সাড়ে ১১টার দিকে আলখাছ মিয়ার ঘরে ঢুকে রুমিকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় আলখাছ মিয়ার মা মালা বেগম এগিয়ে গেলে ঘাতকরা তার ওপর চড়াও হয়। তাকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত ও কুপিয়ে হত্যা করে। পরে ধর্ষণ করতে না পেরে রুমিকেও হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

এর আগে বুধবার দুপুরে জাকারিয়া আহমেদ শুভ ও তালেব হোসেনকে উপজেলার ঢাকা সিলেট মহাসড়কের আউশকান্দি সিএনজি পাম্প এলাকা থেকে আটক করে পুলিশ। এ ঘটনায় ১৫ মে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে নিহত রুমির ভাই নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেন।

"