পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি

শিশুদের অশুভ প্রতিযোগিতার মুখে ঠেলে দেবেন না

প্রকাশ : ১৬ মে ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

শিশুদের অসম প্রতিযোগিতার মধ্যে ঠেলে না দিয়ে স্বাভাবিকভাবে বেড়ে উঠতে দিতে অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি বলেছেন, ‘অভিভাবকদের প্রতি আমার আহ্বান, আপনারা শিশুর ব্যক্তিত্বের প্রতি আস্থা রেখে তাদের প্রতিভা বিকাশের সুযোগ করে দিন। শিশুদের অশুভ ও অসম প্রতিযোগিতার মুখে ঠেলে দেবেন না।’ গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীতে জাতীয় শিশু পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এ আহ্বান জানান রাষ্ট্রপতি। অভিভাবকদের উদ্দেশে তিনি আরো বলেন, ‘সব কিছুতে প্রথম বানানোর জন্য শিশুদের জন্য এমন কিছু করবেন না; যা নীতি-নৈতিকতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করে বা তারা ভুল পথে পরিচালিত হতে পারে। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি শিশুকে সামাজিক ও ধর্মীয় মূল্যবোধ সম্পর্কে সচেতন করে তুলুন, যাতে বড় হয়ে তারা কুসংস্কার ও ধর্মান্ধতা থেকে মুক্ত থাকতে পারে। এজন্য পরিবার, সমাজ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ সর্বত্র শিশুবান্ধব পরিবেশ তৈরি করতে হবে। তাই আসুন শিশুদের প্রতিভা বিকাশে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালাই। আমি অভিভাবক, সামর্থ্যবান ব্যক্তি এবং শিশু কল্যাণে নিবেদিত সব সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে আরো বেশি শিশুবান্ধব কর্মসূচি নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।’

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আমাদের মনে রাখা দরকার, পরীক্ষায় প্রথম হওয়ার চেয়ে ভালো মানুষ হওয়ার গুরুত্ব অনেক বেশি। শিশুদের শেখাতে হবে আনন্দের মাধ্যমে। জোর করে বা চাপিয়ে দেওয়ার মাধ্যমে নয়। বদ্ধঘরের চার দেয়ালের বাইরে যে বিশাল জগৎ রয়েছে তা থেকে শিশুকে শেখাতে হবে। ছবির প্রজাপতির চেয়ে উড়ন্ত প্রজাপতির রং ও সৌন্দর্য যে অনেক সুন্দর, তা শিশুকে জানাতে হবে। তা হলে সেই শিক্ষা শিশুর মনে স্থায়ী হবে। তারা আত্মপ্রত্যয়ী হতে পারবে।’

প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক শিশুদের সমাজের মূলধারায় সম্পৃক্ত করার তাগিদ দিয়ে রাষ্ট্রপতি শিশুদের উদ্দেশে বলেন, ‘তারাও সমাজের অবিচ্ছেদ্য অংশ। তাদের বোঝা হিসেবে না ভেবে সমাজের মূলধারায় ফিরিয়ে আনতে হবে। তাদের মানসিক বিকাশের সুযোগ দিতে হবে। তাদের মানবসম্পদে পরিণত করতে তোমাদের সহযোগিতা করতে হবে, তাদের বন্ধু করে নিতে হবে। শুধু আইন ও সনদ দিয়ে শিশুদের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। এজন্য আমাদের মানসিকতারও পরিবর্তন প্রয়োজন।’

এর আগে রাষ্ট্রপতি জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগতিা ২০১৮তে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। শিশু একাডেমি মিলনায়তনে ওই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শিশু একাডেমির চেয়ারম্যান কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন। আরো বক্তব্য দেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, সচিব নাছিমা বেগম, শিশু একাডেমির পরিচালক আনজীল লিটন। পরে শিশুদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন রাষ্ট্রপতি।

"