ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর জ্ঞানের বহর!

প্রকাশ : ১২ মে ২০১৮, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

আবোল-তাবোল বলে একের পর এক বিতর্কের জন্ম দিচ্ছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। এবার তিনি বলেছেন, ‘ইংরেজ সরকারের বিরোধিতা করে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর নোবেল পুরস্কার বর্জন করেছিলেন।’ গত বুধবার উদয়পুরের পুরনো রাজবাড়ীতে ভুবনেশ্বরী মন্দির চত্বরে রাজর্ষি উৎসবে তিনি এ মন্তব্য করেন। ত্রিপুরার স্থানীয় একাধিক পত্রিকা গতকাল শুক্রবার এ খবর জানায়।

মুখ্যমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। তার এ বক্তব্যের মাধ্যমে ফের বিতর্ক তৈরি হয়েছে। এর আগেও একাধিকবার বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। কখনো বলেছেন, ‘মহাভারতের যুগেও ইন্টারনেট ছিল। না হলে সঞ্জয় কিভাবে ধৃতরাষ্ট্রকে কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধের ধারাবিবরণী দেবেন?’

আবার কখনো তার বৈপ্লবিক পরামর্শ, ‘সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদেরই সিভিল সার্ভিসে যাওয়া উচিত। মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারদের নয়।’

নতুন প্রজন্মের কাছে তার উপদেশ ছিল, ‘চাকরির বদলে গরুর দুধ বিক্রি করলে ১০ বছরের মধ্যে ১০ লাখ টাকার মালিক হয়ে যাবেন।’

এ ছাড়া সাবেক বিশ্বসুন্দরী ডায়না হেডেনকে নিয়ে তার যুগান্তকারী পর্যবেক্ষণ, ‘ডায়না হেডেন এমন কিছু সুন্দরী নন, যে তাকে বিশ্বসুন্দরী করতে হবে!’

প্রসঙ্গত, কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর পাঞ্জাবের জালিয়ানওয়ালা বাগে ব্রিটিশ সেনাদের গুলিতে হতাহতের প্রতিবাদ স্বরূপ ব্রিটেনের দেওয়া রাষ্ট্রীয় খেতাব ‘নাইট’ বর্জন করেছিলেন।

 

"