চট্টগ্রামে যানজট

মূল সমস্যা কোথায়?

১৬টি কারণে চট্টগ্রাম নগরে যানজট হচ্ছে

প্রকাশ : ১৫ মার্চ ২০১৮, ০০:০০

শরীফুল রুকন, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম দ্রুত বর্ধমান একটি নগর, যেখানে বিবিধ উন্নয়ন ও পরিবর্তন সাধিত হচ্ছে। দেশের সব প্রান্ত থেকে মানুষ তার বিবিধ প্রয়োজনে ছুটছে বন্দর নগরী অভিমুখে, বাড়িয়ে তুলছে নগরীর জনসংখ্যাকে। এই অতিরিক্ত জনসংখ্যা নগরীতে নানা কৃত্রিম সমস্যার সৃষ্টি করছে, যার মধ্যে অন্যতম যানজট।

সম্প্রতি চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) পুরকৌশল বিভাগের ‘চট্টগ্রাম মহানগরীতে যানজট ও তার বিরূপ প্রভাব’ শীর্ষক এক গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করে। গত বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে জুলাই পর্যন্ত এই গবেষণাটি করা হয়।

গবেষণা প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, ১৬টি কারণে চট্টগ্রাম নগরে যানজট হচ্ছে। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে রাস্তার মোড়ে গাড়ি দাঁড় করিয়ে যাত্রী ওঠা-নামা, সড়কে বিভিন্ন গতির ও অতিরিক্ত যানবাহন চলাচল করা, ট্রাফিক আইন অমান্য করা, আইন প্রয়োগ ও কার্যকরের অভাব, অপর্যাপ্ত ও অপরিকল্পিত ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, পর্যাপ্ত ট্রাফিক পুলিশের অভাব, সড়কে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়া, লাইসেন্সবিহীন ও অদক্ষ চালক, রাস্তা ও ফুটপাত দখল হয়ে যাওয়া।

গবেষণায় দেখা যায়, চট্টগ্রামের বহদ্দারহাট থেকে বারিক বিল্ডিং মোড়ের দূরত্ব ৭ দশমিক ৭৫ কিলোমিটার। শহর এলাকায় যানবাহনের স্বাভাবিক গতি (ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার) অনুযায়ী, এই পথ পাড়ি দিতে সর্বোচ্চ ১২ মিনিট লাগার কথা। কিন্তু লাগছে ন্যূনতম ২৭ মিনিট। স্বাভাবিকের চেয়ে দ্বিগুণ সময় লাগার কারণ যানজট। একই কারণে শহরে গাড়ির গতি কমে দাঁড়িয়েছে ১৭ দশমিক ৭৫ কিলোমিটারে।

এদিকে অপরিকল্পিত বাসস্ট্যান্ডের কারণে নগরীর চার প্রবেশমুখ কার্যত অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। নগরীর অক্সিজেন মোড়, শাহ আমানত সেতু চত্বর, কাপ্তাই রাস্তার মাথা এবং সিটি গেট-কর্নেল হাটে যাত্রীদের সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। নগরের বেশিরভাগ সড়কের দুই পাশের ফুটপাত দখল করে চলছে ব্যবসা-বাণিজ্য। যত্রতত্র যানবাহন দাঁড়িয়ে থেকে যাত্রী উঠা-নামা করানোর কারণে প্রতিটি মোড়েই এক ধরনের বিশৃঙ্খলা বিরাজ করছে। এসব সমস্যার সমাধান না হওয়ার পেছনে ট্রাফিক পুলিশের চাঁদাবাজিকে দায়ী করছেন অনেকেই।

যানজটের অন্যতম কারণ সম্পর্কে সংশ্লিষ্টরা যেসব কারণকে দায়ী করছেন, সেগুলো হচ্ছে রিকশার ছড়াছড়ি, যানবাহনের ইচ্ছামতো চলাচল, যত্রতত্র পার্কিং ও আইন মেনে না চলা, ফুটপাতগুলো দখল, সড়কে নির্মাণসামগ্রী ফেলে রাখা। এছাড়া অপরিকল্পিভাবে রাস্তা কেটে উন্নয়ন কাজ করা, মোড়ে মোড়ে রিকশা দাঁড়িয়ে থাকা, সড়কের পাশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অবস্থান, ত্রুটিযুক্ত যানবাহন ও দিনে সড়কে বড় ট্রাক চলাচল করাকেও যানজটের কারণ বলছেন সংশ্লিষ্টরা।

সড়ক ও পরিবহন বিশেষজ্ঞ প্রকৌশলী সুভাষ চন্দ্র বড়–য়া বলেন, অপরিকল্পিত নগরায়ণ যানজটের অন্যতম কারণ। চট্টগ্রামে সুষ্ঠু ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা নেই, নেই আইনের যথাযথ প্রয়োগ। যানজট নিরসনে নগরীতে বড় বাসের মতো গণপরিবহনের সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে। এর জন্য প্রয়োজন পৃথক লেন। প্রয়োজনে ডাবল ডেকার প্রচলন করা যায়। এর ফলে ছোট যানবাহনের সংখ্যা কমে যাবে।

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) কুসুম দেওয়ান বলেন, অপরিকল্পিত ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার বিষয়টি ঠিক না। গাড়ির সংখ্যা যেভাবে বাড়ছে, সেভাবে সড়ক বাড়েনি। চালকদের মধ্যে সচেতনতাও বাড়েনি। পরিকল্পিতভাবে টার্মিনালও গড়ে তোলা হয়নি। এখন প্রয়োজন অনুসারে আইন প্রয়োগ করা হচ্ছে, আবার সচেতন করারও চেষ্টা চলছে।

 

"