স্পিরিট পানে ২ শ্রমিকের মৃত্যু : তিনজন অসুস্থ

রাজশাহীতে ‘মদপানে’ কলেজছাত্রীর মৃত্যু

প্রকাশ : ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জ সদরে বিষাক্ত স্পিরিট পান করে দুই শ্রমিক মারা গেছেন। অসুস্থ হয়েছেন আরো তিনজন। এদের মধ্যে একজন গতকাল শনিবার, আগের দিন শুক্রবার অন্যজনের মৃত্যু হয়। এর আগে গত বৃহস্পতিবার রাতে তারা স্পিরিট খেয়ে অসুস্থ হন। হাসপাতালে নেওয়ার পর তারা মারা যান। তারা হলেন সদর উপজেলার সয়দাবাদ ইউনিয়নের খাসবড় শিমুল পঞ্চসোনা গ্রামের জামাত আলীর ছেলে আলম সেখ (৩২) ও বেলকুচি উপজেলার মকিমপুর গ্রামের রমজান আলী (৪৫)।

অসুস্থ হয়েছেন খাসবড় শিমুল পঞ্চসোনা গ্রামের হযরত মন্ডলের ছেলে বাদশা (৩৫) ও বক্কার সেখের ছেলে আলম সেখ (২৫) এবং মনোয়ার মন্ডলের ছেলে সিরাজ মোল্লা (৩৫)। প্রথম দুজনকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শেষের জন চিকিৎসা শেষে বাড়ি ফিরেছেন।

সয়দাবাদ ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আবদুল আজিজ মন্ডল জানান, এরা পাঁচজন বঙ্গবঙ্গু সেতুর পশ্চিমপার গোলচত্বর এলাকায় ট্রাকে মালামাল লোড-আনলোডে শ্রমিকের কাজ করতেন।

গত বৃহস্পতিবার রাতে বিষাক্ত স্পিরিট খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে রমজান আলী এবং শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আলম সেখ মারা যান।

সদর থানার ওসি হেলাল উদ্দিন জানান, হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন পাঁচজনই বিষাক্ত স্পিরিট পানে অসুস্থ হন, যাদের মধ্যে দুজন মারা যান। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

রাজশাহীতে ‘মদপানে’ কলেজছাত্রীর মৃত্যু

রাজশাহী নগরে এক কলেজছাত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মদপানে তার মৃত্যু হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। গতকাল শনিবার নগরের ডাশমারী এলাকার নিজবাড়ি থেকে রিতু খাতুনের (২০) লাশ উদ্ধার করা হয়। রিতু মতিহার থানার ডাশমারী পূর্বপাড়া মহল্লার মৃত নেকবর হোসেনের মেয়ে। তিনি কমেলা হক ডিগ্রি কলেজের ছাত্রী ছিলেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এক তরুণীসহ দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

মতিহার থানার ওসি মেহেদী হাসান বলেন, স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী রিতু নেশাগ্রস্ত ছিলেন বলে তার পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন।

পরিবারের বরাত দিয়ে ওসি বলেন, গত শুক্রবার রাতে মির্জাপুর কিন্ডারগার্টেন স্কুলের দ্বিতীয় তলায় সুরমা বেগম (২০) নামে এক তরুণীর বাসায় মদপান করেন রিতু। সকালে অসুস্থ হয়ে পড়লে রিতুর মাকে খবর দেন সুরমা। বাড়িতে যাওয়ার পর রিতু মারা যান।

ওসি বলেন, লাশ উদ্ধারের সময় তার শরীরে মদের গন্ধ পাওয়া গেছে। এছাড়াও সুরমার বাড়িতে যে ঘরে রিতু ছিলেন সেখানেও মদের বোতল পাওয়া গেছে। সুরমার বাসায় মাঝেমধ্যে গিয়ে রিতু থাকতেন বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন।

ওসি বলেন, রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রিতুর লাশের ময়নাতদন্ত করা হবে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন হাতে পেলে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিতভাবে বলা যাবে।

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সুরমা বেগম ও রেজাউল নামে দুজনকে আটক করা হয়েছে। থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

"