বিপুলসংখ্যক প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল

প্রকাশ : ০৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:৩৯

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রার্থী হওয়ার জন্য দাখিলকৃত মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে বিপুলসংখ্যক প্রত্যাশীর বৈধতা বাতিল ঘোষণা করেছে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা। গতকাল রোববার এই তালিকা ঘোষণা করা হয়। সমর্থকের ভুয়া স্বাক্ষরে অস্বীকার, মিথ্যা তথ্য দেওয়া, পদত্যাগপত্র গৃহীত না হওয়া, দলীয় মনোনয়ন না থাকা, বিভিন্ন মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হওয়াসহ নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তথ্য পূরণ না হওয়ায় এসব মনোনয়ন বাতিল করা হয়। তবে এসব প্রার্থী পুনঃবিবেচনার জন্য আগামী ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনে অপিল করতে পারবে যা বিবেচনা করে দেখা হবে নীতিমালা অনুযায়ী। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠান খবর-
খাগড়াছড়ি : আদালতে দন্ডের কারণে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী আবদুল ওয়াদুদ ভূইয়া, দলীয় মনোনয়ন না থাকায় আওয়ামী লীগের ২ বিদ্রোহী প্রার্থী ও দাখিলকৃত ভোটার তালিকায় অসংগতির কারণে ইউপিডিএফ সমর্থিত দুই স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ খাগড়াছড়িতে ৫ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম এই ঘোষণা দেন। মনোনয়ন বাতিল হওয়া প্রার্থীরা ছিলেন, জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ ভূইয়া, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাবেক এমপি যতীন্দ্র লাল ত্রিপুরা, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সমীর দত্ত চাকমা, পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন ইউপিডিএফর কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব চাকমা ও নতুন কুমার চাকমা।
বাগেরহাট : বাগেরহাটের ৪টি সংসদীয় আসনে মহাজোট, ঐক্যফ্রন্ট ও বিভিন্ন দলসহ সর্বমোট ২৯ জন প্রার্থীর মধ্যে জাতীয় পার্টি ২ ও এনপিপির ১জনসহ ৩ প্রার্থীর মনোনয়নপ্রত্র বাতিল করেন জেলা রিটানিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক তপন কুমার বিশ^াস। 
বাগেরহাট-১ আসনে ঋন খেলাপির দায়ে জাতিয় পার্টির এসএম আল জোবায়ের এবং বাগেরহাট-২ আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী শেখ মোস্তাফিজুর রহমান ও বাগেরহাট-৪ আসনে এনপিপি’র প্রার্থী মো. আমিনুল ইসলাম খাঁনের সম্পদ বিবরনীতে স্বাক্ষর না করাসহ ত্রুটিপূর্ণ  মনোয়নয়পত্র দাখিল করায় তা বাতিল করা হয়েছে।
ভোলা : ভোলার ৪টি আসনে ২৪ প্রার্থীর মনোনয়ন যাচাই-বাছাই অনুষ্ঠিত শেষে সকালে ভোলা-২ ও ভোলা-৪ আসনের ২ প্রার্থী এবং দুপুরে ভোলা-১আসনে বিএনপির প্রার্থীর প্রার্থীতা বাতিল ঘোষণা করেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মোঃ মাসুদ আলম ছিদ্দিক। এদের মধ্যে ঋণখেলাপী হওয়ায় ভোলা-১ আসনে বিনপির প্রার্থী গোলাম নবী আলমগীর, একশতাংশ ভোটারের সমর্থনপত্র জমা না দেওয়ায় ভোলা-২ আসনের স্বতন্ত্র  প্রার্থী হুমায়ুন কবির এবং মনোনয়ন পত্রের কাগজে সকল স্থানে স্বাক্ষর না করায় ভোলা-৪ আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী এম এ মান্নান হাওলাদারের প্রার্থীতা বাতিল হয়েছে।
বগুড়া-ধুনট : বগুড়ার ৭টি আসনে বিভিন্ন দলের ৮৩ জন মনোনয়ন প্রত্যাশির মধ্যে বেগম খালেদা জিয়া সহ ২৬ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল ঘোষনা করেন জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদ। মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামী হওয়ায় খালেদা জিয়ার দুটি মনোনয়ন, পৌর মেয়র ও উপজেলা চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ না করায় কয়েকজন প্রার্থী এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীর শর্ত পূরণ না করায় মনোনয়ন বাতিল ঘোষনা করা হয়। 
বাতিল হওয়া প্রার্থীরা হলেন বগুড়া-১ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আলহাজ্ব টিপু সুলতান ও ইউনুছ আলী; বগুড়া-২ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আ.লীগ নেতা আবুল কাশেম ফকির, মোস্তাফিজার রহমান; বগুড়া-৩ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মজিদ, তাজ উদ্দিন মন্ডল ও বিএনপির প্রার্থী উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মহিত তালুকদার; বগুড়া- ৪ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যাপক জাহিদুর রহমান, আহসানুল হক, আশরাফুল আলম হিরো আলম, ইউনুছ আলী মন্ডল, আ.লীগ নেতা কামাল উদ্দিন কবিরাজ, উপজেলা চেয়ারম্যান স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জামায়াত নেতা মাওলানা তায়েব আলী; বগুড়া-৫ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী তহমিনা জামান হিমিকা, বিকল্পধারার মাহবুব আলী, উপজেলা চেয়ারম্যান স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জামায়াত নেতা দবিবুর রহমান, বগুড়া-৬ (সদর) আসনে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া, পৌর মেয়র বিএনপির প্রার্থী এড. মাহবুবর রহমান ও জাকের পার্টির ফয়সাল বিন শফিক; বগুড়া-৭ আসনে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া, বিএনপির প্রার্থী উপজেলা চেয়ারম্যান মোরশেদ মিলটন ও সরকার বাদল, আ.লীগ নেতা ডা: মোস্তফা আলম নান্নু, স্বতন্ত্র প্রার্থী ফেরদৌস আরা খান, রেজাউল করিম বাবলু ও জাসদ প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাকের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে।
কুমিল্লা : কুমিল্লায় প্রার্থীদের যাচাই বাছাইয়ে ১৩৪ প্রার্থীর মধ্যে ৩৬ জনকে বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। কুমিল্লায় মনোনয়ন বাতিল হওয়া হেভী ওয়েট প্রার্থীরা হচ্ছেন কুমিল্লা-২ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হোমনা উপজেলা বিএনপি সভাপতি আবদুল মজিদ; কুমিল্লা-৩ আসনে বিএনপির প্রার্থী কেএম মুজিবুল হক ও তার ভাই স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজী জুন্নুন বসরী, স্বতন্ত্র প্রার্থী কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার ও তার ছেলে আহসানুল আলম কিশোর; কুমিল্লা-৫ আসনে বিএনপির প্রার্থী অধ্যাপক ইউনুস এবং কুমিল্লা-১০ আসনে আবদুল গফুর ভূইয়া।
এছাড়া কুমিল্লাা-১ আসনে ৩ জন, কুমিল্লা-২ আসনে ৫, কুমিল্লা-৩ আসনে ১০, কুমিল্লা-৪ আসনে ৫, কুমিল্লা-৫ আসনে ৪, কুমিল্লা-৬ আসনে ১, কুমিল্লা-৮ আসনে ১, কুমিল্লা-৯ আসনে ৩, কুমিল্লা-১০ আসনে ৩ ও কুমিল্লা-১১ আসনে ১ জনসহ সর্বমোট ৩৬ জনের প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে।
গাইবান্ধা : গাইবান্ধার পাঁচটি আসনে ৬৪ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করারীর মধ্যে ১৬ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেন রিটানিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক সেবাষ্টিন রেমা। তার মধ্যে গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনে ছয়টি, গাইবান্ধা-২ (সদর) আসনে তিনটি, গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্লাপুর-পলাশবাড়ী) আসনে পাঁচটি, গাইবান্ধা-৪ (গোবিন্দগঞ্জ) আসনে একটি ও গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনে একটি ।
রিটানিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক সেবাষ্টিন রেমা জানান, গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনে ঋণ খেলাপির অভিযোগে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক সরকার, এক শতাংশের সমর্থন সূচক জমা দেওয়া কাগজে ভুল থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী এ.বি.এম মিজানুর রহমান, স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়নাল আবেদিন (সাদা), স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আব্দুর রহমান, স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা আ.লীগের সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক আফরুজা বারী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী এমদাদুল হক নাদিমের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। গাইবান্ধা-২ (সদর) আসনে স্থানীয় ভোটারদের এক শতাংশের সমর্থনসূচক জমা দেওয়া কাগজে ভুল থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী একেএম রেজাউল কবীর, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ মকদুবর রহমান সরকার ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ ওয়াহেদ মুরাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্লাপুর-পলাশবাড়ী) আসনে জাপা (এ) প্রার্থী মনজুরুল হক সাচ্চার দলীয় মনোনয়নপত্রে মহাসচিবের স্বাক্ষর জাল ও ঋণ খেলাপির অভিযোগে জেলা বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলামের মনোনয়নপ্রত বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া স্থানীয় ভোটারদের এক শতাংশের সমর্থনসূচক জমা দেওয়া কাগজে ভুল থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী তৌফিকুল আমিন মন্ডল টিটু, স্বতন্ত্র আমিনুল ইসলাম দুদু ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু জাফর মোঃ জাহিদের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়।
গাইবান্ধা-৪ (গোবিন্দগঞ্জ) আসনে স্থানীয় ভোটারদের এক শতাংশের সমর্থনসূচক জমা দেওয়া কাগজে ভুল থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী জামায়াতে ইসলামীর জেলা আমির ডা. আব্দুর রহিম সরকারের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনে ঋণ খেলাপির অভিযোগে বাতিল হয়েছে বিএনপি নেতা নাজেমুল ইসলাম প্রধানের মনোনয়ন পত্র।
হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জের ৪টি আসনে ৩৮ প্রার্থীর মধ্যে ড. রেজা কিবরিয়াসহ ১২ জন প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করেছেন জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদ। 
বাতিলকৃত প্রার্থীরা হলেন, হবিগঞ্জ-১ (নবীগঞ্জ-বাহুবল) আসনে ঋণ খেলাপির অভিযোগে গণফোরামের ড. রেজা কিবরিয়া, হলফনামায় স্বাক্ষর না থাকায় আওয়ামীলীগ দলীয় বর্তমান সংরক্ষিত এমপি স্বতন্ত্র প্রার্থী এ্যাডভোকেট আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী, মামলা সংক্রান্ত তথ্য গোপন রাখার কারণে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রিন্সিপাল মাওলানা আবু হানিফা আহমদ হোসেন, সমর্থকের স্বাক্ষর রেনডন স্যাম্পলিংয়ের কারণে স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যাপক মো. আব্দুল হান্নান, হলফনামায় স্বাক্ষর না থাকায় ইসলামীক ফ্রন্টের মুফতি বদরুর রেজা সেলিম ও বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের হাফেজ জুবায়ের আহমদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।
হবিগঞ্জ-২ (বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ) আসনে হলফনামায় স্বাক্ষর না বিএনপি’র প্রার্থী মোঃ জাকির হোসেন; হবিগঞ্জ-৩ (হবিগঞ্জ সদর-লাখাই-শায়েস্তাগঞ্জ) আসনে দলীয় প্রার্থীতার চিঠি না থাকায় ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এন.পি.পি) মোঃ আব্দুল কাদির ও হলফনামায় স্বাক্ষর না থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী মাওলানা আতাউর রহমান; হবিগঞ্জ-৪ (মাধবপুর-চুনারুঘাট) আসনে হলফনামায় স্বাক্ষর না থাকার ইসলামীক ফ্রন্টের মুফতি এম.এ মমিন,
মামলা সংক্রান্ত তথ্য গোপনের করায় স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ আনছারুল হক, হলফনামায় স্বাক্ষর না থাকার বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মাওলানা সোলায়মান খান রব্বানীর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়।
জামালপুর : জামালপুরের ৫টি আসনে মোট ৪৯ মনোনয়নপত্র প্রত্যাশীর মধ্যে জামালপুর-৪ আসনে বিএনপির প্রার্থী শূন্য ও এমপিসহ ৮ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেছেন জেলা রিটার্নিং অফিসার আহমেদ কবীর।
জামালপুর-১ (দেওয়ানগঞ্জ-বকশীগঞ্জ) আসনে দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় সাবেক এমপি বিএনপি প্রার্থী এম রশিদুজ্জামান মিল্লাত; জামালপুর-৪ (সরিষাবাড়ি) আসনে উপজেলা চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগপত্র গ্রহণ না হওয়ায় বিএনপি প্রার্থী জেলা বিএনপি’র সভাপতি ফরিদুল কবীর তালুকদার, আয়-ব্যায়ের হিসাব না থাকাসহ মনোনয়নপত্রে বিভিন্ন ত্রুটি থাকায় বর্তমান এমপি (জাপা) মামুনুর রশীদ জোয়ার্দার; জামালপুর-৩ আসনে বিকল্প ধারার মাসুম বিল্লাহ, স্বতন্ত্র প্রার্থী শফিকুল ইসলাম, ঐক্যফন্টের প্রার্থী নঈম জাহাঙ্গীর, জামালপুর-৫ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজী নজরুল ইসলাম ও ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আলীর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে।
তবে জামালপুর-১ আসনে বাদ পড়া বিএনপির প্রার্থী এম. রশিদুজ্জামান মিল্লাত ও জামালপুর-৪ আসনের প্রার্থী ফরিদুল কবীর তালুকদার শামীম অভিযোগ করেন, তাদের জনপ্রিয়তায় ইর্ষণীয় হয়ে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।
ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহের ৪টি সংসদীয় আসনে ৩৯ জন মনোনয়ন প্রত্যাশির মধ্যে বিএনপি ও আ.লীগের মোট ১৫ জনের মনোনয়ন পত্র বাতিল ঘোষনা করেছেন জেলা রিটার্নিং অফিসার সরোজ কুমার নাথ।
বাতিল হওয়া প্রার্থীরা হলেন, ঝিনাইদহ-১ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু বকর ও বিএনপির প্রার্থী আব্দুল ওহাব; ঝিনাইদহ-২ আসনে জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও হরিণাকুন্ডু উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাড এম.এ মজিদ, বিএনপির মসিউর রহমান, মীর রবিউল ইসলাম লাভলু, জাকের পার্টির আবু তালেব সেলিম, আওয়ামীলীগের সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউসুফ আলী; ঝিনাইদহ-৩ আসনে জাপার কামনুজ্জামান স্বাধীন, বিএনএফর ইসমাইল হোসেন; ঝিনাইদহ-৪ আসনে সিপিবির ফনি ভূষণ রায়, বিএনএফর মো. ওয়াদুদুর রহমান, ন্যাশনাল পিপলস পাটির কামরুল ইসলাম, স্বতন্ত্র জহুরুল ইসলাম ও আওয়ামী লীগের সাবেক এমপি আব্দুল মান্নানের মনোনয়ন পত্র বাতিল হয়েছে। 
নোয়াখালী : নোয়াখালীর ৬টি আসনের মধ্যে নোয়াখালী-৪, ৫ ও ৬ সংসদীয় আসনে ঋণ খেলাপি ও ভুয়া স্বাক্ষর সংগ্রহের দায়ে ৪ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করেন জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং অফিসার তন্ময় দাস।
ঋণ খেলাপির দায়ে নোয়াখালী-৪ আসন থেকে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী শাহীনুর বেগম, ভুয়া স্বাক্ষরের দায়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী জান্নাতুল ফেরদৌস; নোয়াখালী-৬ আসনে ভুয়া স্বাক্ষরের দায়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী ইকবাল উদ্দিন রাশেদ, ভুয়া স্বাক্ষর ও ঋণ খেলাপির দায়ে সাইফুদ্দিন আহম্মেদের মনোনয়ন বাতিল করা হয়। 
জয়পুরহাট : জয়পুরহাটের দুটি আসনের ১ আসনের ৯টি ও ২ আসনের ৭টি মোট ১৬টি মনোনয়ন প্রত্যাশির মধ্যে ২ জনকে বাতিল ঘোষণা করেছেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাকির হোসেন। 
জয়পুরহাট-১ আসনে স্বতন্ত্রপ্রার্থী আলেয়া বেগমের মনোনয়নপত্রটি ক্রটি থাকা ও বিএনপির প্রার্থী ফজলুর রহমান সদর উপজেলা চেয়াম্যান হওয়ায় তার পদত্যাগ পত্রটি স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়  গৃহিত না  হওয়ায় বাতিল করা হয়।
কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়ার ৪টি আসনে ৪৫ মনোনয়ন প্রত্যাশির মধ্যে ৯ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেছেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন।
কুষ্টিয়া-১(দৌলতপুর) আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন না থাকায় সাবেক এমপি আফাজ উদ্দিন আহমেদ, ঋণ খেলাপীর দায়ে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ : বাদল গ্রুপ) অধ্যক্ষ রেজাউল হক ও আয়কর রির্টান দাখিল না করায় মুসলীম লীগ প্রার্থী আব্দুল খালেক; কুষ্টিয়া-২ (মিরপুর-ভেড়ামারা) আসনে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা না দেওয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা জামায়াতের আমির আবদুল গফুর ও বশির আহমেদ;  কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন না থাকায় বর্তমান এমপি আব্দুর রউফ, ঋণ খেলাপীর দায়ে ন্যাশনাল পিপলস পার্টির প্রার্থী মেহেদী হাসান, জাকের পার্টির তসির উদ্দিন ও সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ : ইনু) প্রার্থী রোকনুজ্জামান রোকনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।
লালমনিরহাট : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লালমনিরহাটের তিনটি আসনের মোট ২৫ জন প্রার্থীর মধ্যে ৫ জনের মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করেছেন লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ শফিউল আরিফ।
মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়া প্রার্থীদের মধ্যে লালমনিরহাট-১ (পাটগ্রাম-হাতিবান্ধা) আসনে শতকরা ভোটারের ১ জন সমর্থনকারীর স্বাক্ষর জাল করার দায়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু হেনা মোঃ এরশাদ হোসেন সাজু ও হাবীব মোঃ ফারুক; লালমনিরহাট-২ (কালীগঞ্জ-আদিতমারী) আসনের চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ না করায় বিএনপি মনোনীত চন্দ্রপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম; লালমনিরহাট-৩ (সদর) আসনের শতকরা ভোটারের ১জন সমর্থনকারীর স্বাক্ষর জাল করার দায়ে জাপা মনোনীত অধ্যক্ষ একেএম মাহবুবুল আলম মিঠু ও স্বতন্ত্র প্রার্থী শামীম আহমেদ চৌধূরী মনোনয়ন বাতিল করা হয়।
মানিকগঞ্জ : মানিকগঞ্জের তিনটি আসনে ২৫ মনোনয়ন প্রত্যাশির মধ্যে বিএনপি ৪ প্রার্থীসহ মোট ৮ জনের মনোয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। 
মানিকগঞ্জ-১ আসনে আবেদন যথাযথভাবে না হওয়া ও চেয়ারম্যান পদ থেকে তার পদত্যাগ পত্র গৃহিত না হওয়ায় বিএনপির প্রার্থী দৌলতপুর উপজেলা চেয়ারম্যান তোজাম্মেল হক, মনোনয়নপত্র যথাযথভাবে পূরণ না করায় জাকির পার্টির প্রার্থীর আতাউর রহমান, মানিকগঞ্জ-২ আসনে মহাসচিবের স্বাক্ষরে মিল না থাকা বিএনপি প্রার্থী মঈনুল ইসলাম খান, চেয়ারম্যান পদ থেকে তার পদত্যাগ পত্র গৃহিত না হওয়ায় বিএনপির আরেক প্রার্থী সিংগাইর উপজেলা চেয়ারম্যান আবিদুর রহমান রোমান, ঋণ খেলাপির কারণে জাতীয় পার্টির প্রার্থী এসএম আব্দুল মান্নান, এক ভাগ ভোটারের সাক্ষার জমা না দেওয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী মোশারফ হোসেন ও মাসুম মিয়া;  মানিকগঞ্জ-৩ আসনে পদত্যাগপত্র গৃহিত না হওয়ায় বিএনপির প্রার্থী ?সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা-এর মনোনয়নপত্র অবৈধ ঘোষনা করা হয়।
মেহেরপুর : মেহেরপুরের দুটি আসনে ১০ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেছেন রন রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক আতাউল গণি। 
মেহেরপুর-১ আসনে ১৩ প্রার্থীর মধ্যে মনোনয়ন বাতিল হওয়া ৫ প্রার্থী হলেন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন না থাকায় বাতিল করা হয় সাবেক এমপি প্রফেসর আব্দুল মান্নান, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাড. মিয়াজান আলী, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. ইয়ারুল ইসলাম,  এক শতাংশ ভোটারের স্বাক্ষর না থাকায় ও সমর্থনকারীর স্বাক্ষর মিথ্যা প্রমানিত হওয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগ নেতা হাবিবুর রহমানের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। এদিকে মেহেরপুর-২ আসনে দলীয় মনোনয়ন না থাকায় জেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক এম.এ খালেক, আওয়ামী লীগ নেতা মখলেছুর রহমান মুকুল, গাংনীর সাবেক মেয়র আহম্মেদ আলী, জেলা কৃষক লীগের সম্পাদক ওয়াসিম সাজ্জাদ লিখন, জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা নূরজাহান বেগমের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। 
মৌলভীবাজার : মৌলভীবাজারের ৪টি আসনে ২৮ মনোনয়ন প্রত্যাশীর মধ্যে ৫ জনের প্রার্থীতা বাতিল ঘোষণা করেছেন জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মোঃ তোফায়েল ইসলাম।
মৌলভীবাজার-১ (বড়লেখা-জুড়ি) আসনে আয়কর রিটার্ন দাখিল না করায় বিএনপির সাবেক প্রতিমন্ত্রী এবাদুর রহমান চৌধুরী, ১ শতাংশের স্বাক্ষরে গড়মিলসহ স্বাক্ষর জালের কারণে জামায়াতের স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিনুল ইসলাম; মৌলভীবাজার-২ (কুলাউড়া) আসনে ঋণ খেলাপির অভিযোগে স্বতন্ত্র প্রার্থী মহিবুল কাদির চৌধুরী; মৌলভীবাজার-৩ (সদর ও রাজনগর) আসনে মামলার তথ্য গোপনের অভিযোগে বিএনএফএর আশা বিশ^াস এবং তথ্যে গড়মিল থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ মুছব্বির এর মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। 
নরসিংদী : নরসিংদীর ৫টি আসনে ৪৭ জন প্রার্থীর মধ্যে ৭জনের মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করেছে জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন।
নরসিংদী-১(সদর) আসনে বিদ্যুৎ বিল বকেয়ার কারণে ইসলামী ঐক্য জোটে মাওলানা মো: ইসহাক; নরসিংদী-২ (পলাশ ও সদরের একাংশ) আসনে হলফনামা সঠিক সময়ে দাখিল না করায় জাসদের (ইনু) জায়েদুল কবির, অসম্পূর্ণ হলফ নামা দখিলের জন্য বিকল্পধারার এড. দেলোয়ার হোসেন, ভোটারদের সঠিক স্বাক্ষর না থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আলতামাশ কবির মিশু ও ইঞ্জি মহসীন আহম্মেদ; হলফনামা সঠিক না হওয়ায় নরসিংদী-৩(শিবপুর) স্বতন্ত্র প্রার্থী মো: দুলাল মিয়া; নরসিংদী-৫(রায়পুরা) আসনে ভোটারদের স্বাক্ষরে গরমিল থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী অহিদুল ইসলাম মনোনয়ন বাতিল করা হয়।
নাটোর : নাটোরে ৪টি আসনে ৩৭ জন প্রার্থীর মধ্যে ৬ প্রার্থীর মনোনয়ণপত্র বাতিল করেছেন রিটার্নিং র্কমর্কতা এবং জেলা প্রশাসক মোহাম্মাদ শাহরয়িাজ।
নাটোর-১ আসনে মনোনয়নপত্রে স্বাক্ষর না থাকায় সাম্যবাদী দলের বীরন্দ্রেনাথ সাহা; নাটোর-৪ আসনে মুসলিমলীগের শান্তি রিবেরু, জাসদ (ইনু) দলের রনি পারভেজ, ঋণ খেলাপীর কারনে জাতীয় পার্টির আলাউদ্দিন মৃধা, জাল স্বাক্ষরের কারনে স্বতন্ত্র প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন খান; নাটোর-২ আসনে জঙ্গীবাদ, নাশকতা ও ঋণ খেলাপী মামলায় সাজা হওয়ার কারনে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এবং জেলা বিএনপি’ন সভাপতি রুহুল  কুদ্দুস তালুকদার দুলুর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষনা করা হয়। 
পঞ্চগড় : পঞ্চগড়ের ২টি আসনে বিএনপি মনোনিত দুই প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল ঘোষনা করেন রিটার্নিং অফিসার সাবিনা ইয়াসমিন। পঞ্চগড়-১ আসনে পৌরসভা মেয়রের পদ থেকে পদত্যাগ না করায় বিএনপির মনোনিত তৌহিদুল ইসলাম; পঞ্চগড়-২ আসনে ত্রুটিপুর্ন মনোনয়ন দাখিল করায় বিএনপির মনোনিত ফরহাদ হোসেন আজাদের মনোনয়ন বাতিল করা হয়। 
রাজবাড়ী : রাজবাড়ী-১ আসনের ন্যাশনাল পিপলস পার্টির নাজমুল হাসান খান এবং রাজবাড়ী-২ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী নুরুদ্দিন মিয়ার মনোনয়ন পত্র বাতিল করে জেলা রিটার্নিং মো. শওকত আলী।
রংপুর : রংপুর-১ আসনে (গঙ্গাচড়া) স্বতন্ত্র প্রার্থী আসাদুজ্জামান বাবলু এর মনোনয়নপত্র বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন। 
পটুয়াখালী : পটুয়াখালী জেলার ৪ টি আসনে জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার ও বিএনপির গোলাম মাওলানা রনি, সহিদুল আলম তালুকদারসহ মোট ১১ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষনা করা হয়েছে।
পটুয়াখালী-১ (সদর-মির্জাগঞ্জ-দুমকি) আসনে ৫জন হলেন- জাতীয় পার্টির এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, এনপিপির মো. সুমন সন্যামত, জাকের পার্টির মো. আবদুর রশীদ, স্বতন্ত্র মো. আবুল কালাম আজাদ ও মুসলিম লীগের মো. খবির উদ্দিন রেজা। 
পটুয়াখালী-২ (বাউফল) আসনের ৪ জন হলেন ঢাকা দক্ষিণ জামায়াতের সেক্রেটারী জেনারেল ড. শফিকুল ইসলাম, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মিজানুর রহমান খান ও মো. আবু নাইম মল্লিক।  পটুয়াখালী-৩ (গলাচিপা-দশমিনা) আসনে বিএনপির গোলাম মাওলানা রনি, মোঃ শাহজাহান খান। 
সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জ জেলার ৬টি সংসদীয় আসনে ৫১ প্রার্থী মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছিল। যাচাই বাছাইয়ে জেলার মোট ৫১ জন প্রার্থীর মধ্যে ১৮ জনের মনোনয়ন বাতিল ঘোষনা করা হয়।
বাতিলকৃত প্রার্থীরা হলেন- সিরাজগঞ্জ-১ (কাজিপুর) আসনে মো. সেলিম রেজা (বিএনপি)। সিরাজগঞ্জ-২ (সদর-কামারখন্দ) ইকবাল হাসান মাহমুদ (বিএনপি) ও ছাইয়েদুল ইসলাম  কোরাইসী (জাকের পার্টি)। 
সিরাজগঞ্জ-৩ (রায়গঞ্জ-তাড়াশ) আসনে মো. আয়নুল হক (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ), মো. আয়নুল হক (বিএনপি), মো. আহসান হাবীব সুমন (স্বতন্ত্র), মো. জিয়ায়ুর রহমান (স্বতন্ত্র), সাইফুল ইসলাম শিশির (বিএনপি)। 
সিরাজগঞ্জ-৪ (উল্লাপাড়া) আসনে আব্দুর রহমান (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ), খন্দকার গোলাম আজাদ (বিএনপি), মো. আব্দুল্লাহ আল হাসেম (জাতীয় পার্টি), মো. সোলাইমান হোসেন (স্বতন্ত্র)। 
সিরাজগঞ্জ-৫ (বেলকুচি-চৌহালী) আসনে আব্দুল্লাহ আল মামুন (বিএনপি), মেজর (অব.) মনজুর কাদের (বিএনপি), মো. আলী আলম (স্বতন্ত্র)। 
সিরাজগঞ্জ-৬ (শাহজাদপুর) আসনে এস এ মুহিত (বিএনপি), মাসুদুর রহমান (স্বতন্ত্র) ও মো. হাবিবুর রহমান (মুসলীম লীগ)।
সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) আসনের আ.লীগের ৪ স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ ৫ জনের মনোনয়ন বাতিল ঘোষনা করেছেন রিটানিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল। বাতিল হওয়া প্রার্থীরা হলেন- জেলা কৃষকলীগের সভাপতি বিশ্বজিত সাধু, জেলা আ.লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক এস.এম মুজিবর রহমান, উপজেলা আ.লীগের সভাপতি শেখ নুরুল ইসলাম, ন্যাপের হায়দার আলী ও আ.লীগ নেতা সাবেক এমপি নজরুল ইসলাম।
সুনামগঞ্জ : সুনামগঞ্জের ৫টি আসনে ৫২ জন প্রার্থীর মধ্যে ১১ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করেছেন জেলা রির্টানিং অফিসার। মনোনয়ন পত্র বাতিলকৃতরা হচ্ছেন, সুনামগঞ্জ-১ আসনে বিএনপির প্রার্থী কামরুজ্জামান কামরুল, জাসদ প্রার্থী একেএম ওহিদুল ইসলাম কবির ও জাকেরপার্টি আমান উল্লাহ আমান।
সুনামগঞ্জ-২ আসনে জাপা প্রার্থী রুহুল আমিন। সুনামগঞ্জ-৩ আসনে বিএনপির প্রার্থী আব্দুছ সাত্তার ও আশরাফুল হক সুমন, মুসলিম লীগের সৈয়দ শাহ মুবশ্বির আলী, স্বতন্ত্র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম খসরু। সুনামগঞ্জ-৪ আসনে বিএনপির প্রার্থী দেওয়ান জয়নুল জাকেরীন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশের আজিজুল হক, এনপিপি’র দিলোয়ার হোসেন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী রাজু আহমদ।
গাজীপুর : গাজীপুরের ৫টি সংসদীয় আসনে ১০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল এবং ১৩৯ টি মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে। 
নওগাঁ : নওগাঁয় ৯ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান।  
ব্রাহ্মনবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬ টি নির্বাচনী আসনের ৮৬ প্রার্থীর প্রার্থীতা যাচাই-বাছাই শেষে হয়েছে। 
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার-১ নাসিরনগরে ২ জন, ব্রাহ্মনবাড়িয়া-২ সরাইল-আশুগঞ্জ ১১ জন, ব্রাহ্মনবাড়িয়া-৩ সদর-বিজয়নগরে ১০, ব্রাহ্মনবাড়িয়া-৪ কসবা-আখাউড়া ৫ জন, ব্রাহ্মনবাড়িয়া-৫ নবীনগরে ৬ জন ও ব্রাহ্মনবাড়িয়া-৬ বাঞ্চারামপুর আসনে ৬ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষনা করা হয়েছে।
নওগাঁ : নওগাঁ-৬ (রাণীনগর-আত্রাই) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান মো. আনোয়ার হোসেন হোলাল এর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়। নওগাঁ-১ আসনের আবু হেনা মোস্তফা কামাল (এলডিপি/বিকল্পধারা), নওগাঁ-২ আসনে কেন্দ্রীয় আ.লীগের সাবেক সহসম্পাদক ড. ইঞ্জিনিয়ার আখতারুল আলম (স্বতন্ত), আব্দুর রউফ মান্নান (বিকল্পধারা), মতিবুল ইসলাম (স্বতন্ত্র), নওগাঁ-৪ আসনে আব্দুর রাকিব (স্বতন্ত্র) ও আফজাল হোসেন (স্বতন্ত্র), নওগাঁ-৫ আসনে আলহাজ্ব নজমুল হক সনি (বিএনপি) ও ইফতারুল আলম বকুল (জাপা) এবং নওগাঁ-৬ আসনে আনোয়ার হোসেন হেলাল (স্বতন্ত্র)। এছাড়া নওগাঁ-৪ আসন থেকে জেলা আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল বাকী প্রত্যাহার করে নেন।
আমতলী (বরগুনা) : বরগুনা-১ (বরগুনা সদর-আমতলী-তালতলী) আসনে বিএনপি মনোনীত  প্রার্থী সাবেক  এমপি আলহাজ্ব মো. মতিউর রহমান তালুকদারের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। 
আখাউড়া (ব্রাহ্মনবাড়িয়া) : ব্রাহ্মনবাড়িয়া-৪ আসনে বিএনপির মুশফিক ও মুসলিমসহ ৫ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষনা করা হয়েছে। 
সরিষাবাড়ী (জামালপুর) : জামালপুর-৪ (সরিষাবাড়ী) আসনের বর্তমান এমপি ও মহাজোটের মনোনয়নপ্রত্যাশী জাতীয় পার্টির মামুনুর রশিদ জোয়ার্দার এবং জেলা বিএনপির সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান ফরিদুল কবীর তালুকদার শামীমের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। 
বড়াইগ্রাম (নাটোর) : নাটোর জেলার ৪টি সংসদিয় আসন থেকে ৬ জনের মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। নাটোর-২ আসনে জঙ্গিবাদ, নাশকতা ও ঋণ খেলাপী মামলায় সাজা হওয়ার কারণে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এবং জেলা সভাপতি রুহুল কুুদ্দুস তালুকদার দুলু, মনোনয়নপত্রে স্বাক্ষর না থাকায় নাটোর-১ আসনে সাম্যবাদী দলের বীরন্দ্রেনাথ সাহা, নাটোর-৪ আসনে মুসলিমলীগের শান্তি রিবেরু, জাসদ (ইনু) দলের ডিএম রনি পারভেজ আলম, ঋণ খেলাপীর কারনে জাতীয় পার্টির আলাউদ্দিন মৃধা, জাল স্বাক্ষরের কারণে স্বতন্ত্র প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন খানের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষনা করা হয়। 
কচুয়া (চাঁদপুর) : চাঁদপুর-১ (কচুয়া) আসনে যাচাই-বাছাই শেষে ৯ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বৈধ ও স্বতন্ত্র ১ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল ঘোষনা করা হয়েছে। স্বতন্ত্র প্রার্থী খন্দকার মোশরাফ হোসেনের মনোয়নপত্রে তথ্য সঠিক না থাকায় মনোনয়ন পত্রটি বাতিল ঘোষনা করেন রির্টানিং অফিসার।
নবাবগঞ্জ (ঢাকা) : ঢাকা-১ (দোহার-নবাবগঞ্জ) আসনে ১২ প্রার্থীর মধ্যে বিএনপির দুই শীর্ষ প্রার্থীসহ পাঁচজন প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল ঘোষণা করেছে ঢাকা জেলা রিটার্নিং অফিসার। বাতিল হওয়া প্রার্থীরা হলেন- খোন্দকার আবু আশফাক, ফাহিমা হোসাইন জুবলীর, আবু আশফাক, আর ফাহিমা হোসাইন জুবলী, জাকের পার্টির মো. সামসুদ্দিন আহম্মেদ, জাসদের আইয়ূব খান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ার হোসেনের মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করা হয়।
গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) : ময়মনসিংহ-৩ (গৌরীপুর) আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আহাম্মদ তায়েবুর রহমান হিরণের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। 
কাপাসিয়া (গাজীপুর) : গাজীপুর-৪ (কাপাসিয়া) আসনে দাখিলকৃত বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মনোনীত ৭ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ এবং ২ জনের মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়েছে। জাতীয় পার্টির মোশারফ হোসেন জয় এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী মনির হোসেনের মনোনয়নপত্র যথাযথ ভাবে পুরন না করায় বাতিল ঘোষনা করা হয়েছে।