বার্সার কাছে জয়টাই গুরুত্বপূর্ণ

বার্সেলোনা ২ - ১ ভ্যালেন্সিয়া

প্রকাশ : ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ০০:১০

ক্রীড়া ডেস্ক

দিন কয়েক আগে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে রোমার কাছে বিধ্বস্ত হয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে ছিটকে গেছে বার্সেলোনা। সেই হারের দুঃস্বপ্ন ভুলে স্প্যানিশ লা লিগায় ঘুরে দাঁড়িয়েছে এরনেস্তো ভালভার্দের দল। তবে ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে সহজে জিততে পারেনি কাতালান ক্লাবটি। ঘরের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে সহজ ম্যাচটা কঠিন করে জিতেছেন মেসি-ইনিয়েস্তারা। জয়টা ২-১ গোলের।

এই জয়ে রিয়াল সোসিয়াদাদকে টপকে লা লিগায় টানা সর্বোচ্চ ৩৯ ম্যাচ অপরাজিত থাকার নতুন রেকর্ড গড়ল বার্সেলোনা। ১৯৭৮-৭৯ ও ১৯৭৯-৮০ মৌসুমে টানা ৩৮ ম্যাচ অপরাজিত ছিল সোসিয়েদাদ। তবে রেকর্ড নয়, জয়টাকেই বেশি অগ্রাধিকার দিয়েছেন বার্সা কোচ ভালভার্দে। ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, ‘এটা রেকর্ড নিয়ে কথা বলার সময় নয়। এটাকে অত বেশি গুরুত্ব দেওয়ারও কিছু নেই। জরুরি হলো আমরা জয়ে ফিরতে পেরেছি।’

চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে বাদ পড়ায় ‘ট্রেবল’ জয়ের স্বপ্ন বিসর্জন দিতে হয়েছে আগে। তবে এই মৌসুতে লিগ শিরোপাটা প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেছে ভালভার্দের শিষ্যদের। শেষ দশ মৌসুতে সপ্তমবারের মতো শিরোপা ঘরে তোলার জন্য আর মাত্র সাত পয়েন্ট হলেই চলবে বার্সেলোনার। এছাড়া আরেকটি শিরোপা জয়েরও সম্ভবনাও উঁকি দিচ্ছে তাদের সামনে। পরের সপ্তাহে সেভিয়ার বিপক্ষে কোপা ডেল রে’র ফাইনালে জয় পেলেই এবারের মতো ‘ডাবল’ জয় নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হবে স্প্যানিশ জায়ান্টদের।

পরশু ঘরের মাঠে প্রথমার্ধ থেকেই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে খেলতে থাকে বার্সেলোনা। সেই সুবাদে গোল পাওয়ার জন্য বেশিক্ষণ অপেক্ষাও করতে হয়নি তাদের। ১৫ মিনিটের সময় গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন লুইস সুয়ারেজ। এরপর ৫৭ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ক্যামরনিয়ান সেন্টার ব্যাক স্যামুয়েল উমিতিতি।

ভ্যালেন্সিয়ার হয়ে ৮৭ মিনিটে পেনাল্টি থেকে একটি গোল শোধ করেন ডানিয়েল পারেজো। এরপরের কয়েকমিনিট স্বাগতিকদের রক্ষণভাগে মুহুমূর্হু আক্রমণের ঝড় তোলে ম্যাচে সমতা ফেরানোরও আভাস দিচ্ছিল তারা। তবে এইদিন কোন দূর্ঘটনার সম্মূখীন হতে হয়নি ভালভার্দের শিষ্যদের। বার্সেলোনার দুইটি গোলেরই পেছনের কারিগর ছিলেন ফিলিপ্পে কুতিনহো। পরশু দুর্দান্ত খেলা এই ব্্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ইতোমধ্যে আস্থা অর্জন করে নিয়েছেন কোচের।

বার্সাতে আসার আগে কুতিনহো চ্যাম্পিনস লিগে নিবন্ধিত ছিলেন লিভারপুলের খেলোয়াড় হিসেবে। অলরেডদের হয়ে কয়েকটি ম্যাচেও মাঠে নেমেছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি বার্সাতে যোগ দেওয়ায় চ্যাম্পিয়নস লিগে আর নামা খেলা হয়নি তার। চ্যাম্পিয়নস লিগের নিয়ম অনুযায়ী এক মৌসুমে এক খেলোয়াড়ের দুই ক্লাবের হয়ে মাঠে নামার নিয়ম নেই। তবে কুতিনহোর এখনো চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপার স্বপ্ন শেষ হয়ে যায়নি। লিভারপুল যদি চ্যাম্পিয়ন হয় তবে নিবন্ধিত খেলোয়াড় হিসেবে তিনিও শিরোপা জেতার অংশীদার হবেন।

ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে জয় পেলেও চেনা পুরনো বার্সেলোনাকে সেভাবে দেখা যায়নি ম্যাচে। নিয়ন্ত্রণ নিয়ে খেলার পরও আক্রমণটাকে ধারালো করতে পারেনি আন্দ্রে ইনিয়েস্তা, লিওনেল মেসি, উসমাসে ডেম্বেলেরা। প্রতিপক্ষ যেখানে গোলমুখে শট নিয়েছে ১৭টি সেখানে স্বাগতিকরা নিতে পেরেছে ১২টি শট। বুঝাই যাচ্ছিল, চ্যাম্পিয়নস লিগে হারের ধকলটা এখনো সামলে উঠতে পারেনি ভালভার্দের শিষ্যরা।

দল জয় পেয়েছে। ম্যাচ শেষে কোচ ভালভার্দেকেও দেখা গেলো হাসিমুখে। সংবাদ সম্মেলনে এসে বললেন, ‘আমি আশাবাদী, চ্যাম্পিয়নস লিগে বড় একটা পরাজয় এসেছে আমাদের জন্য। আমরা সবাই শোকাচ্ছন্ন ছিলাম এতদিন। কিন্তু পরের ম্যাচেই আমরা ঘুরে দাঁড়িয়েছি। সময়টা এখন পুরনো রেকর্ড নিয়ে ভাবার জন্য নয়।’

পরশুর জয়ে লিগে নিজেদের শীর্ষস্থানটা ধরে রেখেছে বার্সেলোনা। ৩২ ম্যাচে তাদের সংগ্রহ ৮২ পয়েন্ট। যা দ্বিতীয় স্থানে থাকা অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ থেকে ১৪ পয়েন্ট বেশি। আর হারের পরও সমান ম্যাচ খেলে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে ভ্যালেন্সিয়া রয়েছে তৃতীয় স্থানে। তবে এক পয়েন্ট কম নিয়ে তাদের ঘাড়ের উপর নিঃশ্বাস ফেলছে রিয়াল মাদ্রিদ।

"