যাদের কারণে বিতর্কিত বিশ্বকাপ ফাইনাল

প্রকাশ : ১৬ জুলাই ২০১৮, ১৫:১২

অনলাইন ডেস্ক

রোববারের ফাইনৈালে মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া দলের খেলোয়াড়রা তখন বলের দখল নিয়ে ব্যস্ত। ফ্রান্স ২-১ গোলে এগিয়ে। ম্যাচের ৫২ মিনিটের মাথায় খেলোয়াড়রা বিভ্রান্ত হয়ে পড়েন। কারণ চার দর্শক ঢুকে পড়েছে মাঠে। এক তরুণী ছুটছেন এবারের বিশ্বকাপে সেরা উদীয়মান খেলোয়াড়ের পদক জেতা এমবাপ্পের দিকে।

আর এক তরুণ ছুটছেন ক্রোয়েশিয়ার ডিফেন্ডারের ডেজান লোভ্রেনের দিকে। নিরাপত্তারক্ষীরাও তাদের থামাতে দুই ভাগ হয়ে ছুটছেন মাঠে। 

হতচকিত দু’দলের খেলোয়াড়রাই। রেফারিও ইঙ্গিত করলেন খেলা থামানোর। ম্যাচের টানটান উত্তেজনা থেমে গেল। অবশেষে ওই তরুণী এমবাপ্পের কাছে গিয়ে হাত মিলিয়েও ফেললেন। তারপরই মাঠে শুয়ে পড়লেন।

নিরাপত্তারক্ষীরাও গিয়ে জাপটে ধরলেন সাদা শার্ট আর কালো ট্রাউজার পরা ওই তরুণীকে। তারপর টেনে-হিঁচড়ে পাঁজাকোলা করে তিন-চার জন মিলে বের করে আনলেন মাঠ থেকে।

অন্যদিকে ওই তরুণ ছুটে চলে গিয়েছেন লোভ্রেনের কাছে। দল এমনি পিছিয়ে পড়েছে। তার মধ্যে এমন উৎপাত। বিষয়টি ভালোভাবে নেননি ক্রোয়েশিয়ার ওই খেলোয়াড়। রাগান্বিত হয়ে তিনি ওই দর্শককে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেন।

শেষে নিরাপত্তারক্ষীরা গিয়ে তাকেও ধরে ফেললেন। তরুণীর মতোই একইভাবে পাঁজাকোলা করে বের করে আনলেন মাঠ থেকে। চার জনকেই মাঠ থেকে বার করে আনেন নিরাপত্তারক্ষীরা।

পিডিএসও/রিহাব