স্পেন-ক্রোয়েশিয়া এগিয়ে

প্রকাশ : ০১ জুলাই ২০১৮, ০৯:১৯

মামুনুল

রাশিয়া স্বাগতিক দেশ। তাদের শুরুটা হয়েছিল দুর্দান্ত। শেষটা অবশ্য ভালো হয়নি। এই ম্যাচে তারা কামব্যাক করার চেষ্টা করবে। তাদের সহায়তা করতে পারে সাপোর্টাররা। তারা ভূমিকা রাখতে পারে। তবে স্পেন দল হিসেবে অনেক শক্তিশালী। এবারের বিশ্বকাপের হট ফেভারিট তারা। গ্রুপ পর্বে হয়তো ৩-৩ গোলে ও ২-২ গোলে ড্র করেছে। ১ গোলের ব্যবধানে জিতেছে। কিন্তু তারা তাদের খেলার সৌন্দর্যটা ধরে রেখেছে। এখন ঘরের মাঠের সুবিধা নিয়ে রাশিয়া যদি দুর্দান্ত কিছু করতে পারে তাহলে হয়তো তাদের সুযোগ থাকবে।

স্বাগতিকদের বিপক্ষে স্পেনের অতীত ইতিহাস হয়তো ভালো নয়। কিন্তু শেষ ৮/১০ বছরে তারা যে ফুটবল খেলছে সেটা কিন্তু তখন ছিল না। টিকিটাকায় ভর করে তারা বিশ্বকাপও জিতেছে। তাদের খেলার ধরনে অনেক পরিবর্তন এসেছে। তারা এখন বিশ্বের অন্যতম সেরা দল। নকআউট পর্বে তাদের খেলার অভিজ্ঞতা আছে। অন্যদিকে রাশিয়া অনেক বছর পর শেষ ষোলোতে এসেছে। রাশিয়া অসাধারণ ফুটবল না খেললে এই ম্যাচে জয় পাবে না। নিঃসন্দেহে রাশিয়া ঘরের মাঠে নিজেদের সেরাটা দিয়ে খেলতে চাইবে। চাইবে পরের রাউন্ডে যেতে। কিন্তু স্পেনের মতো দলকে টপকে যাওয়াটা সহজ হবে না। অসম্ভব বললেও অত্যুক্তি হবে না।

কস্তা ভালো ফুটবল খেলছে। তবে সে গোল্ডন বুট পাওয়ার দৌড়ে টিকে থাকতে পারবে না। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, হ্যারি কেন ও রোমেলু লুকাকু গোল্ডেন বুট পাওয়ার দৌড়ে এগিয়ে গেছে। তাদের তিনজনের মধ্যে যে কেউ জিততে পারে। কস্তা হয়তো পারবে না। সে ভালো খেলছে। গোলও পেয়েছে। দেখা যাক কত দূর আগাতে পারেন।

ডেনমার্ক ক্রোয়েশিয়ার ম্যাচে অবশ্যই ক্রোয়েশিয়া ফেভারিট। তারা আর্জেন্টিনার মতো দলকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়েছে। আইসল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় সারির দল নিয়েও তারা জিতেছে। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলোতে এসেছে। দল হিসেবে তারা দুর্দান্ত। তাদের শক্তিমত্তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করার অবকাশ নেই। মদ্রিচ, মানজুকিচ ও রাকেটিচ দুর্দান্ত খেলছে। তারাই ম্যাচের গতিপথ পাল্টে দিতে পারে। এই ম্যাচে মদ্রিচ ও রাকেটিচের দায়িত্ব পালন করতে হবে। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ডেনমার্কের সুযোগ কম দেখছি। ক্রোয়েশিয়া এই দল নিয় ফাইনালে যাওয়ার মতো।

পিডিএসও/হেলাল