ক্রিকেটের ইংল্যান্ড যেন ফুটবলের ফ্রান্স!

প্রকাশ : ১৬ জুলাই ২০১৯, ০৯:৩৭

সাহিদ রহমান অরিন

কাকতালীয়ই বটে! ২০১৮ ফুটবল বিশ্বকাপজয়ী ফ্রান্স দলের সঙ্গে যে অদ্ভুত মিল ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপজয়ী ইংল্যান্ডের। কী সেই মিল? লক্ষ্য করে দেখুন—বিশ্ব বিজেতা ইংল্যান্ড আর ফ্রান্সের বিশ্বকাপ দলের গঠন অনেকটা একই। দুটি দলেই রয়েছে ভিনদেশি বংশোদ্ভূত খেলোয়াড়ের আধিক্য। ২০১৮ বিশ্বকাপজয়ী ফ্রান্স দলে যেমন সিংহভাগ বিদেশি বংশোদ্ভূত বা জন্মসূত্রে বিদেশি ফুটবলার, তেমনি এবারের ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলেও একাধিক বিদেশি বংশোদ্ভূত বা জন্মসূত্রে বিদেশি ক্রিকেটার রয়েছেন।

গত বছর রাশিয়া বিশ্বকাপজয়ী ফ্রান্স দলের তারকাদের দিকে তাকিয়ে দেখুন। একেবারে প্রথম সারির তারকা পল পগবা, কিলিয়ান এমবাপ্পে, স্যামুয়েল উমতিতি, অলিভিয়ার জিরু, ব্লেইস মাতুইদি, এনগোলো কন্তেরা কেউই ‘অরিজিনাল’ ফরাসি নন। পল পগবার জন্ম ফ্রান্সে হলেও তার বাবা-মা ছিলেন গিনির বাসিন্দা। এমবাপ্পের মা আলজেরিয়ার, বাবা ক্যামেরুনের। ডিফেন্ডার স্যামুয়েল উমতিতি তো জন্মেছেন ক্যামেরুনে। দ্বিতীয় গোলকিপার স্টিভ মন্দানা ছিলেন কঙ্গোর বাসিন্দা। মাতুইদির বাবাও ছিলেন কঙ্গোর বাসিন্দা। কন্তের বাবা-মা আবার ছিলেন মালির বাসিন্দা। এছাড়াও দলের একাধিক তারকা বিদেশি বংশোদ্ভূত।

এবার চোখ বোলানো যাক ইংলিশদের ক্রিকেট টিমে। ইংল্যান্ডের বিশ্বজয়ী অধিনায়ক খোদ ইয়ন মরগান আয়ারল্যান্ডের বাসিন্দা। জন্মভূমির হয়ে ২০০৭ বিশ্বকাপও খেলেছেন। মইন আলি এবং আদিল রশিদের জন্ম ব্রিটেনে হলেও তারা আসলে বাংলাদেশ ও পাক বংশোদ্ভূত। জেসন রয় জন্মসূত্রে দক্ষিণ আফ্রিকান, টম কুরানের জন্মও দক্ষিণ আফ্রিকায়। তার বাবা আবার জিম্বাবুয়ের। দলের অন্যতম নির্ভরযোগ্য অলরাউন্ডার বেন স্টোকস প্রকৃতপক্ষে নিউজিল্যান্ডের বাসিন্দা। জোফরা আর্চার জন্মসূত্রে ক্যারিবিয়ান। বাবা ব্রিটিশ হওয়ায় বিশেষ বিবেচনায় ক্রিকেট মহাযহজ্ঞ শুরুর মাস খানেক আগে ব্রিটেনের নাগরিকত্ব লাভ করেন তিনি।

বিশ্বকাপ শুরুর আগে ইংল্যান্ডের এই দলটিকে তো বিশ্ব একাদশ বলে কটাক্ষ করেছিলেন কিংবদন্তি সুনিল গাভাসকার। ঠিক একই রকম কটাক্ষ শুনতে হয়েছিল ফ্রান্সকেও। অনেকেই ফ্রান্স দলটিকে বলছিলেন আফ্রিকা একাদশ। দুই দলে এই বিদেশিদের আধিক্য সত্যিই আলাদা মাত্রা রাখে। কিছু কুসংস্কারে বিশ্বাসী ইংল্যান্ড সমর্থকের ধারণা, ফ্রান্সের সঙ্গে এই মিল কাকতালীয় হওয়াতেই ফরাসিদের মতোই ইংলিশরাও এবার বিশ্ব জিতেছে।

পিডিএসও/হেলাল