অভিজ্ঞতায় লারাকে ছুঁতে চলেছেন গেইল

প্রকাশ : ১৭ মে ২০১৯, ১১:২০

ক্রীড়া ডেস্ক

দুয়ারে ক্রিকেট বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসর। আর মাত্র ডজন দিনের অপেক্ষা। ৩০ মে থেকে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের মাটিতে শুরু হচ্ছে ক্রিকেটের মহারণ। বেশ কজন তারকা ক্রিকেটারের জন্য যেটা হতে চলেছে শেষ বিশ্বকাপ। এই তালিকায় রয়েছেন—ক্যারিবীয় ব্যাটিং দৈত্য ক্রিস গেইল, বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, লঙ্কান ইয়র্কার স্পেশালিস্ট লাসিথ মালিঙ্গা, পাক অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক ও মোহাম্মদ হাফিজ।

তবে এদের মধ্যে অভিজ্ঞতায় ক্রিস গেইলই সবার চেয়ে এগিয়ে। এ নিয়ে পঞ্চমবার বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রতিনিধিত্ব করবেন তিনি। আর এর মধ্য দিয়ে ছুঁয়ে ফেলবেন তার পূর্বসূরি শিবনারায়ণ চন্দ্রপল ও ক্রিকেটের বরপুত্র ব্রায়ান লারাকে। এর আগে ২০০৩, ২০০৭, ২০১১ ও ২০১৫ বিশ্বকাপ খেলেছেন ‘ইউনিভার্স বস’। ২০১৯ বিশ্বকাপই হতে যাচ্ছে গেইলের শেষ বিশ্বকাপ। তাকে সম্মান জানাতে গেইলের হাতে সহ-অধিনায়কের দায়িত্ব তুলে দিয়েছে ক্যারিবীয় টিম ম্যানেজমেন্ট।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে গেইল তৃতীয় ক্রিকেটার, যিনি পাঁচটি বিশ্বকাপ খেলতে চলেছেন। এর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে পাঁচটি বিশ্বকাপ খেলেছেন প্রাক্তন অধিনায়ক ব্রায়ান লারা ও শিবনারায়ণ চন্দ্রপল। ১৯৯২, ১৯৯৬, ১৯৯৯, ২০০৩, ২০০৭ বিশ্বকাপ খেলেছেন লারা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে এই কীর্তি গড়েন শিবনায়ারণ চন্দ্রপল। ১৯৯৬, ১৯৯৯, ২০০৩, ২০০৭, ২০১১ বিশ্বকাপে খেলেছেন তিনি।

ইংল্যান্ডে উড়াল দেওয়ার আগে স্থানীয় গণমাধ্যমকে গেইল বলেন, ‘ভক্তদের কথা ভেবেই এখনো ক্রিকেটটা খেলে যাচ্ছি। বছর দুয়েক আগে হয়তো অবসর নেওয়ার একটা ভাবনা এসে থাকতে পারে। কিন্তু তার পরই ভক্তরা বলতে থাকল, খেলা ছেড়ো না। ওরাই আমাকে এখনো চালিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। জানি, কোনো কিছুই চিরস্থায়ী নয়। আশা করছি, ওদের জন্য আরো কয়েকটা ম্যাচ খেলে যেতে পারব। বিশ্বকাপ জেতার জন্য ওরাই আমার প্রেরণা।’

ক্যারিবিয়ান ব্যাটিং দানব স্বীকার করেছেন, এত দিন ধরে যে উইন্ডিজ জার্সিতে মাঠে নামতে পারবেন, তা তিনিও ভাবেননি। গেইলের ভাষায়, ‘সত্যি, সময় কত দ্রুত চলে যায়। কখনো ভাবিনি এতগুলো বিশ্বকাপে খেলতে পারব। কিন্তু পারলাম। এটাই প্রমাণ করছে, ক্রিকেট জীবনে আমি কতটা ধারাবাহিক ছিলাম। এ ধারাবাহিকতার প্রশংসাই তো সবাই করে। গত দুই বছরে প্রচুর পরিশ্রম করেছি। এখন তার ফল পাচ্ছি। ভক্তরা আমাকে দেখতে চাইছে আর আমিও ভক্তদের চাহিদা মেটাতে পারছি।’

পিডিএসও/হেলাল