ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে এক বিজ্ঞাপন ১ কোটি!

উত্তাপ ছড়াচ্ছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল

প্রকাশ : ১৭ জুন ২০১৭, ১৬:১৭ | আপডেট : ১৭ জুন ২০১৭, ১৬:২৩

অনলাইন ডেস্ক

সর্বত্রই তীব্র উত্তাপ ছড়াচ্ছে এবারের আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল। জুয়ার আসর থেকে টিভির পর্দা- সব জায়গাতেই ব্যাপক প্রস্তুতি। অবশ্য আগামীকাল অনুষ্ঠিতব্য ভারত-পাকিস্তানের ফাইনাল লড়াই টিভির সামনে বসিয়ে দেবে কোটি মানুষকে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ভারত-পাকিস্তান ফাইনাল কী উত্তেজনা তৈরি করতে পারে, সেটা আইসিসি বুঝেছিল ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। এবার পুরো ১০০ ওভারের ঠাসা রোমাঞ্চ। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সম্প্রচারক স্টার স্পোর্টসেরও পোয়াবারো। সাধারণ সময়ের তুলনায় ১০ গুণ বেশি বিজ্ঞাপনের দর পৌঁছে গেছে। ৩০ সেকেন্ডের এক বিজ্ঞাপনের স্লটের (বরাদ্দ সময়) জন্য দিতে হচ্ছে ১ কোটি রুপি! অবশ্য এবারের গ্রুপ পর্বে ২ দলের ম্যাচটা অবশ্য একেবারে পানসে হয়েছিল। সেই ম্যাচও ২০ কোটি মানুষ দেখে বলে জানিয়েছে গণমাধ্যম নিয়ে গবেষণা করা প্রতিষ্ঠান বার্ক ইন্ডিয়া। ফাইনাল বলে কালকের ম্যাচের দর্শকসংখ্যা ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ পর্যন্ত বেড়ে প্রায় ৩০ কোটি হতে পারে বলে অনুমান বার্ক ইন্ডিয়ার। যদিও আসল সংখ্যাটা হতে পারে এর চেয়েও বেশি।
ভারতের অন্যান্য টিভি অনুষ্ঠানের জন্য সাধারণত গড়ে ১০ লাখ রুপি করে বিজ্ঞাপনের স্লট বিক্রি হয়। কিন্তু ভারত-পাকিস্তান ফাইনাল বলে কথা। এমনিতে এই ২ দলের লড়াই সে বছরের সব খেলা মিলেই টিভি দর্শকসংখ্যায় সাধারণত সেরা ৫-৬ এ থাকে। ফাইনাল বলে সেটির আগ্রহ বেড়ে যাচ্ছে কয়েক গুণ। বিজ্ঞাপন কেনাবেচায় জড়িত সংস্থাগুলো বলছে, কালকের ফাইনালের টিভি স্লটের ৯০ শতাংশ বিক্রি হয়ে গেছে ওই চড়া দামেই। এমনিতে আগে থেকেই নিশান মোটর, ইন্টেল কর্প, এমিরেটস এয়ারলাইনস, অপো মোবাইল ফোন, এমএআরএফ টায়ারের মতো বড় প্রতিষ্ঠানগুলো প্রি-বুকিং দিয়ে রেখেছিল বিজ্ঞাপনের।
পর্যবেক্ষকদের মতে, ভারত, পাকিস্তান ও বাংলাদেশের বিপুলসংখ্যক মানুষের মধ্যে এই ফাইনাল নিয়ে আগ্রহ আছে। এমনিতে ৩ দেশের মোট জনগোষ্ঠী পুরো পৃথিবীর জনসংখ্যার প্রায় ২২ শতাংশ। এছাড়া বাকি ক্রিকেট বিশ্বেও এ ম্যাচ নিয়ে কৌতূহল আছে। ২০১৫ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে যখন মুখোমুখি হয়েছিল এই ২ দল, সেটি এখন পর্যন্ত সর্বাধিক দর্শকের দেখা ক্রীড়া আয়োজনগুলোর তালিকায় ৬ এ আছে। এই তালিকায় আছে ২০১৪ বিশ্বকাপ ফাইনাল, ২০১২ অলিম্পিকে উসাইন বোল্টের ১০০ মিটার। এর থেকে জনপ্রিয়তা বোঝা যায় এই ম্যাচের। তাতে বাড়তি মসলার জোগান দিচ্ছে ম্যাচটা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল বলে।

পিডিএসও/মুস্তাফিজ