এসএ গেমসে ভুটানের কাছে জামালদের হার

প্রকাশ : ০২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১:২২ | আপডেট : ০২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১:৩৩

ক্রীড়া প্রতিবেদক

১৯৯৯ সালে দক্ষিণ এশিয়ান (এসএ) গেমসের অষ্টম আসরে ফুটবলে স্বর্ণপদক জিতেছিল বাংলাদেশ। ২০১০ সালে রৌপ্য জিতলেও গতবার পেয়েছিল ব্রোঞ্জ। দুই দশক পর এবার সোনার পদক ফিরে পাওয়ার মিশনে নেপালে পা রেখেছে ফুটবল দল। কিন্তু বাজে ফুটবল উপহার দিয়ে মিশনের শুরুতেই বড়সড় ধাক্কা খেল বাংলাদেশ।

কাঠমান্ডুর দশরথ রঙ্গসালা স্টেডিয়ামে সোমবার ভুটানের কাছে ১-০ গোলে হেরে গেছে জেমি ডের শিষ্যরা। গেমসের ইতিহাসে ভুটানের কাছে এটাই বাংলাদেশের প্রথম হার। রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতির এই প্রতিযোগিতায় কাল মঙ্গলবার মালদ্বীপের মুখোমুখি হবে দল।

ভুটানের কাছে এই হারটি একেবারেই অপ্রত্যাশিত। অনূর্ধ্ব-২৩ দলের মোড়কে প্রায় জাতীয় দল নিয়েই এসএ গেমসে অংশগ্রহণ করছে বাংলাদেশ। জাতীয় দলের নিয়মিত খেলোয়াড়দের নিয়ে গড়া একাদশটাই কাল মাঠে নামিয়েছিলেন জেমি ডে। অথচ ফুটবল দলের কাঠমান্ডু মিশন শুরু হলো হার দিয়ে। তাও আবার একেবারেই বাজে ফুটবল খেলে।

জামালদের খেলা দেখে কখনোই মনে হয়নি এই দলটার গায়ে ফেভারিটের তকমা। উল্টো ৬৫ মিনিটে একমাত্র গোল করে ম্যাচের মীমাংসা করে দিয়েছেন ভুটানিজ অধিনায়ক ও ফরওয়ার্ড চেনশো গেইলশেন। এই হারের পর বাংলাদেশের ফাইনাল খেলাটা কিছুটা শঙ্কার মধ্যেই পড়ে গেল।

ম্যাচের প্রথম ২০ মিনিটে বাংলাদেশ ছিল অপ্রতিরোধ্য। খেলোয়াড়রা কয়েকটি আক্রমণ করেছিলেন চোখ ধাঁধানো। এরপরই কেমন যেন মিইয়ে যায় দল। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ভুটানের আক্রমনগুলো ছিল উল্লেখ করার মতো। ৫২ মিনিটে চেনশো মিস করলেও ৬৫ মিনিটে আর ভুল করেননি।

বাংলাদেশি ডিফেন্ডারদের ইতস্তত ভাবকে কাজে লাগান তিনি। বল নিয়ে দ্রুত গতিতে ঢুকে পড়েন। এরপর বাঁ পায়ের আলতো চিপে বলকে জালে পাঠিয়ে সতীর্থদের সঙ্গে মেতে ওঠেন গোলের আনন্দে।

পিডিএসও/তাজ