করাচিতে ফিরেই জিতলো সরফরাজরা

প্রকাশ | ০১ অক্টোবর ২০১৯, ০৮:৩৮ | আপডেট: ০১ অক্টোবর ২০১৯, ১১:১২

ক্রীড়া ডেস্ক
৫ উইকেট পাওয়া উসমান শিনোয়ারিকে ঘিরে সরফরাজদের উচ্ছ্বাস

এক দশক পর করাচিতে ওয়ানডে প্রত্যাবর্তন আর কোচ মিসবাহর অভিষেক—দুটিই পাকিস্তান স্মরণীয় করে রাখল শ্রীলঙ্কাকে ৬৭ রানে হারিয়ে।

প্রথমে ব্যাটিং করে ৭ উইকেটে ৩০৫ রান তোলে পাকিস্তান। এরপর বোলিংয়েও শ্রীলঙ্কাকে চেপে ধরে সরফরাজের দল। ১১ ওভারে ২৮ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারায় সফরকারীরা। এই বিপর্যয়ের পর শিহান জয়াসুরিয়া ও দাসুন সানাকার দুর্দান্ত প্রতিরোধ। দুজন ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ১৭৭ রান তুলে শ্রীলঙ্কাকে জয়ের স্বপ্নও দেখিয়েছিলেন একটা সময়। উসমান শিনোয়ারির শিকার হয়ে শিহান ৯৬ রানে আউট হতেই যেন লঙ্কানদের সে স্বপ্নটা মুহূর্তেই মিলিয়ে যায় হাওয়ায়। অবশিষ্ট ৪ উইকেট হারিয়ে ৪৬.৫ ওভারে অলআউট ২৩৮ রানে।

শ্রীলঙ্কা প্রথম ৫ উইকেট হারিয়েছিল ২৮ রানে। শেষ ৫ উইকেট হারিয়েছে ৩৩ রানে। মাঝে শিহান-সানাকার ওই জুটি। এ জুটিতে দাসুনের অবদান ৬৮ রান। পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়া বাঁহাতি পেসার উসমান নিয়েছেন ৫১ রানে ৫ উইকেট।

লম্বা সময় পরে করাচিতে ফেরা ওয়ানডেতে দারুণ এক সেঞ্চুরি উপহার দিয়েছেন বাবর আজম। ১০৫ বলে ১১৫ রান করেছেন বাবর। তার একাদশ ওয়ানডে সেঞ্চুরিটি সাজানো ৮ চার ও ৪ ছক্কায়। দেশের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২৪ বছর বয়সী ব্যাটসম্যানের এটিই প্রথম সেঞ্চুরি। চার বছর পর পাকিস্তানের ওয়ানডে দলে ফেরা ইফতিখারের ২০ বলে ৩২ রানের ইনিংসেই মূলত ৩০০ পেরিয়েছে স্বাগতিকেরা। শেষ ৫ ওভারে পাকিস্তান তুলেছে ৫৪ রান, শেষ ওভারে ২০।

এর আগে ইমাম ও ফখরের উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৭৩ রান। ৩১ রানের ব্যবধানে দুজনের বিদায়ের পর সোহেলকে নিয়ে তৃতীয় উইকেটে ১১১ রান যোগ করেন বাবর। ৯৭ বলে সেঞ্চুরি পাওয়া বাবর ফিরেছেন ৪৬তম ওভারে।

পিডিএসও/হেলাল