ইতিহাস গড়লেন সৌম্য সরকার

প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ১৮:৪০

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বকাপের আগে সৌম্য সরকার জানিয়ে রাখলেন, তিনি প্রস্তুত। ৫০ ওভারের ক্রিকেটে বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। মঙ্গলবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) ঝড়ো ব্যাটিংয়ে নতুন করে লিখেছেন বাংলাদেশের লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটের বেশ কয়েকটি রেকর্ড।

আবাহনীর হয়ে আগের ম্যাচেও সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন সৌম্য। কিন্তু রানের ক্ষুধা তার মেটেনি। বিকেএসপিতে শেখ জামাল ধানমন্ডির বিপক্ষে হার না মানা ২০৮ রানের ইনিংস খেলে শুধু রেকর্ডই গড়লেন না তিনি, একই সঙ্গে নিশ্চিত করেন আবাহনীর প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা। শেখ জামালের ৯ উইকেটে করা ৩১৭ রান সৌম্যর ডাবলে আবাহনী ১ উইকেট হারিয়েই টপকে গেছে। সবমিলিয়ে সৌম্যর ইনিংসটি লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে ২৯তম ডাবল সেঞ্চুরির ঘটনা।

৫০ ওভারের ক্রিকেটে বাংলাদেশের আগের সর্বোচ্চ স্কোর ছিল রকিবুল হাসানের। এই ব্যাটসম্যান ১৯০ রানের ইনিংস খেলে একটুর জন্য মিস করেছিলেন লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিয়ান হওয়ার সুযোগ। সৌম্য সেই সুযোগটা নষ্ট করেননি। রকিবুলকে ছাড়িয়ে গিয়ে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে শুধু বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ইনিংসের মালিকই হলেন না, একই সঙ্গে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ৫০ ওভারের ক্রিকেটে পূরণ করলেন ডাবল সেঞ্চুরিও।

সৌম্যর শুরুটা ছিল ধীরগতির। হাফসেঞ্চুরি করতে তার লাগে ৫২ বল। তবে ফিফটির পরই গর্জে ওঠে তার ব্যাট। ৭৮ বলেই পূরণ করে ফেলেন সেঞ্চুরি। এরপর ১০৪ বলে ১৫০ পূরণ করা এই বাঁহাতি ওপেনার বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ৫০ ওভারের ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি করতে খেলেন ১৪৯ বল।

বয়সভিত্তিক ক্রিকেটেও সৌম্যর ডাবল সেঞ্চুরির নজির আছে। ২০১২ সালের অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপে কুয়ালালামপুরে কাতারের বিপক্ষে ১৩৫ বলে ২০৯ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তিনি।

১৫৩ বলের হার না মানা ঝড়ো ইনিংসটি সৌম্য সাজিয়েছেন ১৪ চার ও ১৬ ছক্কায়। বাংলাদেশের লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটের ইতিহাসে ছক্কার সংখ্যাতেও সৌম্য গড়েছেন নতুন রেকর্ড। ভেঙেছেন সাইফ হাসান ও মাশরাফি বিন মুর্তজার সঙ্গে যৌথভাবে নিজের গড়া ১১ ছক্কার রেকর্ড। সৌম্যর ১৬ ছক্কা লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেট ইতিহাসের তৃতীয় সর্বোচ্চ।

সৌম্যর ওপেনিং পার্টনার জহুরুল ইসলাম পেয়েছেন সেঞ্চুরি। ১০০ রানে তার আউট হওয়ার আগে তাদের উদ্বোধনী জুটি থেকে আবাহনী পায় ৩১২ রান, যা বাংলাদেশের লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটের সর্বোচ্চ ও প্রথম ৩০০ ছাড়ানো ওপেনিং জুটি।

২০০৭ সালে যে কোনও উইকেটে আগের সর্বোচ্চ ২৯০ রানের জুটির রেকর্ড ছিল চট্টগ্রাম বিভাগের মাহবুবুল করিম ও ধীমান ঘোষের। আর প্রথম উইকেটে আগের সর্বোচ্চ ২৩৬ রানের জুটির রেকর্ডটি ছিল আবাহনীর এনামুল হক বিজয় ও নাজমুল হোসেন শান্তর। ২০১৮ প্রিমিয়ার লিগের সুপার লিগে তারা গড়েছিলেন রেকর্ডটি।

পিডিএসও/রি.মা