মোস্তাফিজ জাদুতে অবিস্মরণীয় জয়

প্রকাশ : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০১:৫৪ | আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০২:১৭

অনলাইন ডেস্ক

শেষ ওভারে মোস্তাফিজ জাদুতে অবিস্মরণীয় জয় পেল বাংলাদেশ। রোববার এশিয়া কাপের সুপার ফোরের ম্যাচে আফগানিস্তানকে তিন রানে হারাল টাইগাররা। এই জয়ে মাশরাফিদের ফাইনাল খেলার আশা টিকে থাকল। আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে টাইগাররা।

বাংলাদেশের দেয়া ২৪৯ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে সাত উইকেটে ২৪৬ রান সংগ্রহ করে আফগানিস্তান। জয়ের জন্য শেষ ওভারে আফগানিস্তানের প্রয়োজন ছিল আট রান। তাদের হাতে ছিল চার উইকেট। এ সময় ব্যাটিংয়ে ছিলেন সামিউল্লাহ শেনওয়ারি ও রশিদ খান। আর বোলিংয়ে ছিলেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান।

ওভারের প্রথম বল থেকে দুই রান নেন রশিদ। দ্বিতীয় বলে মোস্তাফিজের হাতে ধরা পড়েন রশিদ। তৃতীয় বলে বাই সূত্রে এক রান নেন সামিউল্লাহ। চতুর্থ বলটি ডট হয়। পঞ্চম বল থেকে বাই সূত্রে এক রান নেন গুলবদিন নাইব। শেষ বলটি ডট হয়।

আফগানিস্তানের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে দুজন ব্যাটসম্যান হাফ সেঞ্চুরি করেন। ৫৩ রান করেন ওপেনার শাহজাদ। ৭১ রান করেন হাশমতউল্লাহ শহীদি। ২৮ বলে ৩৮ রান করেন মোহাম্মদ নবী। ১৯ বলে ২৩ রান করে অপরাজিত থাকেন সামিউল্লাহ। বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে মাশরাফি বিন মুর্তজা ২টি, মোস্তাফিজুর রহমান ২টি, সাকিব আল হাসান ১টি ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ১টি করে উইকেট শিকার করেন।

আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে এদিন আফগানিস্তান ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ২০ রানে প্রথম উইকেট হারায়। ইনিংসের পঞ্চম ওভারে নাজমুল হোসেন শান্তর হাতে ক্যাচ বানিয়ে ইহসানুল্লাহকে ফেরান মোস্তাফিজ। অষ্টম ওভারে রান আউট হন রহমত শাহ।

এরপর মোহাম্মদ শাহজাদ ও হাশমতউল্লাহ ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠার চেষ্টা করেন। এই জুটি ভাঙেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। প্রথমবার বোলিংয়ে এসেই উইকেট শিকার করেন তিনি। ইনিংসের ২৫তম ওভারে ভয়ঙ্কর শাহজাদকে বোল্ড করে সাজঘরে ফেরান। শাহজাদ করেন ৫৩ রান। ওয়ানডেতে এটি তার ১৩তম অর্ধশত।

ইনিংসের ৪০তম ওভারে মাহমুদউল্লাহর হাতে ক্যাচ বানিয়ে আফগান অধিনায়ক আসঘার আফগানকে ফেরান টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। আসঘার আফগান করেন ৩৯ রান। ৪৪তম ওভারে হাশমতউল্লাহকে বোল্ড করেন মাশরাফি। ৭১ রান করেন হাশমতউল্লাহ। ওয়ানডেতে এটি তার পঞ্চম অর্ধশত। ৪৯তম ওভারে সাকিব আল হাসানের বলে নাজমুল হোসেন শান্তর হাতে ক্যাচ হন নবী। ইনিংসের শেষ ওভারে মোস্তাফিজের হাতে ক্যাচ হন রশিদ।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে সাত উইকেটে ২৪৯ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। দলের পক্ষে মাহমুদউল্লাহ ৭৪ রান করেন। ওয়ানডে ক্রিকেটে এটি তার ২০তম অর্ধশত। ইমরুল কায়েস ৭২ রান করে অপরাজিত থাকেন। ওয়ানডেতে এটি তার ১৫তম অর্ধশত। অন্যদের মধ্যে লিটন দাস করেন ৪১ রান। ওয়ানডেতে এটি তার ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। ৩৩ রান করেন মুশফিকুর রহিম। আফগানিস্তানের বোলারদের মধ্যে মুজিব উর রহমান ১টি, আফতাব আলম ৩টি ও রশিদ ১টি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর—

ফল : তিন রানে জয়ী বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ইনিংস : ২৪৯/৭ (৫০ ওভার)

(লিটন দাস ৪১, নাজমুল হোসেন শান্ত ১, মোহাম্মদ মিথুন ৬, মুশফিকুর রহিম ৩৩, সাকিব আল হাসান ০, ইমরুল কায়েস ৭২*, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৭৪, মাশরাফি বিন মুর্তজা ১০, মেহেদী হাসান মিরাজ ৫*; আফতাব আলম ৩/৫৪, মুজিব উর রহমান ১/৩৫, গুলবদিন নাইব ০/৫৮, মোহাম্মদ নবী ০/৪৪, রশিদ খান ১/৪৬, সামিউল্লাহ শেনওয়ারি ০/৯)।

আফগানিস্তান ইনিংস : ২৪৬/৭ (৫০ ওভার)

(মোহাম্মদ শাহজাদ ৫৩, ইহসানুল্লাহ ৮, রহমত শাহ ১, হাশমতউল্লাহ শহীদি ৭১, আসঘার আফগান ৩৯, মোহাম্মদ নবী ৩৮, সামিউল্লাহ শেনওয়ারি ২৩*, রশিদ খান ৫, গুলবদিন নাইব ০*; মাশরাফি বিন মুর্তজা ২/৬২, নাজমুল ইসলাম অপু ০/২৯, মোস্তাফিজুর রহমান ২/৪৪, মেহেদী হাসান মিরাজ ০/৩৬, সাকিব আল হাসান ১/৫৫, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ১/১৭)।

প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ : মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (বাংলাদেশ)

পিডিএসও/হেলাল