ভিয়েতনামকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

প্রকাশ : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:৪৪ | আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:২৪

অনলাইন ডেস্ক

এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইপর্বে ‘এফ’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে ভিয়েতনামকে ৩-০ গোলে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়া, ইরান, লাওস ও মিয়ানমারের সঙ্গে দ্বিতীয় রাউন্ডে নাম লিখিয়েছে বাংলাদেশ। আগামী বছরের ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ৩ মার্চ হবে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইপর্বের দ্বিতীয় রাউন্ড।

ভিয়েতনাম এই ম্যাচে হেরে গেলেও সেরা রানার্স-আপ হিসেবে পরের রাউন্ডে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে তাদের সামনে। সেক্ষেত্রে তাদেরকে সেরা দুই রানার্স-আপ দলের মধ্যে থাকতে হবে।

এএফসির বাছাইপর্বের ‘এফ’ গ্রুপের ফেবারিট ছিল বাংলাদেশ। সেটা যেমন ঘরের মাঠে খেলা বলে, তেমনি র‌্যাঙ্কিংয়েও। কিন্তু বাংলাদেশের জন্য কঠিন প্রতিপক্ষ হয়ে দাঁড়ায় ভিয়েতনাম। বাংলাদেশ সমান জয়, সমান পয়েন্ট এমনকী সমান গোল ব্যবধান নিয়ে এই গ্রুপে চ্যালেঞ্জের মুখে ঠেলে দেয় মারিয়া-শামসুন্নাহারদের। তাই রোববার ভিয়েতনামের বিপক্ষে এই গ্রুপে বাংলাদেশের শেষ ম্যাচটি অঘোষিত ফাইনালে রূপ নেয়। বাংলাদেশকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেও আজ পাত্তা পায়নি ভিয়েতনামের মেয়েরা। বাংলাদেশের আক্রমণাত্মক ফুটবলের মুখে শুরুতেই ভড়কে যায় তারা। ভিয়েতনামের ওপর প্রভাব বিস্তার করে খেলে ৩-০ ব্যবধানে জয় তুলে নিয়েছে।

কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে ম্যাচের ৩৭ মিনিটেই ভিয়েতনামের জালের নাগাল পেয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু অফসাইটের কারণে গোলটি বাতিল করে। কিন্তু প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে ভিয়েতনামের গোলরক্ষকের ভুলে তহুরার করা গোলটি এগিয়ে দেয় বাংলাদেশকে। তার গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় গোলাম রাব্বানী ছোটনের শিষ্যরা।

বিরতির পর ম্যাচের ৬৩ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে বাংলাদেশ। এ সময় কর্নার পায় স্বাগতিকরা। কর্নার কিক থেকে অধিনায়ক মারিয়া মান্ডার উড়িয়ে মারা বল পেনাল্টি বক্সের মধ্যে লাফিয়ে উঠে হেড নেন শামসুন্নাহার জুনিয়র। কিন্তু বলটি সেকেন্ড বারে লেগে ফিরে আসে। তার ফিরতি বলে শট নেন আঁখি খাতুন। এবার ভিয়েতনামের গোলরক্ষকের গায়ে লেগে ফিরে আসে। ফিরতি বলে আবার শট নেন আঁখি। এবার আর কেউ সেটাকে রুখতে পারেনি। বল তার গন্তব্যে চলে যায়। আঁখি খাতুন খুশিতে সেখানেই শুয়ে পড়েন। সতীর্থরা তাকে ঘিরে ধরে উল্লাস করতে থাকে। বাকি সময়ে অবশ্য আর কোনো গোল হয়নি। গোলের প্রয়োজন হয়নি বাংলাদেশের। এই জয়ের ফলে চার ম্যাচের চারটিতেই জিতে পূর্ণ ১২ পয়েন্ট ও ২৭ গোল গড় নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ। অন্যদিকে ২৩ গোল গড় ও ৯ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ রানার্স-আপ হয়েছে ভিয়েতনাম। বিদায় নিয়েছে লেবানন, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন।

পিডিএসও/হেলাল