তামিমের এশিয়া কাপ শেষ

প্রকাশ : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:৪৮

অনলাইন ডেস্ক

হাতে চোট পাওয়ায় তামিম ইকবালকে মাঠ ছাড়তে হয়েছে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই। মাঠ ছেড়ে ড্রেসিংরুমেও থাকতে পারেননি বাঁহাতি এই ওপেনার। মাঠের পর ড্রেসিংরুম ছেড়ে দেশসেরা এই ওপেনারকে যেতে হয় হাসপাতাল পর্যন্ত। কিন্তু সেখান থেকে ফিরতে হলো দুঃসংবাদ সঙ্গী করে।

কবজির চোটের কারণে এশিয়া কাপ থেকেই ছিটকে পড়েছেন তামিম। এক্স-রে রিপোর্টে তামিমের বাম কবজিতে চিড় ধরা পড়েছে। ফলে কমপক্ষে ছয় সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হবে জাতীয় দলের ড্যাশিং ওপেনারকে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নুর বরাত দিয়ে এমন তথ্যই জানিয়েছে ক্রিকেটবিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো। এর আগে দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এশিয়া কাপে উদ্বোধনী ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ব্যাট করতে নেমে চোটের শিকার হন তামিম। 

এর আগে প্রস্তুতি ক্যাম্প চলাকালে আঙুলে চোট পেয়েছিলেন তামিম। ডান হাতের অনামিকায় ধরা পড়ে চিড়। আঙুলের এই চোট পুরোপুরি সেরে ওঠার আগেই এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে মাঠে নামেন বাঁহাতি এই ওপেনার। কিন্তু এবার বাম হাতে নতুন করে চোট পাওয়ায় ছিটকে যেতে হলো টুর্নামেন্ট থেকেই। 

আঙুলের চোট পুরোপুরি সেরে ওঠার আগে মাঠে নামায় শুরু থেকে তামিমকে নিয়ে খানিকটা শঙ্কা ছিল। দুর্ভাগ্যজনকভাবে সেই শঙ্কা সত্যি হলো দ্বিতীয় ওভারেই। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলেই হাতে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয় দেশসেরা এই ওপেনারকে।

দ্বিতীয় ওভারে সুরঙ্গ লাকমালের করা শেষ বলটি গ্লাভসে লাগলে মাঠ ছাড়তে হয় তামিমকে। লাকমলের বাউন্সে পুল করতে চেয়েছিলেন তামিম। কিন্তু ব্যাটে-বলে সংযোগ না হওয়ায় বলটি লাগে বাঁহাতি এই ওপেনারের গ্লাভসে।

তামিমের চোখে-মুখে ফুটে ওঠে যন্ত্রণার ছাপ। সাথে সাথে মাঠে ছুটে আসেন ফিজিও। মাঠে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হলেও অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় ব্যথা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে। এরপর দুবাইয়ে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ইতোমধ্যে তামিমের হাতের স্ক্যান করা হয়।

কিন্তু ইনিংসের শেষ সময়ে আবারও খেলায় ফিরলেন তামিম। একহাতে ব্যাট নিয়ে মুশফিককে সঙ্গ দিলেন। 

পিডিএসও/রিহাব