উয়েফার মঞ্চে রেশমিন সৌরভ

প্রকাশ : ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৪:৪৯ | আপডেট : ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:০৪

ক্রীড়া ডেস্ক

জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের ২০১৮-১৯ মৌসুমের ড্র অনুষ্ঠান। ফ্রান্সের মোনাকো এইদিন মুখর ছিল ফুটবলের রথী-মহারথীদের পদচারণায়। তবে এই অনুষ্ঠানটির সঙ্গে জড়িয়ে আছে বাংলাদেশের নামও। গতবারের মতো এবারও উয়েফা পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সঞ্চালকের দায়িত্বে ছিলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ সাংবাদিক রেশমিন চৌধুরী।

পরশু রেশমিন চৌধুরী ঘোষণা করলেন উয়েফার বর্ষ সেরা খেলোয়াড়ের নাম। সেই নাম শুনে উঠে এলেন ২০১৭-১৮ মৌসুমের বর্ষ সেরা খেলোয়াড় লুকা মডরিচ। ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডারের হাতে মুচকি হেসে পুরস্কার তুলে দেন রেশমিন। গত বছর তিনি একই পুরস্কারটি তুলে দিয়েছিলেন পর্তুগিজ উইঙ্গার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর হাতে।

১৬ ডিসেম্বর ১৯৭৭ সালে জন্ম নেওয়া ৪০ বছর বয়সী রেশমিনের জন্ম লন্ডনে। লন্ডনেই বেড়ে উঠেছেন বাঙালি মুসলিম পরিবারে জন্ম নেওয়া রেশমিন। ইউনিভার্সিটি অফ বাথ থেকে স্নাতক ডিগ্রি শেষ করার পর তিনি ডিপ্লোমা করেন নিউজপেপার জার্নালিজমের ওপর। এ ছাড়া তিনি পলিটিকস উইথ ইকোনমিকসের ওপরও ডিগ্রি নিয়েছেন। বর্তমানে তিনি বিবিসি এবং বিটি স্পোর্টের সাংবাদিক হিসেবে কর্মরত আছেন। সাংবাদিকতা ছাড়াও তিনি জড়িত মিউজিকের সঙ্গে। কাজ করেছেন বিখ্যাত মিউজিশিয়ান নিতিন শয়েনির সঙ্গে। ২০০৬ সালে দ্য নেমশেক নামে এক ব্রিটিশ সিনেমাতে তার একটি গানও প্রকাশিত হয়।

চ্যাম্পিয়নস লিগ ছাড়া ইউরোপা লিগের ড্র অনুষ্ঠানেও সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেছেন রেশমিন। স্পোর্টস সাংবাদিক হিসেবে তিনি নিজের প্রথম কর্মজীবন শুরু করেন বিবিসিতে। এরপর ২০১৪ সালের আগস্টে যোগ দেন বিটি স্পোর্টে। এ ছাড়া তিনি কাজ করেছেন রিয়াল মাদ্রিদ টিভিতে। ২০০৮ সেপ্টেম্বরে যোগ দেওয়ার পর তিনি এই টিভিতে কাজ করেছেন ২ বছর। রেশমিনই প্রথম সাংবাদিক যিনি রেকর্ড ট্রান্সফার ফিতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছেড়ে রিয়াল মাদ্রিদে যাওয়ার সময় ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর সাক্ষাৎকার নিয়েছিলেন। রেশমিন বিশ্বের প্রধান ৪টি ভাষায় কথা বলতে পারেন। জন্ম লন্ডনে হলেও ইংরেজির পাশাপাশি তিনি স্বতঃস্ফূর্তভাবে কথা বলেন বাংলা, স্প্যানিশ ও ফ্রেঞ্চ ভাষায়।

এক নজরে উয়েফা পুরস্কার

বর্ষ সেরা ফুটবলার : লুকা মডরিচ (রিয়াল মাদ্রিদ), 

বর্ষ সেরা নারী ফুটবলার : পার্নিল হার্ডার (ভলফসবুর্গ, ডেনমার্ক)

বর্ষ সেরা ফরওয়ার্ড : ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো (জুভেন্টাস, রিয়াল মাদ্রিদ)

বর্ষ সেরা মিডফিল্ডার : লুকা মডরিচ (রিয়াল মাদ্রিদ)

বর্ষ সেরা ডিফেন্ডার : সার্জিও রামোস (রিয়াল মাদ্রিদ)

বর্ষ সেরা গোলরক্ষক : কেইলর নাভাস (রিয়াল মাদ্রিদ)

বর্ষ সেরা গোল : ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো (জুভেন্টাস, রিয়াল মাদ্রিদ)

উয়েফা প্রেসিডেন্ট অ্যাওয়ার্ড (সম্মাননা) ডেভিড বেকহ্যাম

পিডিএসও/তাজ