অনূর্ধ্ব-১৫ সাফ ফুটবল ফাইনাল

দুর্বার কিশোরীদের সামনে ভারত

প্রকাশ : ১৮ আগস্ট ২০১৮, ১৭:২১

ক্রীড়া প্রতিবেদক

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ ফুটবল টুর্নামেন্টে বীরদর্পে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ দল। আঁখি-মারিয়াদের জয়রাথ ছুটছেই। অপ্রতিরোধ্য, দুর্বার কিশোরিদের সামনে যে এসেছে খড়কুটোর মতো উড়ে গেছে। ভুটানের মাটিতে পতপত করে উড়ছে বাংলাদেশের লাল-সবুজ পতাকা।

তিন ম্যাচে ২২ গোল দিয়ে ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। মারিয়া-আঁখিদের সামনে এখন শ্রেষ্ঠত্ব অক্ষুণ্ন রাখার সুযোগ। জিতলেই দ্বিতীয় শিরোপা ঘরে তুলবেন অদম্য কিশোরীরা। এ যাত্রায় বাংলাদেশের সামনে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে সেই ভারত, যাদের শেষ আসরে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল গোলাম রব্বানী ছোটনের দল।

আজ চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামেও ইতিহাসের পুনরাবৃত্তির কথা ভাবছে বাংলাদেশ। তবে প্রতিশোধের বিকল্প ভাবছে না ভারতের মেয়েরা। বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হবে দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবলের জায়ান্ট দল দুটি।

এক বছরও হয়নি। গত বছরের ডিসেম্বরে ঢাকার কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে ভারতের মেয়েদের ১-০ গোলে হারিয়ে প্রথম সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবলের চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশের মেয়েরা। ভারতকে হারানোর সেই স্মৃতিটা এখনো তরতাজা। ৮ মাস পর আবারো ওই চ্যাম্পিয়নশিপের ট্রফি ধরে রাখার শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের ভারত পরীক্ষা।

গতবছর সাফ শিরোপা জয়। তারপর থেকে আবার টানা অনুশীলন। এর মাঝে দেশের বাইরে কন্ডিশনিং ক্যাম্প। হংকংয়ের চারজাতির টুর্নামেন্টে অংশ নিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন মারিয়া, তহুরা, মনিকা, শামসুন্নাহাররা। কোনো বড় টুর্নামেন্টের আগে এর চাইতে ভালো প্রস্তুতি আর নিতে পারতেন না ছোটনের ছাত্রীরা। মেয়েদের টুর্নামেন্টের জন্য প্রস্তুত করতে সর্বোচ্চটাই দিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)।

বাফুফের সে চেষ্টার প্রতিদান মাঠে মারিয়া-তহুরারা দিয়ে আসছেন। ম্যাচের পর ম্যাচ কিশোরীদের নৈপুণ্য জয় করেছে কোটি মানুষের মন। ‘শেষ ভাল যার সব ভাল তার’ এই প্রবাদটির সার্থকতা বজায় রাখতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন মারিয়ারা। আর শেষটা ভারতের বিরুদ্ধে ফাইনাল। জিতলে নারী ফুটবলের ইতিহাস ঐতিহ্যে অনেক এগিয়ে থাকা ভারতকে টানা তিনবার হারানো হবে। বাংলাদেশ ধরে রাখবে দক্ষিণ এশিয়ার মেয়েদের ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্ব।

বাংলাদেশের ক্রীড়াপ্রেমীদের জল্পনা-কল্পনার যেন শেষ নেই। এই টুর্নামেন্টে কিশোরীদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে তিন ম্যাচে উড়িয়ে দিয়েছেন প্রতিপক্ষকে। তাতে ভারতের বিপক্ষে ফাইনালে বাংলাদেশই ফেভারিট। ঢাকার কমলাপুরের পর ভুটানের থিম্পুতেও বাংলাদেশের মেয়েরা জয়ের নিশান উড়াবে, প্রত্যাশা পারদটা উধ্বমূখী।

আজ ফাইনাল জিতে শিরোপা ধরে রাখতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ বাংলাদেশ। কাল অনুশীলনে তাই বল ছুঁয়ে সেই প্রতিজ্ঞাই করেছেন মারিয়া-তহুরারা। সবার মুখেই ছিল এক কথা, ‘আমাদের আসল পরীক্ষা দিতে হবে ফাইনালে। সে পরীক্ষায় পাশ করতেই হবে। ঝড়ের গতিতে এতদূর এসে থামা যাবে না। ট্রফি হাতে আছে, হাতেই রাখতে হবে। জাতিকে উপহার দিতে হবে আরেকটি বিজয়ের আনন্দ।’

পিডিএসও/তাজ