সামুরাইদের সামনে কালো ঘোড়া

প্রকাশ : ০২ জুলাই ২০১৮, ১৬:২২

অনলাইন ডেস্ক

রাশিয়া বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট দল বেলজিয়াম। বিশ্বকাপের আসরে অতীতে তেমন বড় সাফল্য না পেলেও বর্তমানে বেলজিয়ামকে নিয়ে আশাবাদী সবাই। গত আসর থেকে ‘কালো ঘোড়া’র তকমা নিয়ে বিশ্বকাপ খেলছে দলটি। এবারও গ্রুপ পর্বে ৯ পয়েন্ট আদায় করে নিয়ে আশাটা জাগিয়ে রেখেছে রবার্তো মার্টিনেজের শিষ্যরা।

এরই মধ্যে করে ফেলেছে আসরের সর্বোচ্চ ৯ গোল। গত বিশ্বকাপেও কোয়ার্টার ফাইনাল খেলেছে দলটি। এবারও সেই পথের দিকে পা বাড়ানোর পথে রেড ডেভিলরা। শেষ আটে যাওয়ার লড়াইয়ে রোস্তভ অ্যারেনায় আজ রাতে তারা মুখোমুখি হবে এশিয়ার প্রতিনিধি জাপানের বিপক্ষে।

সেই ১৯৮৬ বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল খেলেছিল বেলজিয়াম। দীর্ঘ ৩২ বছর পর আরেকটি সোনালি প্রজন্ম পেয়েছে দেশটি। বর্তমান দলের অধিকাংশ ফুটবলার খেলেন ইউরোপের অন্যতম সেরা ক্লাবগুলোতে। ইডেন হ্যাজার্ড, কেভিন ডি ব্রুইন, রোমেলু লুকাকো, মারউইন ফেলাইনি, ভিনসেন্ট কোম্পানিদের চিনে না এমন কোনো ফুটবলপ্রেমী পাওয়া মুশকিল। দলের অধিকাংশ খেলোয়াড়দের আছে বড় মঞ্চে খেলার অভিজ্ঞতা।

অন্যদিকে এশিয়ার পরাশক্তি জাপান নকআউট পর্বে উঠেছে অনেকটা ভাগ্যের জোরে। ‘এইচ’ গ্রুপে সেনেগালের সমান ৪ পয়েন্ট ছিল ব্লু সামুরাইদের। কিন্তু ফেয়ার প্লে-র বদৌলতে শেষ ষোলোর টিকিট পায় জাপান। তবে আজ সেই অতীত ভুলে নতুন উদ্যমে মাঠে নামতে চায় আকিরা নিশিনোর শিষ্যরা। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে পোল্যান্ডের বিপক্ষে ১-০ গোলে পরাজয় বরণ করেছিল জাপান। ম্যাচটি ঝুঁকিপূর্ণ কৌশল গ্রহণ করার জন্য সমালোচিত হয়েছিলেন নিশিনো।

তবে এবার নতুন কৌশলে তিনি দল নামাবেন বেলজিয়ামের বিপক্ষে। এই ম্যাচেও কোচ নিশিনোকে আস্থা রাখতে হচ্ছে দলের অভিজ্ঞ মিডফিল্ডার কেইসুকে হোন্ডা ও শিনজি কাগাওয়ার ওপর। তবে লড়াইয়ের আগে বেলজিয়ামকে ফেভারিট হিসেবে মানছেন নিশিনো নিজেই। প্রতিপক্ষের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘তারা (বেলজিয়াম) অত্যন্ত প্রতিযোগী দল। তারা কাউন্টার অ্যাটাকে অত্যন্ত শক্ত।’

গত ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১-০ গোলের জয় পেলেও সমালোচিত হয়েছেন মার্টিনেজ। দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করায় বিশ্রামে দিয়েছিলেন মূল একাদশের ৯ খেলোয়াড়কে। তবে এবার জাপানের বিপক্ষে পূর্ণশক্তির দল মাঠে নামাবেন তিনি। দলে ফিরে পেয়েছেন অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার কোম্পানিকে। চোটের কারণে গত তিন ম্যাচে মাঠে নামতে পারেননি এই ম্যানচেস্টার সিটি ফুটবলার। সেই সঙ্গে চোট কাটিয়ে আজ মাঠে ফিরবেন লুকাকো। গত দুই ম্যাচে ৪ গোল করে সর্বোচ্চ গোলদাতাদের দ্বিতীয় স্থানে আছেন এই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ফরওয়ার্ড। আজকের ম্যাচেও জয়ের জন্য তার দিকে তাকিয়ে থাকবে দল। এছাড়া স্পটলাইটটা নিজের দিকে ঘুরিয়ে নেওয়ার তাগিদে থাকবেন অধিনায়ক হ্যাজার্ড, ডি ব্রুইন। বেলজিয়াম তাদের শেষ ২২ আন্তর্জাতিক ম্যাচে একটিতে হারেনি। দেখার বিষয়, আজকে সেই জয়ের ধারাটা অব্যাহত রাখতে পারেন কিনা।

রাশিয়া বিশ্বকাপের আগে দুই দল মুখোমুখি হয়েছে পাঁচবার। তবে লড়াইয়ে এগিয়ে আছে জাপান। দুই ম্যাচ জয় ও দুই ম্যাচ ড্র করেছে এশিয়ার দলটি। আর এক ম্যাচ জিতেছে বেলজিয়াম। এর আগে বিশ্বকাপে দুই দল মুখোমুখি হয়েছে দুই দল। ২০০২ সালে স্বাগতিক জাপানের বিপক্ষের ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র করেছিল ফুটবলের নতুন পরাশক্তির দল বেলজিয়াম।

পিডিএসও/তাজ