‘অপারেশন সাকসেসফুল’

প্রকাশ : ০৯ জুন ২০১৮, ১১:২৪

অনলাইন ডেস্ক

মার্চে নিদাহাস ট্রফির পরবর্তী সময় থেকেই হাঁটুর ইনজুরিতে ভুগছিলেন নাসির হোসেন। দেশের চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন হাঁটুতে অস্ত্রোপচার করাতে হবে বাংলাদেশ জাতীয় দলের এই ক্রিকেটারকে। টাইগারদের বড় ধরনের শারীরিক সমস্যার জন্য নির্ভরতার অপর নাম ডেভিড ইয়ং। আর অস্ট্রেলিয়ান এই চিকিৎসকের কাছেই সম্পন্ন হয়েছে নাসিরের অস্ত্রোপচার। 
শুক্রবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় (বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টায়) নাসিরের অস্ত্রপচার করেন ডা. ইয়ং। এর আগে গেলো ২৮ মে অস্ট্রেলিয়ার সিডনীর উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়ে যান এই ২৫ বছর বয়সী এই তারকা।

অস্ত্রপচারের পর সুস্থই আছেন এই অলরাউন্ডার। বিষয়টি নিজেই জানিয়েছেন। নিজ ফেসবুকে ভক্তদের উদ্দেশ্যে হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে ছবিসহ পোস্ট দিয়েছেন।
এতে তিনি বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ্‌, আপনাদের সবার দোয়াতে অপারেশন সাকসেসফুল।’  
নাসিরের পরিবারের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানায়, সফল অস্ত্রপচার হলেও দীর্ঘ দিনের জন্য ক্রিকেট থেকে দূরে থাকতে হবে নাসিরকে। অস্ত্রোপচারের পরে তার মাঠে ফিরতে সময় লাগবে প্রায় ৬ মাসের মতো। 

চলতি মৌসুমে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেটের লিগের (ডিপিডিসিএল) হয়ে খেলেন নাসির। আবাহনী লিমিটেডের অধিনায়ক হিসেবে শিরোপা লাভের পর সিরাজগঞ্জ যান। বন্ধুর বিয়েতে শখের বসে ফুটবল খেলতে নামেন নাসির। আর তাতেই বিপত্তি। 

খেলার একপর্যায়ে মাঠে পড়ে গিয়ে ডান পায়ের হাঁটুতে আঘাত পান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর থেকে ঢাকা ফিরেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরীকে দেখান। তার পরামর্শ অনুযায়ী এমআরআই করলে হাঁটুতে চিড় ধরা পড়ে নাসিরের। বিসিবির সহায়তায়ই নাসিরকে অস্ট্রেলিয়ায় পাঠানো হয়।

পিডিএসও/রিহাব