ইসরায়েলের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার ম্যাচ বাতিল

প্রকাশ : ০৬ জুন ২০১৮, ০৮:২৩ | আপডেট : ০৬ জুন ২০১৮, ১৯:৩৯

অনলাইন ডেস্ক
ama ami

আর্জেন্টিনা বনাম ইসরায়েলের মধ্যকার প্রীতি ম্যাচটি বাতিল করা হয়েছে। আর্জেন্টিনা ফুটবল দলের আপত্তির কারণে ম্যাচটি বাতিল হয়েছে। ৯ জুন জেরুজালেমের টেডি স্টেডিয়ামে ইসরায়েল ও আর্জেন্টিনার প্রীতি ফুটবল ম্যাচটি হওয়ার কথা ছিল। টেডি স্টেডিয়ামটি যে ভূমিতে নির্মাণ করা হয়েছে একসময় সেখানে একটি ফিলিস্তিনি গ্রাম ছিল। ১৯৪৮ সালে ইসরায়েল গ্রামটি দখল করে ধ্বংস করে দেয়।

এদিকে প্যালেস্টাইনের চাপে ম্যাচটি বাতিল করার কথাও শোনা যাচ্ছে। তবে ম্যাচটি যে আর্জেন্টিনা বাতিল করেছে সর্বপ্রথম নিশ্চিত করে প্যালেস্টাইনই। প্যালেস্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন আর্জেন্টিনাকে অনুরোধ করেছিল, তারা যেন মানবতার খাতিরে ইসরায়েলে খেলতে না যায়। ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে ইসরায়েলের বিপক্ষে ফুটবল ম্যাচটি বাতিল করে দিয়েছে আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (এএফএ)। তবে প্যালেস্টাইন চাপ প্রয়োগ করেছে কিনা তা স্পষ্ট কোথাও জানায়নি।

বিশ্বকাপের আগে এটি ছিল আর্জেন্টিনার শেষ প্রস্তুতি ম্যাচ।  ম্যাচটিকে ঘিরে উত্তেজনা তৈরি হয় অনেক আগে থেকে। খেলাটি দেখার জন্য ৬ লাখ মানুষ আগ্রহ প্রকাশ করে টিকিট কেনার জন্য, যেখানে স্টেডিয়ামটির ধারণ ক্ষমতা মাত্র ৩১ হাজার ৭৩৩ জন। আর্জেন্টাইন বস জর্জ সাম্পাওলি এখন বার্সেলোনায় দলকে আরেকটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলাতে পারেন। তবে কাদের বিপক্ষে মেসিরা খেলবেন তা এখনও চূড়ান্ত হয়নি।  

প্যালেস্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (পিএফএ) সভাপতি জিবরিল রাজৌব বলেছেন, মেসি হচ্ছেন শান্তি এবং ভালোবাসার প্রতীক। আমরা তাকে ভুল কোনো পথে পা বাড়াত মানা করেছিলাম। মেসির দশ মিলিয়ন ভক্ত এ আরব এবং মুসলিম দেশে রয়েছে।

পিডিএসও/হেলাল