অব্যাহত দরপতন

ডিএসইর সামনে বিনিয়োগকারীদের প্রতীকী গণঅনশন

প্রকাশ : ২৯ এপ্রিল ২০১৯, ১৯:০১ | আপডেট : ২৯ এপ্রিল ২০১৯, ২০:৪২

অনলাইন ডেস্ক

পুঁজিবাজারের অব্যাহত দরপতন ঠেকাতে ও স্থিতিশীল করার দাবিতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সামনে প্রতীকী গণঅনশন করেছেন বিনিয়োগকারীরা।

সোমবার বেলা ১১টা থেকে ওই প্রতীকী গণঅনশন শুরু হলেও বেলা ২টার পরে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সামনে উপস্থিত হয়ে বিনিয়োগকারীদের গণঅনশনের প্রতি সংহতি প্রকাশ করেন ঢাকা-৮ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন। পরে তাদের জুস খাইয়ে অনশন ভাঙানো হয়।

সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান ড. খায়রুল হোসেনসহ সব ‘দুর্নীতিবাজ’ কর্মকর্তাদের পদত্যাগ, যে সমস্ত কোম্পানি পুঁজিবাজার থেকে মূলধন সংগ্রহ করেছে এবং করবে ওইসব কোম্পানিকে বাধ্যতামূলকভাবে ন্যূনতম ১০ শতাংশ ডিভিডেন্ড প্রদান, জেড ক্যাটাগরি এবং ওটিসি মার্কেট বলতে কোনো মার্কেট থাকতে পারবে না, দুর্বল কোম্পানির আইপিও প্লেসমেন্ট শেয়ারের অবৈধ বাণিজ্য বন্ধ করাসহ ১২ দফা দাবি জানানো হবে এ অনশনে।

লেনদেনে মন্দা ও দরপতনে বিনিয়োগকারীর আস্থা হারাচ্ছে পুঁজিবাজার। একের পর এক দুর্বল আইপিও ঢাকার পুঁজিবাজারে ব্যাপক দরপতনের মূল কারণ বলছেন বিনিয়োগকারীরা। দর ধরে রাখতে না পারায় এই বাজারে আইপিও আপাতত বন্ধ রাখার পরামর্শ বিশ্লেষকদের।

প্রসঙ্গত, ২৪ জানুয়ারি ঢাকার পুঁজিবাজারের প্রধান সূচক ছিল ৫ হাজার ৯৫০ পয়েন্ট। গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে এসে তা ঠেকেছে ৫ হাজার ৩২১ পয়েন্টে। কমেছে ৬২৯ পয়েন্ট। ২৪ জানুয়ারি লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৩৭ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। অথচ শেষ কার্যদিবসে লেনদেন ৩৫২ কোটি ১৩ লাখ টাকা। কমেছে ৬৮৫ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। বাজারে নতুন আইপিওগুলোর দর কমছে আশঙ্কাজনকভাবে। যে কারণে এমন দরপতন বলছেন বিনিয়োগকারীরা।

পিডিএসও/তাজ