বিকাশ-রকেটে ব্যালেন্স জানতে গ্রাহকের টাকা কাটবে না

প্রকাশ : ১৮ জুন ২০১৯, ২০:০৮ | আপডেট : ১৮ জুন ২০১৯, ২২:১০

অনলাইন ডেস্ক

দেশের মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস (এমএফএস) বিকাশ, রকেট, নগদসহ সব অ্যাকাউন্টের ব্যালেন্স জানতে গ্রাহককে কোনো টাকা গুনতে হবে না। এই টাকা দিতে হবে সংশ্লিষ্ট অপারেটরকে।

মোবাইলে আর্থিক লেনদেনে নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী গ্রাহক কোনোভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত হবেন না। এছাড়া গ্রাহকদের ওপর নতুন করে চার্জ আরোপের কোনো সুযোগ নেই বলেও জানিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

মঙ্গলবার এক বিজ্ঞপ্তিতে বিটিআরসি জানিয়েছে, মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে বিটিআরসি থেকে মোবাইল অপারেটরদের বিভিন্ন সময় নানা নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, যা সমন্বিতভাবে একযোগে প্রকাশের প্রয়োজনীয়তা অনেক দিন থেকেই প্রয়োজন ছিল।

এর আগে গত রোববার ব্যালেন্স জানতে ৪০ পয়সা খরচ করতে হবে সংশ্লিষ্ট অপারেটরদের— এমন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছিল।

এরই অংশ হিসেবে গত ১৩ জুন ২০১৯ Directives on Mobile financial Services in Bangladesh 2019 জারি করা হয়, যা গত আগস্ট ২০১৮ থেকে ওই দিন পর্যন্ত কমিশন থেকে জারিকৃত সব নির্দেশনার একটি সংকলন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, গত ১৪ আগস্ট মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসের জন্য Session Based USSD Pricing প্রসঙ্গে বিটিআরসি (কমিশন) থেকে Successful Revenue Generating Transaction ও Successful Non-Revenue Generating Transaction এর প্রতিটি সেশনের জন্য মূল্য নির্ধারণ করে একটি নির্দেশনা জারি করা হয়েছিল, যা মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস অপারেটররা গত ১০ মাস থেকে নেটওয়ার্ক অপারেটরদের প্রদান করছে। মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস অপারেটর এবং মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরদের প্রতিনিধিদের সমঝোতার ভিত্তিতেই ওই মূল্য নির্ধারণ করা হয়।

বিটিআরসি জানিয়েছে, Successful Revenue Generating Transaction হলো সে সব ট্রানজেকশন, যেখানে মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস অপারেটরদের রেভিনিউ জেনারেট হয় (যেমন- ক্যাশ আউট, ক্যাশ ইন প্রভৃতি) ও Successful Non-Revenue Generating Transaction হলো সে সব ট্রানজেকশন যেখানে মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস অপারেটরদের রেভিনিউ জেনারেট হয় না (যেমন- ব্যালান্স চেক, পিন নম্বর পরিবর্তন প্রভৃতি)। উভয়ক্ষেত্রে আরোপিত প্রতি সেশনের মূল্য মোবাইল অপারেটরদের নেটওয়ার্ক ব্যবহার করার জন্য মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস অপারেটরদের ওপর প্রযোজ্য হচ্ছে।

পিডিএসও/তাজ