শ্রেষ্ঠ উদ্ভাবক পুরস্কার পেলেন ৩ নারী

প্রকাশ : ০৬ নভেম্বর ২০১৮, ১৪:৫৪

অনলাইন ডেস্ক

উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প প্রতিযোগিতায় জাতীয় সমস্যা সমাধানে এবার ৩ নারীর পৃথক ৩টি উদ্ভাবনী প্রকল্পকে শ্রেষ্ঠ ঘোষণা করা হয়েছে।

লিপি খাতুনের উইমেন হোম, তানজিলা ইসলামের আমাদের শিশু আমাদের গর্ব এবং আফরোজা আহমেদের বিশ্ববিদ্যালয় কাউন্সিলিং ও মানসিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন প্রকল্প সেরা বলে বিবেচিত হয়েছে বিচারকদের কাছে। এ বছর ‘জাতীয় সমস্যা সমাধানে নারীর উদ্ভাবন’— এ স্লোগানকে সামনে রেখে মহিলা ও শিশুবিষয়ক
মন্ত্রণালয় এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রতিযোগিতাটির আয়োজন করেছে।

বুট ক্যাম্পের মাধ্যমে চূড়ান্ত বাছাইপর্বে সহায়তা করেছে হবিগঞ্জ জেলার দ্য প্যালেস লাক্সারি রিসোর্টের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ (ইউএনডিপি) এবং ইউএসএইড।

বুট ক্যাম্পের বিচারকমণ্ডলীর দায়িত্ব পালন করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব জুয়েনা আজিজ, এটুআইর প্রকল্প পরিচালক এবং অতিরিক্ত সচিব মো. মোস্তাফিজুর রহমান, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব জাবেদ আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন সাদেকা হালিম এবং বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের যন্ত্র প্রকৌশল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. মো. আশরাফুল ইসলাম।

লিপির ‘উইমেন হোম’ অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে নারীদের আবাসন সমস্যা নিরসনে অ্যাপের সাহায্যে ঢাকা শহরের মধ্যে খালি বাসা খুঁজে পাওয়া যাবে। একটি ওয়েবসাইট এবং অ্যাপের মাধ্যমে নারীরা বাসা ভাড়া, বাসার ভেতরের ছবি, এবং বাসা সম্পর্কে সমস্ত তথ্য জানতে পারবেন। মেয়েরা বিপদে পড়লে স্থানীয় থানা ও অভিভাবককেও জানাতে পারবেন। তানজিলার গেমের মাধ্যমে যৌন-শিক্ষা ও যৌন নির্যাতন সম্পর্কে দিক নির্দেশনা থাকবে। আফরোজার অ্যাপের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা উন্নত মানসিক চিকিত্সা নিতে পারবেন।

এ বছর প্রতিযোগিতায় মোট ৩১৬টি উদ্ভাবন জমা পড়ে এবং এর মধ্য থেকে তিনটি উদ্ভাবনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। শ্রেষ্ঠ উদ্ভাবক তিন নারীর প্রত্যেককে ১ লাখ টাকা করে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে এবং অন্যান্য প্রকল্পের মধ্য থেকে বাস্তবায়ন উপযোগী সমাধানগুলোকে সফলভাবে বাস্তবায়নের জন্য পরবর্তী সময়ে আর্থিক অনুদান ও কারিগরি সহায়তা দেওয়া হবে এটুআই ইনোভেশন ফান্ডের আওতায়।

পিডিএসও/তাজ