রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন প্রচারে নতুন নিয়ম

প্রকাশ : ২৫ মে ২০১৮, ১৪:৪৬ | আপডেট : ২৫ মে ২০১৮, ১৪:৫৬

অনলাইন ডেস্ক

ফেসবুক এবং টুইটারে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন প্রচারে নতুন নীতিমালা চালু হয়েছে। গত মঙ্গলবার ফেসবুক এই নীতিমালা জারি করেছে এবং টুইটার জানায়, চলতি গ্রীষ্মের শেষের দিকে তারা নতুন নীতিমালা কার্যকর করবে। প্রতিষ্ঠান দুটি রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন ছাড়াও স্বাস্থ্য, শিক্ষা, অভিবাসন, গর্ভপাত এবং নাগরিক অধিকারসংক্রান্ত বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে দেয়া বিজ্ঞাপনেও নতুন এই নীতিমালা কার্যকর করবে।

নতুন এই নীতিমালা অনুযায়ী, ফেসবুকে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন অথবা ইস্যুসংক্রান্ত বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্য বিজ্ঞাপনদাতাদের তাদের পরিচয় এবং লোকেশন প্রকাশ করতে হবে। এজন্য ফেসবুক বিজ্ঞাপন প্রকাশের জন্য একটি নতুন প্রক্রিয়া তৈরি করেছে। প্রাথমিকভাবে যুক্তরাষ্ট্রে এ যাচাই বাছাইয়ের প্রক্রিয়া চালু করা হচ্ছে। বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্য এখন বিজ্ঞাপনদাতাদের যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় পরিচয়পত্র, একটি ঠিকানা এবং যেসকল প্রতিষ্ঠান অথবা সংস্থাকে তারা প্রতিনিধিত্ব করে তাদের লিস্ট দিতে হবে। নতুন নীতিমালায় এই বিজ্ঞাপনগুলোর নিচে ‘পেইড ফর বাই’ লেখা থাকবে এবং যে এই বিজ্ঞাপনটির জন্য অর্থ পরিশোধ করেছে তার প্রোফাইল চলে আসবে।

ফেসবুকে বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন যাচাই বাছাই করার জন্য ফেসবুক আরও তিন থেকে চার হাজারের মতো নতুন কর্মী নিয়োগ দেবে বলে জানা গেছে। রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে টুইটারেও প্রায় একই রকম ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়ার মুখোমুখি হতে হবে বিজ্ঞাপনদাতাদের।

গতকাল বৃহস্পতিবার টুইটার এক বিবৃতিতে জানায়, আমরা বাইরের দেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে পারে এরকম বিজ্ঞাপনকে আর অনুমতি দেব না। টুইটারে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন প্রচার করার জন্য তাকে মার্কিন ফেডারেল অফিস থেকে নির্দিষ্ট করা প্রার্থী হতে হবে।

পিডিএসও/হেলাল