ব্রিটেনে চাপের মুখে ফেসবুক

প্রকাশ : ২৪ এপ্রিল ২০১৮, ১০:৩৯

অনলাইন ডেস্ক

ব্রিটেনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেরেমি হান্ট জানিয়েছেন, শিশুদের সুরক্ষা নিয়ে চোখ বুজে থাকলে চলবে না। হুশিয়ারি জানিয়ে ফেসবুকসহ অন্যান্য কিছু সোশ্যাল মিডিয়া কোম্পানিকে চিঠিও লিখেছেন তিনি। ফেসবুক ছাড়াও গুগল, টুইটার, হোয়াটস অ্যাপের মতো ইন্টারনেট কোম্পানিগুলোকেও এই চিঠি পাঠানো হয়েছে।খবর, বিবিসি।  

মন্ত্রীর ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, শিশুরা যাতে বেশিক্ষণ এসব সাইটে সময় না কাটায় সে ব্যবস্থা করারও দাবি জানানো হয়েছে। ব্যর্থ হলে কঠোর আইন প্রণয়নের হুমকি দিয়েছেন ব্রিটিশ মন্ত্রী। সবচেয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে কম বয়সী শিশুদের এসব সোশ্যাল মিডিয়াতে অ্যাকাউন্ট খোলা নিয়ে।

ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার এবং স্ন্যাপচ্যাটে অ্যাকাউন্ট খোলার সর্বনিম্ন বয়স ১৩। হোয়াটস অ্যাপ এবং ইউটিউবও একই বয়সসীমা অনুসরণ করে। কিন্তু বিস্তর অভিযোগ রয়েছে, এর চেয়ে অনেক কম বয়সীরাও বয়স ভাঙিয়ে এসব সাইটে দেদার অ্যাকাউন্ট খুলছে।

মন্ত্রী জেরেমি হান্ট তার চিঠিতে লিখেছেন, আমি উদ্বিগ্ন যে হাজার হাজার শিশু বয়সসীমা নিয়ে তোমাদের নীতি ভঙ্গ করে চলছে এবং তা নিয়ে তোমাদের কোনো মাথাব্যথা নেই। কিন্তু আমার আশঙ্কা একটা পুরো প্রজন্ম অল্প বয়সে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঢুকে ক্ষতিকর মানসিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। অথচ তোমরা চোখ বন্ধ করে আছ।

দেশটিতে সোশ্যাল মিডিয়াতে শিশু সুরক্ষা নিয়ে সরকারি হুমকির খবর নিয়ে আলোচন-বিতর্ক যখন জোরদার হচ্ছে, সে সময় ফেসবুকের বিরুদ্ধে বিপুল অঙ্কের ক্ষতিপূরণ চেয়ে হাইকোর্টে একটি মামলা হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। মামলাটি করেছেন ব্রিটেনের স্বনামধন্য ভোক্তা পরামর্শক প্রতিষ্ঠান মানিসেভিং এক্সপার্ট ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা মার্টিন লিউয়িস।

পিডিএসও/তাজ