একজন মানবিক ছাত্রনেতা আরিফ

প্রকাশ | ১৪ মে ২০২০, ২৩:৪৬ | আপডেট: ১৫ মে ২০২০, ০০:৩৩

নিজস্ব প্রতিবেদক

সরকার দলীয় ধনাঢ্য ব্যক্তিরা করোনার এ বৈশ্বিক মহামারির প্রাক্কালে তেমন একটা সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে আসেনি। রাজধানীর তুরাগ থানা এলাকার ৪ টি ওয়ার্ডে গত সিটি নির্বাচনে ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করতে চেয়েছিলেন কমপক্ষে ৪৫ জনের মতো মূল ও অঙ্গ দলের নেতা। যাদের বেশির ভাগই বিত্তশালী। মানুষের কথা বলে নির্বাচনে আসতে গিয়ে অনেক টাকা পয়সায়ও ব্যয় করেছেন। অথচ মাহরারির এ প্রাদুর্ভাবের সময়ে তাদের বেশির ভাগই আজ লাপাত্তা। খাদ্য কষ্ট নিয়ে সাধারণ মানুষ যখন দিশেহারা, তখন মানবিকতার তাগিদে মুষ্টিমেয় কিছু লোক বা রাজনৈতিক নেতা পর্যাপ্ত খাদ্য সহযোগিতা নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন অবহেলিত তুরাগ থানা এলাকায়। তেমনি একজন ছাত্রনেতার মানবকিতাবোধ সকলের প্রসংশা কুড়িয়েছে। করোনা মহামারির শুরু থেকে তুরাগ থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আরিফ হাসান অনেক ধরণের খাদ্য সহায়তা নিয়ে অন্নহীন বেকার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। একজন ছাত্র নেতার এমন উদ্যাগ রাজধানী ঢাকায় খুব বেশি দেখা যায় না। 

করোনা মহামারির শুরু দিকে প্রায় ২ শতাধিক পরিবারকে চাল, ডাল, আলু, তেল মিলিয়ে প্রতি পরিবারের এক সপ্তাহের খাদ্য যোগান দিয়েছেন। খাদ্য সহায়তার পাশাপাশি করোনার সতর্কতায় মাঠে থেকে সাধারণ মানুষকে সতর্ক করাসহ গোটা তুরাগ জুড়ে ‘মানবিক স্বেচ্ছাসেবি’ হিসেবে প্রসংশনীয় ভুমিকা রেখেছে। এসব করেই থেমে যাননি ছাত্র নেতা আরিফ। গত প্রায় ১৫ দিন থেকে তুরাগের ছয়টি স্পটে সবজি সহযোগিতা দিয়েছেন। তুরাগের বাউনিয়া বাজার, ডিয়াবাড়ী আওয়ামী লীগ অফিসের সামনে, নয়া নগর চেয়াম্যান বাড়ি, কামারপাড়া স্কুল মোড়, বাটুলিয়া মহিলা মাদ্রাসা ও রানাভোলা বটতলা এলাকায় সবজি বিতরণ করেছেন। সামনে আরো কয়েকটি স্পটে এ ধরণের সবজি বিতরণের কর্মসূচি চালিয়ে যেতে চান। প্রত্যেকটি স্পটে ১৫০ টি পরিবারকে ৫ টি আইটেমের সবজি নিজ হাতে দিয়েছেন আরিফ।  আইটেম গুলো ছিলো ১ কেজি করলা, হাফ কেজি কাঁচা মরিচ, ১ ফালি মিষ্টি কুমড়া, ১ কেজি ঢেড়শ, বরবটি, লালশাক ও পুঁইশাক। 

তার একাজে স্থানীয় যুবলীগের নেতা ও সাবেক ছাত্র নেতা নাজমুল হাসান বিশেষ সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন। সহযোগিতার বিষয়ে আরিফ প্রতিবেদককে বলেন, দেখেন আমি ছাত্রলীগ করি, এ কাজ করতে হবে এমন বাধ্যবাধকতা আমার নেই। কিন্তু অনেক ভেবে চিন্তে আমি মানুষের পাশে দাঁড়ানোকে সর্বোচ্চ রাজনীতি বলে মনে করছি। আমি মনে করি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে আমার ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। আমার এ কাজে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ায় আমি বিশেষ ভাবে ধন্যবাদ জানাই আমার বড় ভাই, যুবলীগ নেতা নাজমুল হাসানকে।