গরীবের পাশে উত্তরার অনেকেই, ব্যক্তি পর্যায়ে বড় সহযোগিতা হাবিব হাসানের

প্রকাশ : ১৮ এপ্রিল ২০২০, ১৮:০৮ | আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২০, ০৯:৪৮

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর উত্তরায় বিভিন্ন সরকারি সহায়তার পাশাপাশি গরীব মানুষের মাঝে ব্যক্তি পর্যায়ে অধিক খাদ্য সহায়তা নিয়ে গরীব মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন উত্তরার ধনাঢ্য রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব আলহাজ হাবিব হাসান। ঢাকা-১৮ আসন এলাকায় গত প্রায় ১৫ দিন থেকে থেমে থেমে এ খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর আহবানে সাড়া দিয়ে তার এমন উদার হস্ত দান উত্তরার রাজনীতিতে বেশ আলোচিত। অন্য আরও অনেকে এমন সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন বলেই বৃহত্তর উত্তরায় সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন খাদ্য চাহিদায় এখনো তেমন কোনও খারাপ প্রভাব পড়েনি। 

এ বিষয়ে হাবিব হাসান বলেন, কোনও রাজনৈতিক উদ্দেশে নয়, আল্লাহ আমাকে সামর্থ্য দিয়েছেন তাই পৃথিবী ব্যাপী চলা এ মাহামারিতে সাধারণ গরীবের মুখে অনাহারে খাদ্য তুলে দেয়া আমার দায়িত্ব বলেই মনে করি। আমার সহায়তার পাশাপাশি উত্তরায় অন্য আরও অনেকেই সহায়তা নিয়ে এগিয়ে এসেছে। এজন্য আমি সবাইকে ধন্যবাদ দিয়ে উৎসাহ যোগাই। খাদ্যের অভাবে কোনও মানুষ মারা যাবে এটা আমরা উত্তরাবাসী ইনশাল্লাহ হতে দিবো না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আহবানে সাড়া দিয়ে আমরা সকলে এমন সংকল্পই করতে চাই। 

জানা যায়, উত্তরার বিভিন্ন ওয়ার্ডে খাদ্য সহায়তা নিয়ে আওয়ামী লীগ ও বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতারা এগিয়ে এসেছেন। আবার কিছু কিছু রাজনৈতিক নেতাদের দায়িত্বহীনতা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন তৃণমূল নেতাকর্মীরা। রাজধানীর দক্ষিণ খান এলাকায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ সভাপতি এ্যাডভোকেট আবু হানিফ ও পরিবার মিলে গরীব মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন সাধ্যমত। এর বাইরে এ থানা এলাকায় আরও যারা সাহায্য নিয়ে গরীব মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন, তারা হলেন, সাবেক চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন, নগর আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য রবিউল ইসলাম রবি, সরদার বেলায়েত হোসেন মুকুল, বিমান বন্দর থানা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সোহেল রেজা ও কেসি ফাউন্ডেশন নামে একটি সংগঠন। পাশ্ববর্তী উত্তরখান এলাকাটি এখনো গ্রামীণ পরিবেশের আদলে হওয়ায় সেখানে খেটে খাওয়া মানুষের মাঝে দৈনিক ভিত্তিতেই সহযোগিতা করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। তবে উল্লেখযোগ্য কোনও রাজনৈতিক নেতা সেখানে ব্যাপক ত্রাণ সহায়তা নিয়ে এগিয়ে না আসলেও থানা ছাত্রলীগের সভাপতি নাসিম সরকার ও তার পরিবার ত্রাণ তৎপরতা নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। 

অন্য দিকে রাজধানী তুরাগ এলাকায় সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হাশিমের পক্ষে ছেলে হাবিবুর রহমান, মুহিবুল হাসান, জাহিদুল হাসানরা বড় ত্রান সহায়তা নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। এর বাইরে হরিরামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র.সহ সভাপতি হাজী কফিল উদ্দিন মেম্বার প্রায় ১৬শ প্যাকেট ত্রাণ সহায়তা দিয়েছেন বলে জানা গেছে। প্রতি প্যাকেটে ৫ কেজি চাল, ৩ কেজি আলু, ২ কেজি ডাল ও ১ কেজি তেল ছিল। তুরাগ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সাদেকুর রহমান ও কাউন্সিলর নাসির উদ্দিনের ছেলে স্বপনও দিয়েছেন ত্রাণ সামগ্রী। সাবেক ৫ নং ওর্য়াড আওয়ামী লীগ সভাপতি মনসুর এর উদ্যেগে শনিবার বিকেলে দিয়া বাড়ি এলাকায় ৫ শতাধিক গরীবের হাতে ত্রাণের সহায়তা তুলে দেন স্থানীয় এমপি এ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের এপিএস মজিবর রহমান (মজিবর মামা) ও কাউন্সিলর নাসির উদ্দিন। এর বাইরে ত্রাণ সহায়তা নিয়ে এগিয়েছেন, থানা কৃষক লীগের সাজেদুল ইসলাম, কামাল হোসেনসহ অনেকে। 

সহযোগী সংগঠনের মধ্যে যুবলীগের নেতাকর্মীরা প্রয়োজনীয় ত্রাণ সহায়তা নিয়ে সাধ্যমত নেতাকর্মীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। নগর উত্তর যুব লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সেলিম খান মধ্যবিত্তদের সহযোগিতায় কার্যকর উদ্যোগ নিয়েছেন। উত্তরা ৫১ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী ইফতেখারুল ইসলাম জুয়েল সবচেয়ে বেশি সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন। তিনি ইতোমধ্যে স্থানীয় সংসদ সদস্যের ফান্ডে গরীব মানুষের জন্য ১ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছেন। মাস খানেক থেকে প্রতিদিন তিনি এটা করে যাচ্ছেন। যা যুবলীগের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ অবগত। এর বাইরে প্রতিদিন গরীব মানুষের মাঝে নগদ অর্থ সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছেন। ৫২ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী সোহেল রানা ও তার কর্মী সমর্থকরা প্রতিদিন প্রায় দুই শতাধিক মানুষের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছেন। ৫৪ নং ওয়ার্ড যুবলীগের পক্ষ থেকে আশরাফুল ইসলাম রুবেল ত্রাণ সহায়তা নিয়ে মানুষের পাশে ছিলেন। ৫২ নং থেকে ওয়ার্ড থেকে মিলন হোসেন রানাও নেমেছেন সহায়তা নিয়ে। উত্তরা যুব কল্যাণ ফাউন্ডেশনের ব্যানারে খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন শাহ আলম আকাশ, গোলাম রাব্বানী রাজিব, রতন দেওয়ানসহ অনেকে।

তুরাগ থানা যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ম আহবায়ক নাসির উদ্দিন নাসিম করোনা রোগীদের সৎকারে এগিয়ে আসার কথা জানিয়েছেন। বৃহত্তর উত্তরা এলাকায় কেউ করোনায় মৃত্যুবরণ করলে সকল ভয়ভীতি উপেক্ষা করে তিনি স্বেচ্ছায় তাদের সৎকার করতে চান। এছাড়া নিজ অর্থায়নে গরীব মানুষের মাঝে অর্থ সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন এ যুবনেতা।