কাউন্সিলর রাজীব গ্রেফতার

প্রকাশ : ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:১২

অনলাইন ডেস্ক

যুবলীগ নেতা ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান রাজীবকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

গতকাল শনিবার রাতে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার একটি বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সেখান থেকে আগ্নেয়াস্ত্র, মদ ও নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

মোহাম্মদীয়া হাউজিং সোসাইটির বাসিন্দা রাজীব ঢাকা উত্তরের ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের (মোহাম্মদপুর-বসিলা এলাকার) কাউন্সিলর। যুবলীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তিনি। গ্রেফতারের পর রাজীবকে বহিষ্কার করেছে যুবলীগ।

গত মাসের মাঝামাঝিতে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরুর পর যুবলীগের অনেক নেতার মতো গা ঢাকা দিয়েছিলেন রাজীব। এরপর তার খোঁজ শুরু হয় বলে র‌্যাবের মুখপাত্র সারোয়ার বিন কাশেম জানিয়েছেন।

এর আগে কাউন্সিলর রাজীবকে ধরতে শনিবার সন্ধ্যার পর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার এই বাড়ি ঘিরে ফেলে র‌্যাব। বুসন্ধরা আবাসিক এলাকার ৮ নম্বর সড়কের ৪০৪ নম্বর ভবন ঘিরে ফেলেন র‌্যাব সদস্যরা। এরপর সেখানে অভিযান চালিয়ে মধ্যরাত পেরিয়ে সোয়া ১টার দিকে রাজীবকে নিয়ে নিচে নামেন তারা।

এ সময় সারোয়ার বিন কাশেম সাংবাদিকদের বলেন, রাজীবের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদ, চাঁদাবাজি ও দখলদারিত্বের অভিযোগ পেয়েছিলেন তারা। কিছু দিন ধরে আত্মগোপনে ছিলেন তিনি। গত ১৩ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী এক বন্ধুর এই ফ্ল্যাটে ওঠেন তিনি।

ভবনের আটতলায় এক বন্ধুর ফ্ল্যাটে ছিলেন রাজীব, সেখান থেকে আগ্নেয়াস্ত্র, মদ ও নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। আটতলার ওই ফ্ল্যাট থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, তিন রাউন্ড গুলি, সাত বোতল বিদেশি মদ, পাসপোর্ট ও ৩৩ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম বলেন, ওই ফ্ল্যাটে রাজীব একাই ছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা দরজায় নক করলে তিনি খুলে দেন। কোনো ঝামেলা হয়নি।’

সম্প্রতি রাজধানীতে চলা ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরুর পর থেকেই আত্মগোপনে ছিলেন রাজীব।

পিডিএসও/তাজ