অর্থনৈতিক কূটনীতি আরো জোরদার করতে বললেন রওশন

প্রকাশ : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:১৫ | আপডেট : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:৫০

সংসদ প্রতিবেদক

সংসদে বিরোধী দলের নেতা বেগম রওশন এরশাদ দেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রা অব্যাহত রেখে নির্ধারিত সময়ে উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করতে অর্থনৈতিক কূটনীতি আরো জোরদার করার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বৃহস্পতিবার একাদশ সংসদের চতুর্থ অধিবেশনের শেষ কার্যদিবসে সমাপনী বক্তব্যে এ আহ্বান জানান।

রওশন এরশাদ বলেন, গত ১০ বছরে ক্রমাগতভাবে দেশের অর্থনীতির সব সূচকের প্রবৃদ্ধির উর্ধ্বগতি অব্যাহত রয়েছে। এ উর্ধ্বগতি অব্যাহত রাখতে বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশ দুতাবাসসমূহের কর্মরত কূটনীতিকদের অর্থনৈতিক কূটনীতি আরো জোরদার করে দেশীয় পণ্যের রপ্তানি বাজার আরো সম্প্রসারণ করতে হবে।

তিনি এ ব্যাপারে গত মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লন্ডন সফরের সময় ইউরোপের বিভিন্ন দেশের বাংলাদেশ দূতাবাসে কর্মরত দেশীয় কূটনীতিকদের সম্মেলন আয়োজনকে অত্যন্ত কার্যকর উদ্যোগ বলে উল্লেখ করেন। রওশন বলেন, এভাবে তাদের উজ্জ্বীবিত করে অর্থনৈতিক কূটনীতি জোরদারে তৎপর করতে হবে।

বিরোধী দলের নেতা বলেন, পাশাপাশি বৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রেরণ নিশ্চিত করতে সব ধরনের কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে। আর বিদেশে কর্মরত বাংলাদেশি কর্মীদের স্বার্থসংরক্ষণ করতে হবে। সাথে সাথে বিদেশে দক্ষ শ্রমিক প্রেরণ ও আরো নতুন নতুন শ্রম বাজার খুঁজে বের করতে হবে।

রওশন এরশাদ দেশে সাম্প্রতিক সময়ে ডেঙ্গু রোগের প্রাদুর্ভাবের কথা উল্লেখ করে বলেন, এ ব্যাপারে সরকারের পাশাপাশি জনগণকে ভূমিকা রাখতে হবে। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করলে ডেঙ্গু মশার বংশ বিস্তার বন্ধ করা সম্ভব হবে। আর তাতে এ রোগসহ মশাবাহিত অনেক রোগ থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে।

তিনি দেশে কিশোর গ্যাং কালচার রোধে সরকার তথা প্রশাসনকে কঠোর অবস্থান নেওয়ার পরামর্শ দেন। পাশাপাশি শিশু-কিশোরদের বিদ্যালয়ে গমন নিশ্চিত করার ওপর জোর দেন। রওশন বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা নাগরিকদের দ্রুত তাদের নিজ দেশে ফিরে যাওয়া নিশ্চিত করতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান।

পিডিএসও/হেলাল